Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-২৯-২০১৬

কার জন্য, কিসের এ নির্বাচন?

কার জন্য, কিসের এ নির্বাচন?

ঢাকা, ২৯ মে- দেশে নির্বাচনের নামে রক্তের হোলিখেলা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান। তাই তিনি প্রশ্নও রেখেছেন- কার জন্য, কিসের এ নির্বাচন?

তিনি বলেছেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশে রক্তগঙ্গা বইছে। হিন্দু ধর্মশাস্ত্র মহাভারতের কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধে যতো রক্তপাত হয়েছিল তার চেয়ে বেশি রক্তপাত এ নির্বাচনে হয়েছে।’

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দল’ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন জেনারেল মাহবুব। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা করে মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘দেশে মানুষ আজ নানাভাবে অত্যাচারিত-নির্যাতিত হচ্ছে। এখানে মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে, সম্পদ লুট হচ্ছে। দেশজুড়ে আজ লুটপাট চলছে। আইনের শাসন অনুপস্থিত। জনগণ অসহায়। এভাবে একটি রাষ্ট্র চলতে পারে না।’

চলমান ইউপি নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দেশে নির্বাচনের নামে আজ রক্তের হোলিখেলা চলছে, রক্তগঙ্গা বইছে। ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এখন পর্যন্ত ১০৯ জনের মতো লোক মারা গেছে। হিন্দু ধর্মশাস্ত্র মহাভারতের কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধে যতো রক্তপাত হয়েছিল তার চেয়ে বেশি রক্তপাত এ নির্বাচনে হয়েছে। আজ দেশবাসীর প্রশ্ন- কার জন্য, কিসের এ নির্বাচন? যেখানে মানুষকে জীবন দিতে হচ্ছে। এর জবাব কে দেবে?’

প্রসঙ্গত, কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধ একটি পৌরাণিক যুদ্ধ মহাভারতে যার বর্ণনা আছে। একই পরিবার উদ্ভূত পাণ্ডব ও কৌরব শিবিরের মধ্যে। এই যুদ্ধের বাণী হলো- ধর্মের জয় ও অধর্মের বিনাশ। পাণ্ডবরা ন্যায়, কর্তব্য ও ধর্মের পক্ষে। অন্যদিকে কৌরবরা অন্যায়, জোর-জবরধস্তি ও অধর্মের পক্ষ। কথিত আছে, খ্রিস্টপূর্ব ৫০০-৬০০ অব্দে বর্তমান ভারতের হরিয়ানায় এই যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছিল, স্থায়ী হয়েছিল মাত্র ১৮ দিন। তবে এ যুদ্ধে ব্যাপক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

দেশে গণতন্ত্র নেই উল্লেখ করে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও মানুষের হারানো অধিকার ফিরে পেতে আমাদেরকে বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের চেতনাকে ধারণ করতে হবে। তার চেতনাকে মনের মধ্যে জাগ্রত করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আন্দোলন করতে হবে। আন্দোলনের মধ্য দিয়েই জনগণের দাবি আদায় করতে হবে।’

‘জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দল’র প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. সুকোমল বড়ুয়া, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, জিনাফ সভাপতি মিয়া মো. আনোয়ার, কৃষক দল নেতা শাহজাহান মিয়া সম্রাট, সাংবিধানিক অধিকার ফোরামের সদস্য সচিব সুরঞ্জন ঘোষ, ঘুরে দাঁড়াও বাংলাদেশ’র সভাপতি কাদের সিদ্দিকী প্রমুখ।

এফ/১৬:২৫/২৯ মে

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে