Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-২৯-২০১৬

কাকের বন্ধুত্ব

কাকের বন্ধুত্ব

কানুক একটি কাকের নাম। বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরের পথ কানাডার ভ্যাঙ্কুভার হলো কানুকের বাসস্থান। বিদেশি কাক হলেও দেখতে কিন্তু আমাদের দেখা কাকেদের মতোই। কিন্তু বিদেশি কানুক কিছুদিন আগে প্রায় হঠাৎ করেই এক ঝামেলায় জড়িয়ে যায়। শন বার্গম্যান নামের এক অধিবাসী কানুকের উপর বেশ ক্ষ্যাপা। কারণ কানুক পুলিশের কাজে অনধিকার চর্চা করেছে। ভ্যাঙ্কুভার পুলিশকে একাই এক দুপুর নাকানি চুবানি খাইয়েছে কানুক।

গত বৃহস্পতিবার এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করার জন্য ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ দেখতে পায় এক ব্যক্তি হাতে ছুরি আর বন্দুক নিয়ে মানুষকে হুমকি দিচ্ছে। ওই হুমকিদাতা পুলিশের উদ্দেশ্যে কয়েক রাউন্ড গুলিও ছোড়ে। কিন্তু তাতে অবশ্য লাভ হয়নি, কিছুক্ষনের মধ্যেই তাকে গ্রেপ্তার করে ফেলে পুলিশ। আর তখনই ঘটে বিপত্তি। আমাদের কাক কানুক ওই ঘটনার সাক্ষ্য ছুরিটি ঠোটে করে নিয়ে দেয় উড়াল। পুলিশ ওই ছুরি ছাড়া আবার যেতেও পারছে না, কারণ ওই ব্যক্তিকে আইনের সামনে দোষি সাব্যস্ত করতে গেলে প্রমাণ হিসেবে ছুরিটি লাগবে। যদিও অনেক পরিশ্রমের পর শেষমেষ এক পুলিশ সার্জেন্ট কানুকের কাছ থেকে ছুরিটি নিতে সমর্থ্য হন।


পুলিশের সঙ্গে কানুকের এই ফাজলামোর কয়েক মাস আগের ঘটনা। গাছের কোঠরে থাকা বাসা থেকে শিশু অবস্থায় পরে যায় কানুক। তখন বার্গম্যানের সন্তান ওই কাকটিকে সুস্থ করে তোলে। বার্গম্যানের ভাষায়, ‘কাকটি একটি ছোটো টেনিস বলের সমান ছিল এবং বয়স না হওয়ার কারণে উড়তে পারছিল না। কাকটিকে যদি তখনই না আনা হতো তাহলে মনে হয় তাকে বাঁচানো যেত না।’ এরপর ধীরে ধীরে কাকটি সুস্থ হয়ে উঠে এবং একটা সময় উড়তেও শিখে যায়।

কিন্তু উড়তে শিখলে কি হবে, বার্গম্যানের বাড়ি থেকে নড়ে না কানুক। যেখানেই থাকুক না কেন, কিছু সময় পর ঠিকই জায়গা মতো চলে আসে। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে কানুককে মুক্তি দিয়ে দিয়েছিল বার্গম্যানের ছেলে। কিন্তু মুক্তি পাবার পরেও ঘুরে ফিরে ওই বাড়িতেই আসার কারণে একদিন কানুকের পায়ে পরিয়ে দেয়া হয় একটি লাল ব্যান্ড। যেদিন লাল ব্যান্ডটি পরিয়ে দেয়া হয় সেদিন হঠ্যাৎ করেই কানুক কোথায় যেন চলে গিয়েছিল।


বাড়ি ফিরে বার্গম্যান কাকটিকে দেখতে না পেয়ে ভেবেছিলেন এই বুঝি কাকটি চলে গেল। কিন্তু পুরো বাড়িটি ঘুরে আসতেই দেখলেন বাড়ির এক কোনের বেড়ার উপর নির্বিবাদে বসে আছে কানুক। আর বার্গম্যানকে দেখার পরই কাকটি উড়ে এসে তার হাতের উপর বসে। এই প্রথম বার্গম্যানের হাতে কোনো পাখি বা প্রাণী বসলো কোনো ক্ষতি করা ছাড়াই। ‘আমাকে দেখা মাত্রাই কানুক আমার হাতে উপরে এসে বসে। আবার একটু উড়ে গিয়ে পুনরায় ফিরে আসে হাতে।’

আর/১৭:১৪/২৯ মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে