Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-২৫-২০১৬

২০২৫ সালের মধ্যে শিশুশ্রম নিরসন করা হবে

২০২৫ সালের মধ্যে শিশুশ্রম নিরসন করা হবে

ঢাকা, ২৫ মে- ২০২৫ সালের মধ্যে সব ধরনের শিশুশ্রম নিরসন করা হবে বলে জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক। 

মঙ্গলবার রাজধানীতে ‘শিশুশ্রম নিরসনে আমাদের দায়িত্ব’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রথম আলো, আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও), ওয়ার্ল্ড ভিশন, ইউনিসেফ, সেভ দ্য চিলড্রেন এবং মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনসহ বেশ সংগঠন যৌথভাবে এ বৈঠকের আয়োজন করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে দেশ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রম নিরসন হবে। একই সঙ্গে ২০২৫ সালের মধ্যে সব ধরনের শিশুশ্রম নিরসন করা হবে। আমরা চাইলেই এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা এখন সম্ভব’।
 
মুজিবুল হক বলেন, ‘আগে আমরা খাদ্য ও বস্ত্রে স্বয়ংসম্পূর্ণ ছিলাম না। এখন আমাদের খাদ্য-বস্ত্রের অভাব নেই। গত ১৫ বছর আগেই শিশুশ্রম কী তা জানতাম না, শিশুদের জন্য কী ঝুঁকিপূর্ণ কাজ তাও ভাবিনি। অথচ এখন আমরা এসব নিয়ে আলোচনা করছি। তাই অন্যান্য সমস্যার মত শিশুশ্রম নিরসন করা এখন সম্ভব।’

আর এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় শিশুশ্রম নিরসনে যে কাজ করছে, তাদের মধ্যে সমন্বয়ভাবে কাজ করতে হবে বলেও জানান তিনি।
 
তিনি শিশুশ্রম নিরসনে মানসিকতার পরিবর্তন দরকার উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরাই টাকা বাঁচানোর জন্য শিশুকে দিয়ে রাত দিন কাজ করে নিচ্ছি। অনেকেই বাইরে বড় বড় মানবাধিকারের কথা বলেন। অথচ তারাই তাদের বাসায় শিশুদের গৃহশ্রমিক হিসেবে নিয়োগ দেন। টেলিভিশন বা ফ্রিজের জন্য একটি জায়গা নির্দিষ্ট করলেও ওই শিশুটি কোথায় ঘুমাবে, তার কোনো নির্দিষ্ট জায়গা দেন না। তাই আমি তাদের বলি বড় বড় কথা না বলে নিজের ঘর থেকে মানবাধিকার রক্ষার কাজ করুন।’

আর এসব ক্ষেত্রে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য গণমাধ্যমকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।
 
তিনি আরো জানান, দেশের গৃহশ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য গৃহশ্রমিক আইন করা হবে।  গৃহশ্রমিকদের নির্দিষ্ট সময়ে কাজ করার জন্য তাদের কর্মঘণ্টা ও অধিকার নিশ্চিত করতে গৃহশ্রমিক আইন করার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। খুব দ্রুত এই আইন করতে পারবো বলে আশা করছি।
 
মূল বক্তব্যে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব খোন্দকার মোস্তান হোসেন জানান, সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে গত কয়েক বছরে তৃতীয় পর্যায়ে এক লাখ শিশুকে ঝুঁকিপূর্ণ কাজ থেকে সরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। চতুর্থ পর্যায়ের প্রকল্প অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে।
 
বৈঠকে ইউনিসেফের চাইল্ড প্রটেকশন অফিসার জামিল হাসান বলেন, ‘শিশুশ্রম নিরসে সরাসরিভাবে শিশুদের আর্থিক সহায়তা দিতে হবে। যখন তারা অভাবের কারণে কাজ করতে আসবে, তখন তাকে সমপরিমান টাকা দিয়ে স্কুলে পাঠাতে হবে অথবা তাদের বাবা-মা কাজ করতে সক্ষম হলে তাদের কাজ দিতে হবে। এভাবে গ্রামাঞ্চলে গিয়ে এসব শিশুদের রক্ষা করতে।’
 
তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের অনেক আইন আছে তবে বাস্তবায়ন নাই। বর্তমানে প্রাথমিক পর্যায়ে যে স্টাইপেন্ড দেয়া হয়, তা খুবই সামন্য। এর পরিমান আরো বাড়াতে হবে। আমরা মধ্য আয়ের দেশ হতে যাচ্ছি, অথচ খরচ করবো না তা হবে না। আর আর্থিক এসব সমস্যা না মিটাতে পারলে শিশুশ্রম নিরসন সম্ভব হবে না।’
 
এসময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নজরুল ইসলাম খান শিশু নিরসে সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান। 

তিনি বলেন, ‘আমাদের আইনে যেগুলো আছে তা যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করতে পারলে শিশুশ্রম নিরসন করা সম্ভব।’
 
বৈঠকে জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রায় (এসডিজি) তে ২০২৫ সালের মধ্যে দেশ থেকে সব ধরনের শিশুশ্রম নিরসনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের সম্মিলিত উদ্যোগ এবং যথাযথ বাজেট বরাদ্দ করা হলে এসডিজির লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব বলে আলোচকেরা মন্তব্য করেন।
 
প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুমের সঞ্চলনায় আরো বক্তব্য দেন- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নজরুল ইসলাম খান, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের পরিচালক তোফায়েল আহমেদ, আইএলওর দেশীয় পরিচালক শ্রীনিভাস বি রেড্ডি, জাতিসংঘ শিশু তহবিলের (ইউনিসেফ) শিশু সুরক্ষা কর্মকর্তা জামিল হাসান, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের ইন্সপেক্টর জেনারেল সৈয়দ আহম্মদ, সেভ দ্য চিলড্রেনের এদেশীয় উপপরিচালক টিম হোয়েট, ওয়ার্ল্ড ভিশনের ন্যাশনাল ডিরেক্টর ফ্রেড ইউটিভিন প্রমুখ।

আর/১২:৩৪/২৫ মে

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে