Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 4.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-২৬-২০১৬

‘তনু ধর্ষিত হয়নি তা প্রতিবেদনে বলা হয়নি’

‘তনু ধর্ষিত হয়নি তা প্রতিবেদনে বলা হয়নি’

কুমিল্লা, ২৬ মে- তনুর হত্যাকারীরা দেশ ত্যাগ করতে পারে আশঙ্কা প্রকাশ করে নিহত কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজছাত্রী তনুর মা আনোয়ারা বেগম বলেছেন, তনুর ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসকরা প্রতিবেদন দিতে দেরি করার কারণে যদি তনুর হত্যাকারীরা দেশত্যাগ করে তাহলে এর দায়ভার কে নেবে? হত্যা ও ধর্ষণকারীরা তো এই সুযোগে দেশ ত্যাগ করতে পারে। অপর দিকে তনুর প্রথম ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ডা. শারমিন সুলতানা জানান, তনুকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায় নি মানে সে ধর্ষিত হয়নি এমন কথা তো প্রতিবেদনে বলা হয় নি এবং ধর্ষিত হয়েছে এ কথাও বলা হয় নি। বলা হয়েছে আলামত পাওয়া যায় নি। প্রতিবেদনে আমরা বলেছি মৃত্যু কারণ নির্ণয় করা যায় নি। তার মানে এই নয় যে সে খুন হয় নি।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজছাত্রী সোহাগী জাহান তনু মরদেহের প্রথম ময়নাতদন্তে ধষর্ণের আলামত না পাওয়া এবং দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দিতে ‘ইচ্ছাকৃত’ দেরি করার অভিযোগে তিন চিকিৎসকের নামে লিগ্যাল নোটিস পাঠিয়েছেন তনুর বাবা এয়ার হোসেন। মঙ্গলবার তার পক্ষে চিঠিটি পাঠান বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট সালমা আলী। আইনী এ নোটিশটি পাঠানো হয় কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ মোহসীনুজ্জামান চৌধুরী, ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. কামদা প্রসাদ সাহা ও তনুর প্রথম ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক শারমীন সুলতানা।

মঙ্গলবারই চিঠিটি পাওয়া কথা নিশ্চিত করেছেন ডা. কামদা প্রসাদ সাহা। তিনি জানান, এ ব্যাপারে আইনগত বিষয়ে জেনে জবাব দেওয়া হবে।

অপর দিকে তনু হত্যা মামলা তদন্তে সিআইডির আর কোন অগ্রগতি নেই। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক গাজী মোহাম্মদ ইব্রাহিম ঢাকা থেকে কুমিল্লায় পৌঁচেছেন।

গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাসের পাহাড় হাউস এলাকায় নিজের বাসার কাছে লাশ পাওয়া যায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু। এ ঘটনার ১৫ দিন পর প্রথম ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক শারমীন সুলতানা তার প্রতিবেদনে জানান, তনুকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায় নি এবং মৃত্যুর কারণ নির্নয় করা যায় নি। এরই মধ্যে ৩০ মার্চ আদালতের নির্দেশে তনুর লাশ কবর থেকে তুলে দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত করা হয়। এ সময় গঠন করা হয় একটি ময়নাতদন্ত দল। আদালতের আরেক নির্দেশে তনুর পরনের কাপড় ডিএনএ পরীক্ষার জন্য সিআইডির পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। সে পরীক্ষায় তনুর কাপড়ে তিন জন পুরুষের বীর্য পাওয়া যায়। যার ডিএনএ পূর্ণাঙ্গ প্রোফাইল পাওয়া যায়।

এফ/০৭:২২/২৬মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে