Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-২৯-২০১৬

কন্যাসন্তানদের শিক্ষা ও সুস্থ রুচি দানের আরজি বচ্চনের

কন্যাসন্তানদের শিক্ষা ও সুস্থ রুচি দানের আরজি বচ্চনের

নয়াদিল্লী, ২৯ মে-ছেলেদের পাশাপাশি আদরযত্ন, ভালোবাসা, শিক্ষা ও সুস্থ সংস্কৃতি দিয়ে কন্যাসন্তানদেরও বড় করে তোলা উচিত৷ নরেন্দ্র মোদী সরকারের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে শনিবার ইন্ডিয়া গেটে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এমনই মন্তব্য করেন ‘‘বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও’’ অভিযানের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর অমিতাভ বচ্চন৷

ওই অনুষ্ঠানে ‘এক নয়ি সুবহ (এক নতুন সকাল)’ নামে একটি আলোচনাসভায় অংশগ্রহণ করে অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন ‘‘বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও’’ অভিযানের গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলি শ্রোতাদের সামনে তুলে ধরেন৷ তিনি বলেন, ভারতীয় সংস্কৃতিতে মহিলারা দেবীরূপে পূজিতা হন৷তাই ভুললে চলবে না, মেয়েদের সম্মানদান ভারতীয় সমাজের মজ্জাগত৷ ঘরের মতো বাইরেও মেয়েরা এখন ছেলেদের সমান মর্যাদা অর্জন করেছে৷ মেয়েদের ছেলেদের মতো সমান শিক্ষা,আদর যত্ন ও লালন পালন করে বড় করে তোলা তাই আধুনিক সমাজের কর্তব্য৷ এই চিন্তাধারা সকলের মনে আসা উচিত ও শিশুকন্যাদের সেইভাবেই বড় করে তোলা উচিত, যাতে তারা কোনও কিছু থেকে বঞ্চিত বলে অনুভব না করে৷

বিগ বি-র কথায়, এখনও এদেশে অর্ধেকের বেশি মহিলা সমাজের অনেক সুযোগ-সুবিধা থেকেই বঞ্চিত৷ তাই রক্ষণশীল মানসিকতায় পরিবর্তন আনাটা জরুরি৷ বাইরের কাজের সমস্ত ক্ষেত্রে মেয়েদের সমানভাবে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেওয়া উচিত, তাহলেই দেশের উন্নয়ন ও প্রসার তাড়াতাড়ি হওয়া সম্ভব৷

রাষ্ট্রসংঘের মেয়েসন্তান সুরক্ষা অভিযানেরও  ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডার হিসেবে গুরুদায়িত্ব পালন করছেন বিগ বি৷ বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে সেখানকার পড়ুয়া মেয়েদের সঙ্গে আলাপচারিতা এই কর্মসূচির একটি অঙ্গ৷ এই কর্মসূচিতেই সম্প্রতি একটি স্কুলে পা রাখেন অমিতাভ৷ সেখানে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রী তাঁকে জিজ্ঞাসা করে, তিনি কী করে বিগ-বি হলেন৷ প্রশ্ন শুনেই অমিতাভ মেঝেয় বসে পড়ে ঝটিতি জবাব দেন, কোথায় আমি বিগ? দেখ, আমি কত ছোট! এর পরে তিনি অবশ্য ছাত্রীটিকে তার প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেন৷ বলেন, জীবনে তোমার কাজ তুমি করে যাও৷ তাহলেই তুমি তোমার লক্ষ্যে পৌঁছতে পারবে৷ এই কথা শুনে আর এক ছাত্রী বলে, তার স্বপ্ন নৃত্যশিল্পী হওয়া৷ কিন্তু বাবা-মা এতে রাজি নয়৷ বিগ-বি যেন তার বাবা-মা র কাছে তাকে সহযোগিতা করার আরজি জানান৷তার এই কথা শুনে বাবা-মায়েদের উদ্দেশে অমিতাভের উপদেশ, সন্তানদের কোনও কিছুতেই থামানো উচিত নয়, যতক্ষণ না তারা কোনও ভুল পথে যাচ্ছে৷

আর/১০:৩৪/২৯ মে

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে