Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-৩১-২০১৬

বিশ্বে ৪ কোটি ৫৮ লাখ মানুষ আধুনিক দাস

বিশ্বে ৪ কোটি ৫৮ লাখ মানুষ আধুনিক দাস

নয়া দিল্লী, ৩১ মে- বিশ্বে সাড়ে চার কোটিরও বেশি পুরুষ, নারী ও শিশু আধুনিক দাসত্বের শিকার। এর মধ্যে দুই তৃতীয়াংশই এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে। এছাড়া আধুনিক বিশ্ব দাসত্ব সূচকে সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যা ভারতের। তবে আধুনিক দাসদের সংখ্যা এর আগে যা ধারণা করা হয়েছিল এ সংখ্যা তার চেয়ে অনেক বেশি। ওয়াক ফ্রি ফাউন্ডেশন গবেষণা করে এসব তথ্য জানা যায়। মঙ্গলবার প্রকাশিত বৈশ্বিক দাসত্ব সূচক-২০১৬তে এ ব্যাপারে বিস্তারিত প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়েছে।

আধুনিক দাসত্বের প্রতি মনোযোগ আকর্ষণের জন্য ২০১২ সালে অস্ট্রেলীয় ধনকুবের ও সমাজসেবক অ্যান্ড্রু ফরেস্ট এ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। বিশ্বের ১৬৭ দেশে গবেষণা চালিয়ে এ তথ্য পাওয়া পাওয়া গেছে। গবেষণাকালে ৫৩ টি ভাষায় ৪২ হাজার মানুষের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়।

গবেষণায় দেখা গেছে, গত দুই বছর আগের চেয়ে দাসের সংখ্যা ২৮ শতাংশ বেশি। ভারতে সবচেয়ে বেশি লোক দাসত্বের শিকার এবং দেশটিতে আধুনিক দাসের সংখ্যা এক কোটি ৮৩ লাখ ৫০ হাজার। তবে সবচেয়ে বেশি ঘটনা ঘটছে উত্তর কোরিয়ায় (জনসংখ্যার ৪.৩৭ শতাংশ) এবং সেখানে সরকারের পদক্ষেপগুলো খুবই দুর্বল।

আধুনিক দাসত্ব বলতে বঞ্চনামূলক পরিস্থিতির কথা বলা হয়েছে যেখানে কোন ব্যক্তি হুমকি, সহিংসতা, জুলুম, ক্ষমতার অপব্যবহার ও প্রতারণা এড়াতে পারে না। আধুনিক দাসদের অনেকে তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মাছ ধরার নৌকায় গোলামি করছেন, অনেকে গৃহকর্মী হিসেবে বা অনেকে পতিতালয়ে আটকা পড়ে রয়েছেন।

আধুনিক দাসত্বের তালিকায় এশিয়ার পাঁচটি দেশ সবার উপরে রয়েছে। ভারতের পরে চীনে দাসের সংখ্যা ৩৩ লাখ ৯০ হাজার, পাকিস্তানে ২১ লাখ ৩০ হাজার, বাংলাদেশে ১৫ লাখ ৩০ হাজার ও উজবেকিস্তানে ১২ লাখ ৩০ হাজার। জনসংখ্যার অনুপাতে উত্তর কোরিয়ার নিচে উজবেকিস্তানের ৩.৯৭ শতাংশ ও কম্বোডিয়ায় ১.৬৫ শতাংশ আধুনিক দাসত্বের শিকার।

যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া এবং ব্রিটেন, পর্তুগাল ও নরওয়েসহ ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর সরকার এ সমস্যা সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ ও প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে। অপরদিকে ইরান, হংকং ও চীনের মত দেশগুলোর পদক্ষেপ খুবই দুর্বল।

গবেষণায় দেখা গেছে, ২০১৪ সালে বৈশ্বিক দাসত্ব সূচক প্রকাশের পর ক্রোয়েশিয়া, ব্রাজিল ও ফিলিপাইন ইতিবাচক পদক্ষেপ নিয়েছে।

আর/১৭:০৪/৩১ মে

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে