Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-০২-২০১৬

'সময়সেতুপথে' বাচনিকের একটি কবিতাসন্ধ্যা 

দেলওয়ার এলাহী


'সময়সেতুপথে' বাচনিকের একটি কবিতাসন্ধ্যা 

টরন্টো, ২ জুন- আবৃত্তি সংগঠন 'বাচনিক' আয়োজিত কানাডাবাসী বাংলাদেশী কবিদের কবিতা আবৃত্তির অনুষ্ঠান 'সময়সেতুপথে' অনুষ্ঠিত হলো। উল্লেখ্য বাচনিক ইতিমধ্যে টরন্টোতে আবৃত্তি সংগঠন হিসেবে কবিতামোদীদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ব্যস্ত প্রবাস জীবনের মধ্যেও অনেক আবৃত্তিকারদের এই সংগঠন কয়েকটি মননঋদ্ধ কবিতাসন্ধ্যার আয়োজন করে। ২০১৪ সালে 'যুদ্ধ, সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদ বিরোধী শান্তির সপক্ষে কবিতাসন্ধ্যা "সুচেতনা" ২০১৫ সালে 'আনন্দ-ভৈরবী' শিরোনামের আরেকটি আবৃত্তির অনুষ্ঠান সফলভাবে সম্পন্ন করে 'বাচনিক' টরন্টোতে ব্যাপক পরিচিতি এবং সুনাম অর্জন করেছে। একদল উদ্যমী কবিতাপাগল ব্যক্তিগত লাভক্ষতির হিসেব ভুলে কঠোর পরিশ্রমে তিলে তিলে গড়ে তুলেছেন এই সংগঠন। সাম্য ও সমতার ভিত্তিতে গড়ে উঠা এই সংগঠনের উদ্যোগে একটি ব্যতিক্রমী ও একটি ঐতিহাসিক উদ্যোগ 'সময়সেতুপথে' নামের অনুষ্ঠানটি। কবি জীবনানন্দ দাশের কবিতা থেকে নেওয়া শব্দবন্ধ 'সময়সেতুপথে' ঐতিহাসিক এই কারণে যে, কানাডায় উল্লেখযোগ্যসংখ্যক বাংলাদেশী কবির বসবাস। যারা দেশে-বিদেশে পরিচিত। মূলধারার কাব্য আন্দোলনের সাথে তাঁদের অন্তর্ভুক্তি এবং অবদান অনস্বীকার্য। দেশে-বিদেশে তাঁরা সন্মানিত এবং পুরস্কৃত হয়েছেন। এমনকি কেউ কেউ জাতীয় পুরস্কারেও সম্মানিত। বিচ্ছিন্নভাবে একক বা একাধিক কবির কবিতা কোনো কোনো অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করা হলেও, শুধুমাত্র কানাডাপ্রবাসী বাংলাদেশী অনেক উল্লেখযোগ্যসংখ্যক কবিদের কবিতার আবৃত্তির অনুষ্ঠান এই প্রথম 'বাচনিক' আয়োজন করল। যদিও এই অনুষ্ঠানে কানাডাবাসী বাংলাদেশী সকল কবিদের কবিতা আবৃত্তি করা সম্ভব হয়নি, তবে অচিরেই 'বাচনিক' অন্যান্য কবিদের কবিতা নিয়ে আবৃত্তির অনুষ্ঠান আয়োজন করার কথাও ভাবছে। 

'সময়সেতুপথে'র শুরুতে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমি পুরস্কার প্রাপ্ত মুক্তিযুদ্ধ গবেষক তাজুল মোহাম্মদ। তাজুল মোহাম্মদ বাচনিকের সর্বাঙ্গীণ সফলতা কামনা করেন। 'বাচনিক' তাজুল মোহাম্মদকে তাঁর বাংলা একডেমি পুরস্কার প্রাপ্তিতে আবারও অভিনন্দন জানায়। গৌতম পাল ও মিজান রহমান এই অনুষ্ঠানটি স্পন্সর করেন। অনুষ্ঠানে কবিদের লেখা কাব্যগ্রন্থ ও অন্যান্য গ্রন্থ সুলভে বিক্রি করা হয়। বাচনিক পরিবারের সদস্য প্রতিমা রাণী সরকারের তত্ত্বাবধানে গ্রন্থ বিক্রয় ও প্রদর্শন করা হয়। মুক্তি প্রসাদ স্বেচ্ছাসেবা দিয়ে সব সময়ই বাচনিক পরিবারের সাথে যুক্ত ছিলেন। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। শব্দ নিয়ন্ত্রণের কঠিন দায়িত্বটি পালন করেন দেওয়ান মোতাহার। 

সন্ধ্যা ঠিক সাড়ে ছয়টায় মেরী রাশেদীনের স্বাগত বক্তব্যের পর শুরু হয় মূল আবৃত্তির অনুষ্ঠান 'সময়সেতুপথে'। 'অন্তর মম বিকশিত করো, অন্তরতর হে...' রবীন্দ্রনাথের এই মঙ্গলবার্তা দিয়েই 'বাচনিক'-এর অনুষ্ঠানের শুরুতে মঙ্গলবন্দনার রেওয়াজ। এই অনুষ্ঠানও শুরু হয় সমবেত কণ্ঠে- 'অন্তরমম বিকশিত করো...' প্রার্থনা স্তোত্র পাঠ করার মাধ্যমে। বেশ কয়েকজন কবির উপস্থিতি অনুষ্ঠানকে আলাদা মাত্রা দান করে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কবি রূমানা চৌধুরী, কবি হাসান মাহমুদ, কবি মেহরাব রহমান, কবি তুষার গায়েন, কবি মৌ মধুবন্তী, কবি দেলওয়ার এলাহী। উপস্থিত কবিদের কবিতা আবৃত্তির পরে কবিরা তাঁদের কাব্যভাবনা এবং অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন শ্রোতাদের সাথে। 

শাহানা আকতার মহুয়ার কবিতা আবৃত্তি ক'রে এলিনা মিতা অনুষ্ঠানের মূল পর্বের সূচনা করেন। উল্লেখ্য যে, প্রত্যেক কবির কবিতা আবৃত্তির পূর্বে কবির জীবন এবং কাব্যভাবনা সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোকপাত করেন মেরী রাশেদীন। সুলতানা শিরীন সাজির কবিতা আবৃত্তি করেন সাইফুল চৌধুরী, মেহরাব রহমানের কবিতা আবৃত্তি করেন ফারহানা আহমেদ, ইকবাল হাসানের কবিতা আবৃত্তি করেন কল্যাণীয়া পূরবী, মৌ মধুবন্তীর কবিতা আবৃত্তি করেন হোসনে আরা জেমী, রূমানা চৌধুরীর কবিতা আবৃত্তি করেন মেহরাব রহমান ও আসমা হক, নাহার মনিকার কবিতা আবৃত্তি করেন আশরাফুন নাহার জলি, মণিকা মূনার কবিতা আবৃত্তি করেন রেজা অনিরুদ্ধ, হাসান মাহমুদের কবিতা আবৃত্তি করেন আসমা হক, রোকসানা লেইসের কবিতা আবৃত্তি করেন এলিনা মিতা ও অরুণা হায়দার, তুষার গায়েনের কবিতা আবৃত্তি করেন মেরী রাশেদীন ও মেহরাব রহমান, অপরাহ্ণ সুসমিতোর কবিতা আবৃত্তি করেন কাজী হেলাল, মুস্তাফিজ রহমানের কবিতা আবৃত্তি করেন জাহানারা চিনু, ফেরদৌস নাহারের কবিতা আবৃত্তি করেন ফাতিমা হাসিন, মাসুদ খানের কবিতা আবৃত্তি করেন সাইফুল চৌধুরী, কবি অপরাহ্ণ সুসমিতোর কবিতা আবৃত্তি করেন কাজী হেলাল ও মৌ মধুবন্তী এবং দেলওয়ার এলাহীর কবিতা আবৃত্তি করেন হোসনে আরা জেমী ও অরুণা হায়দার। 

তারপর বাচনিকের প্রত্যেক সদস্য ও উপদেষ্ঠাসহ সমবেত কন্ঠে 'ধন ধান্য পুষ্প ভরা, আমাদের এই বসুন্ধরা' গানটি পরিবেশন করে 'সময়সেতুপথে'র সমাপ্তি হয়। এই গানটিতে নেতৃত্ব দেন মুক্তি প্রসাদ এবং কবিতায় কণ্ঠ দেন মেরী রাশেদীন। ব্যাপক করতালির মাধ্যমে অনুষ্ঠানে আগত সবাইকে ধন্যবাদ জানান 'বাচনিক'-এর প্রতিটি সদস্য।

কানাডা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে