Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-০৩-২০১৬

নবম আইপিএলের সেরা ‘ফ্লপ’ একাদশ

নবম আইপিএলের সেরা ‘ফ্লপ’ একাদশ

মুম্বাই, ০৩ জুন- পাঁচ দিন আগে শেষ হলো টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে জমজমাট আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল) । তবে এখনও রেশ রেয়ে গেছে নবম আইপিএলের ।

আইপিএলের ক্রিকেটারদের পারফর্মেন্স নিয়ে এখনও চলছে নানা হিসেব নিকেশ। বিশ্বের বিভিন্ন জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট বাছাই করছে আইপিএলের সেরা একাদশ।

তবে এবার ভারতের জনপ্রিয় বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার ভিন্ন আঙ্গিকে বাছাই করেছে আইপিএলের একাদশ। তবে সেটি সেরা পারফর্মেন্সের উপর ভিত্তি করে নয়, বরং বাজে পারফর্মেন্সের দিক থেকে।

আইপিএলের এই ফ্লপ একাদশের প্রথমেই আছে শ্রেয়াস আইয়ারের নাম। দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের এই ব্যাটসম্যান আইপিএলে ছয় ম্যাচ খেলে মাত্র ৩০ রান করেছেন তিনি যেখানে তার সর্বোচ্চ ইনিংস মাত্র ১১ রানের।

এরপরই তালিকায় আছেন চ্যাম্পিয়ন দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নামান ওঝা। মারকুটে এই উইকেটরক্ষক আইপিএলের বড় মঞ্চে চূড়ান্ত ভাবেই ব্যর্থ হয়েছেন। হায়দ্রাবাদের হয়ে ১৭ ম্যাচ খেলে মাত্র ১৩৭ রান সংগ্রহ করেছেন তিনি।

প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকা দিয়ে কেনা হায়দ্রাবাদের ডানহাতি ব্যাটসম্যান দীপক হুদাও আইপিএলে নিজেকে প্রমাণ করতে চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। ১৭ ম্যাচে মাত্র ১৪৪ রান করেছেন তিনি।

রাইসিং পুনে সুপার জায়ান্টসের অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান জর্জ বেইলিও রয়েছেন এই তালিকায়। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিসের পরিবর্তে জায়গা পাওয়া এই অস্ট্রেলিয়ান পাঁচ ম্যাচ খেলে মাত্র ৮৪ রান সংগ্রহ করেছেন, যেখানে তার স্ট্রাইক রেট ৮৬ এরও নীচে।

প্রীতি জিনতার দল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে কয়েকটি ম্যাচে নেতৃত্ব দেয়া ডেভিড মিলারও এবারের আইপিএলে হতাশার জন্ম দিয়েছেন। আইপিএলের এই আসরে আশানুরূপ পারফর্ম করতে না পারা এবং দলের টানা পরাজয়ের কারণে তার অধিনায়কত্ব চলে যায় ভারতীয় ব্যাটসম্যান মুরলি বিজয়ের হাতে। আইপিএল নাইনে ১৪ ম্যাচে ১৬ গড়ে মাত্র ১৬১ রান করেছেন তিনি।

এরপরের নামটি ভারতের হয়ে দুর্দান্ত খেলে আইপিএল শুরু করা হার্দিক পান্ডের। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের এই অলরাউন্ডার ১১টি ম্যাচে মোট ৪৪ রান করেছেন এবং মাত্র তিনটি উইকেট শিকার করেছেন।

আইপিএলের নিলামে প্রায় সাড়ে ৮ কোটি টাকা দিয়ে অলরাউন্ডার পবন নেগিকে কিনে সবাইকে চমকে দিয়েছিল দিল্লি। কিন্তু ৮ ম্যাচে ৫৭ রান আর মাত্র একটি উইকেট শিকার করে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন এই ভারতীয়।

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে মাঠে নামা করণ শর্মাও ছিলেন আইপিএল নাইনের অন্যতম খারাপ পারফর্মার। মোট ১৬.২ ওভার বল করে ১৭০ রান দিয়ে কোনও উইকেট পাননি এই লেগস্পিনার।

আইপিএল ক্যারিয়ারে অন্যতম খারাপ পারফর্মেন্স করেছেন ভারতের অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ১৪টি ম্যাচ খেলে মাত্র ১০ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। ব্যাট হাতে করেছেন মাত্র ৪১ রান।

অশ্বিনের পর আইপিএলের ফ্লপ একাদশে আছেন ভারত জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার ইশান্ত শর্মা। প্রায় ৪ কোটি টাকা দিয়ে তাকে দলে ভিড়িয়েছিলো মহেন্দ্রা সিং ধোনির রাইসিং পুনে সুপার জায়ান্টস। কিন্তু টুর্নামেন্টে ওভার প্রতি প্রায় ১০ রান দিয়ে মাত্র তিন উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

সবার শেষে একাদশে আছেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব দলের প্রোটিয়া পেসার কাইল অ্যাবোট। পাঁচ ম্যাচে প্রায় ১২ গড়ে মাত্র দুই উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

আইপিএলের সেরা ফ্লপ একাদশ: শ্রেয়াস আইয়ার, নামান ওঝা, দীপক হুদা, জর্জ বেইলি, ডেভিড মিলার, হার্দিক পান্ডে, পবন নেগি, করণ শর্মা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ইশান্ত শর্মা, কাইল অ্যাবোট।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে