Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-০৬-২০১৬

ক্রেডিট জালিয়াতি: জাপানে ফের ১০ কোটি ইয়েন চুরির খবর

এস এম নাদিম মাহমুদ


ক্রেডিট জালিয়াতি: জাপানে ফের ১০ কোটি ইয়েন চুরির খবর

টোকিও, ০৬ জুন- জাপানে ফের বড় ধরনের ক্রেডিট জালিয়াতির খবর পাওযা গেছে। ভুয়া তথ্য ব্যবহার করে গত বছরের ডিসেম্বরে দেশটির সেভেন ব্যাংক থেকে ১০ কোটি জাপানি মুদ্রা তছরুপ করা হয় বলে টোকিও পুলিশ জানিয়েছে।

একইসঙ্গে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতেও ব্যাংকটি অর্থ চুরি হয়ে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছে।

এমন এক সময় এ খবর এল যখন গত ১৫ মে দুই ঘন্টার কিছু সময় ধরে দেশটির ১৬টি প্রদেশে ছড়িয়ে থাকা সেভেন-এলিভেন কনভেনিয়ন্ট স্টোরের ১৪শ’ এটিএম বুথে ১৪০ কোটি জাপানি মুদ্রা (ইয়েন) খোয়া যায়।

আর এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার তাসু নাকাজুনু (২৮) ও কাসুয়া সাহাশি (২৯) কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

শুক্রবার টোকিও পুলিশ সাংবাদিকদের বলেন, গত বছর ২৭ ডিসেম্বর দেশটির পাঁচটি প্রদেশ থেকে একযোগে ১০ কোটি ইয়েন সেভেন ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে তুলে নেওয়া হয়।

প্রাথমকি তথ্যে মধ্য আমেরিকার এল সালভাদরের নাগরিক এ অর্থ চুরির সাথে জড়িত বলে জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে।

জাপানের অভ্যন্তরীন ব্যাংক লেনদেন নিয়মানুযায়ী, প্রতিবার একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ এক লাখ ইয়েন লেনদেন করতে পারে।  আর সে অনুযায়ী, গত ১৫ মে অন্তত ১০০ জন চোর ১৪ হাজার বার অর্থ লেনদেন করে।

একই কায়দায় তাসু নাকাজুনু (২৮) ও কাসুয়া সাহাশি (২৯) এচি প্রদেশ থেকে ভুয়া ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ১২ লাখ ইয়েন ১২ বার অটোমেটিক ট্রেলার মিশিন (এটিএম) ব্যবহার করে লোপাট করে।

চুরি যাওয়া অর্থের একটি বিপুল অংশ ছিল আফ্রিকার স্টান্ডার্ড ব্যাংকের। ব্যাংকটির কর্মকর্তারা বলছেন, ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি চক্রটি তাদের ১ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার সরিয়েছে।

শুক্রবার পুলিশের কর্মকর্তারা আরও বলেন, আমরা কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ব্যাংকগুলোর অর্থ লেনদেনের ওপর কড়া নজর রাখছি।

ওদিকে, যে ব্যাংকটি ১০কোটি ইয়েন খুইয়েছে সেই সেভেন ব্যাংক কতৃপক্ষ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছে, একটি আন্তর্জাতিক মহল বিদেশি গ্রাহকদের হুবুহু তথ্য চুরি করে ভুয়া ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ওই অর্থ লোপাট করে।

ব্যাংকটির বড় ধরনের কোন ক্ষতি হয়নি জানিয়ে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছি। তারা তদন্ত করছে। আর এ সমস্যা দূর করতে আমরা ইলেকট্রো ম্যাগনেটিক ভেরিফাইড (ইএমভি) পদ্ধতি চালু করব, এতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার হবে।

পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, আমরা সর্বত্র অভিযান অব্যহত রেখেছি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, দেশীয়দের সহায়তায় এই চুরির ঘটনায় আন্তর্জাতিক একটি চক্র জড়িত।

এর আগে ২০১২ ও ২০১৩ সালে ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি করে জাপানসহ ২০টি দেশের বিভিন্ন অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান থেকে ৪৫ হাজার কোটি ইয়েন তুলে নিয়েছিল জালিয়াত চক্র।

ওদিকে, ব্যাংক নিরাপত্তা নাজুক হয়ে পড়া জাপান সরকার গত সপ্তাহে এটিএম কার্ডের পরিবর্তে ‘বিশেষ চিপ’ ব্যবহারের জন্য নীতিমালা নির্ধারণ করেছে।

ঘোষিত এ নীতিমালা অনুযায়ী, দেশটির প্রতিটি ব্যাংক আগামী ২০২০ সালের মধ্যে তাদের গ্রাহকের কাছে এই চিপ পৌঁছে দেবে। এটি শতভাগ ব্যাংক লেনদেন সুরক্ষা দেবে বলেও জানানো হচ্ছে।

আর/১২:০৪/০৬ জুন

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে