Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-২৮-২০১৬

আ’লীগ ২১৯, বিএনপি ৪৩ এবং অন্যান্য ১২০

আ’লীগ ২১৯, বিএনপি ৪৩ এবং অন্যান্য ১২০

ঢাকা, ২৮ মে- ভোট কাচুপি, ব্যালট ছিনতাই ও হতাহতের মধ্যদিয়ে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের পঞ্চম ধাপে বিপুল ব্যবধানে এবারেও বিজয়ী হতে চলছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সারাদেশে ৭১৭টি ইউপির মধ্যে আওয়ামী লীগ ২১৯, বিএনপি ৪৩ এবং অন্যান্য ১২০টিতে জয়ী হয়েছে।

আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। এবং ভোটগ্রহণ চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এসময় নানা অনিয়ম, অভিযোগ, ভোটবর্জন, কাচুপি, ব্যালট ছিনায়ের খবর পাওয়া গেছে।

সরাদেশে সহিংসতায় ৯জন নিহত হয়েছে। এরমধ্যে জামালপুরে এক কিশোরসহ চারজন, নোয়াখালীতে এক বৃদ্ধ, চট্টগ্রামে এক সদস্য প্রার্থী এবং কুমিল্লায় এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যুহয়। এতে সারাদেশে অন্তত ৩ শতাধিক লোক নিহত হয়েছে।

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি জানান, কর্ণফুলী থানা এলাকার দুই নম্বর বড়উঠান ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বারপ্রার্থী মো. ইয়াসিন (৩৫) ধারালোঅস্ত্রের আঘাতে নিহত হয়েছেন। পুলিশ বলছে, নির্বাচনী সংঘর্ষে তিনি নিহত হন। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ফকিরনির হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বেলা দেড়টার দিকে তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

এদিকে, নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার রাজগঞ্জ ইউনিয়নের রাজগঞ্জ সিনিয়র মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়ে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থক ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার মধ্যে পড়ে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। ওই কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। আজ বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ওই বৃদ্ধের নাম সৈয়দ আহম্মেদ (৬৫)।

কুমিল্লা সংবাদদাতা জানান, জেলার তিতাস উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নে বিএনপির বিদ্রোহী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মো. কামাল উদ্দিনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আজ বেলা তিনটার দিকে বলরামপুর ইউনিয়নের নাগেরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের বাইরে এ ঘটনা ঘটে। ওই ভোটকেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশের এসআই আবদুল আউয়াল সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহত কামাল উদ্দিনের সমর্থকেরা দাবি করেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মো. নূর নবীর সমর্থকেরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

জামালপুর প্রতিনিধি জানান, জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের কুঠারচর ইবতেদায়ি মাদ্রাসা ভোটকেন্দ্রে আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. শাকিরুজ্জামান রাখাল ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. শাহজাহান মিয়ার সমর্থকদের মধ্যে জাল ভোট দেওয়া নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এ সময় চারজন নিহত হন।

নিহতরা হলেন দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের কুতুবেরচর গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে জিয়াউর রহমান (২৫), একই গ্রামের আজমত আলীর ছেলে নবীরুল ইসলাম (১৬), শেখপাড়া গ্রামের আফজাল শেখের ছেলে মাজেদ আলী (১৫) ও একই গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে নুরুল ইসলাম (৩৫)।

এসপি বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছিল। এ সময় বিদ্রোহী প্রার্থী মো. শাহজাহান মিয়ার সমর্থকেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ভোটকেন্দ্রে হামলা চালায়। এ ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্য, তিন আনসার সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর আটজন আহত হন। তাঁদের মধ্যে দুজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ১০০টি ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়। ওই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণও স্থগিত আছে।
পঞ্চম ধাপের এ ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩২৫৪ জন, সাধারণ সদস্য পদে ২৭ হাজারের বেশি ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ৭ হাজারের বেশি প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪২ জন ইতিমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এরা সবাই আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী।

পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে ১৫টি রাজনৈতিক দলের ১৭২৭ জন এবং স্বতন্ত্র ১৫২২ জন প্রার্থী। দলীয় প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগের সমর্থীত প্রার্থী আছে ৭২৬ ইউপিতে, ৬২৯ ইউপিতে রয়েছে বিএনপির প্রার্থী। জাতীয় পার্টি ১৭৭টি, জাসদ ২১টি, বিকল্পধারা ২টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ১৩টি, ইসলামী আন্দোলন ১২২টি, জেপি ২টি, ইসলামী ফ্রন্ট ১১টি, এলডিপি ৬টি, সিপিবি ৫টি, জেএসডি ১টি, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ৬টি, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট ৭টি এবং অপর একটি দল ১ ইউপিতে প্রার্থী দিয়েছে।

আর/১০:৩৪/২৮ মে

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে