Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-৩১-২০১৬

মানুষ তার কাজ দিয়েই মূল্যায়িত হয়, ফ্যাশন দিয়ে নয়: ঈশিতা

মাহমুদ উল্লাহ


মানুষ তার কাজ দিয়েই মূল্যায়িত হয়, ফ্যাশন দিয়ে নয়: ঈশিতা

ঢাকা, ৩১ মে- রুমানা রশিদ ঈশিতা। একসময়ের তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী। নতুন কুঁড়ি থেকে উঠে আসা এই প্রতিভাবান নারী দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে মিডিয়ায় তার অবস্থান ধরে রেখেছেন। চাকরি ও সংসার নিয়ে ব্যস্ত এই অভিনেত্রী অনেক গুণের অধিকারী হলেও এখন রয়েছে পর্দার আড়ালে। সম্প্রতি কথা হয় এই গুনি অভিনেত্রীর সঙ্গে। তিনি ফ্যাশন বিষয়ে তার ভাবনা শেয়ার করেছেন এ প্রতিবেদকের সঙ্গে। নিচে তারই চুম্বক অংশ তুলে ধরা হলো।


প্রতিবেদক: সাধারণত কোথা থেকে শপিং করেন আপনি?
ঈশিতা: সেরকম স্পেসিফিক কোন জায়গা নেই। ঢাকার বিভিন্ন শপিং মল, শোরুম থেকেই শপিং করি। যখন যেখানে যা ভালো লাগে, তাই কিনি। 

প্রতিবেদক: শরীরের ফিটনেস ধরে রাখার জন্য আপনি কি করেন?
ঈশিতা: বাসায় প্রয়োজনীয় ইন্সট্রুমেন্ট আছে। যখন সময় পাই এক্সারসাইজ করি। তবে তা রেগুলার হয়ে উঠে না। 


প্রতিবেদক: কি খাবার খেতে পছন্দ করেন? 
ঈশিতা: আমি দেশীয় খাবার খেতেই পছন্দ করি। জাঙ্ক ফুড পছন্দ করি না। দেশি খাবার বলতে ভাত মাছ। 

প্রতিবেদক: কি ধরনের পোশাকে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ পছন্দ করেন?
ঈশিতা: শাড়ি আমার খুব প্রিয়। তবে বেশি পরা হয় সেলোয়ার কামিজ।  


প্রতিবেদক: কোন ব্র্যান্ডের পারফিউম ব্যবহার করেন?
ঈশিতা: আমি সব ধরণের পারফিউমই ব্যবহার করি। যা ভালো লাগে তাই। 

প্রতিবেদক: সানগ্লাস পরেন? আপনার পছন্দের ব্র্যান্ড কোনটি?
ঈশিতা: ব্র্যান্ডের প্রতি আমার কোন ফ্যাসিনেশন নেই। চেহারার শেপের সাথে মানানসই যে কোন একটা ব্র্যান্ড হলেই আমার চলে। তবে তা যেন আমাকে ভালো লাগে এরকম দেখে সানগ্লাস কিনি। 


প্রতিবেদক: অলঙ্কার পরতে পছন্দ করেন কেমন?
ঈশিতা: আমি অনেক বেশি অলঙ্কার পরতে পছন্দ করি না। হালকা চুড়ি বা কানের জন্য সিম্পল টপ পরি।   

প্রতিবেদক: আর ঘড়ি?
ঈশিতা: হ্যাঁ, আমি সব সময় ঘড়ি পরি। লেদার বা স্টিল, ড্রেসের সাথে মানিয়ে দু’ ধরনের-ই পরি। 


প্রতিবেদক: কোন ফ্যাশন আইকনকে কি ফলো করেন?
ঈশিতা: না আমি কোন ফ্যাশন আইকনকে ফলো করি না। এখন কোন ফ্যাশন ট্রেন্ড চলছে, আমাকে তাই ফলো করতে হবে, আমি এমনটাও মনে করি না। এমন কোন টেন্ডেন্সি আমার কখনো ছিলও না। আমার যা ভালো লাগে তাই পরি। আমাকে দেখতে দৃষ্টিকটু লাগে এমন ড্রেস পরি না। 

প্রতিবেদক: কোন ধরণের জুতো পরতে পছন্দ করেন?
ঈশিতা: ফ্ল্যাট বা হিল দু ধরণের জুতোই আমি পরি। যখন যে পোশাকের সঙ্গে যেটা মানায়।


প্রতিবেদক: ঘুরতে যাওয়ার জন্য আপনার পছন্দের জায়গা কোনটা?
ঈশিতা: আমি আমার পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতেই পছন্দ করি। সবাই যদি এক সঙ্গে থাকি তাহলে বাড়ির ছাদেও ভালো লাগে। 

প্রতিবেদক: অবসর সময়ে কি করেন? 
ঈশিতা: বই পড়ি, সিনেমা দেখি, গান শুনি। 


প্রতিবেদক: শখ কি? 
ঈশিতা: গান গাই, নাচি, অভিনয় করি। এগুলো আসলে শখের বসেই করা। তবে আমি যা করি তা প্রফেশনাল জায়গা থেকেই করি।  

প্রতিবেদক: ভবিষ্যতে নিজেকে কোথায় দেখতে চান?
ঈশিতা: আমার ২৯ বছরের ক্যারিয়ারের ভবিষ্যতে আর কোথায় যাবো। যা করছি, তা আরো ভালোভাবে করতে চাই। আমার কাজগুলো আরো দক্ষতার সঙ্গে করে যেতে চাই। সর্বোপরি একজন ভালো মানুষ হিসেবে কাজ করে যেতে চাই, যেন কোন সুন্দর গন্তব্যে পৌঁছতে পারি।  


প্রতিবেদক: প্রিয় মানুষ কে?
ঈশিতা: আমার সবচেয়ে প্রিয় আমার মা।

প্রতিবেদক: কোন রঙের পোশাকের প্রতি দুর্বলতা বেশি? 
ঈশিতা: সব ধরনের রংয়ের পোশাকই আমি পরি। তবে আমাদের যেহেতু গরমের দেশ। তাই হালকা রঙের পোশাক পরতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। 


প্রতিবেদক: ফ্যাশন বিষয়ে আপনার মতামত।
ঈশিতা: ফ্যাশন তো সার্বজনিন। যেটাতে নিজেকে শালীন ও পরিশীলিতভাবে ফুটিয়ে তোলা যায়, নিজেকে প্রকাশ কারা যায়, আমার কাছে তাই নিজস্ব ফ্যাশন। 


প্রতিবেদক: নতুদের জন্য কিছু বলুন। 
ঈশিতা: বিশ্ব এখন হাতের মুঠোয়। কোন ট্রেন্ড কোন দিকে যাচ্ছে, তা এখন চাইলেই সবাই জানতে পারছে। আর এসব কারণে ফ্যাশনের প্রতি মানুষের সচেতনতা অনেক বেড়ে গেছে। কিন্তু ফ্যাশন খুব জরুরি কোন বিষয় নয়। মানুষকে তার কাজ দিয়েই আসলে মূল্যায়িত হয়। ফ্যাশন দিয়ে নয়।

প্রতিবেদক: আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। 
ঈশিতা: আপনাকেও ধন্যবাদ। 

আর/১০:০৪/৩১ মে

ঢালিউড

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে