Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (30 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-২২-২০১৬

হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার, মুক্তি দাবি

হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার, মুক্তি দাবি

যশোর, ২২ মে- যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও শহর আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমাম হাসান লালকে শুক্রবার রাতে শহরের ষষ্ঠীতলাপাড়া থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি গত ৩১ মার্চ যশোরে ইউপি নির্বাচনে চাঁচড়া কেন্দ্রে এক ফেরিওয়ালা নিহত মামলায় এক নাম্বার আসামি।

এদিকে তাকে ‘ষড়যন্ত্রমূলক মামলায়’ আটকের প্রতিবাদে জেলা আওয়ামী লীগ শনিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে মুক্তির দাবি জানিয়েছে। আর দুপুর ১২টা পর্যন্ত আধাবেলা পরিবহণ ও ইজিবাইক ধর্মঘট পালন করেছে শ্রমিক নেতারা।

যশোর গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক তৌহিদুল ইসলাম জানান, নির্বাচনের দিন গোলাগুলিতে আবদুস সাত্তার বিশে নামের এক ফেরিওয়ালা নিহত হন। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে ফারুক হোসেন বাদী হয়ে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলার আসামি হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা ইমাম হাসান লালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। একইসাথে একই এলাকার জাকির হোসেন ও তরিকুল ইসলাম ওরফে গন্ডার বাবুকে আটক করা হয়।

এদিকে, ইমাম হাসান লালের আটকের প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করেছে যশোর জেলা আওয়ামী লীগ। সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর জহুরুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনের দিন আওয়ামী লীগ নেতা ইমাম হাসান লালসহ আজিজুল আলম মিন্টু ও গোলাম মোস্তফা রামনগর ইউনিয়নের নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। এই নেতারা ওই ইউনিয়নের ভোটগ্রহণ ও গণনা শেষে ফলাফল নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের কার্যালয়ে ফিরেছেন।

আর এ দিন সকাল সোয়া ১১টার দিকে চাঁচড়া ইউনিয়নের ভাতুড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে একজন ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ ও গোলাগুলি হয়। এতে একজন ফেরিওয়ালা নিহত হন। এ ঘটনায় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ইমাম হাসান লালকে আসামি করা হয়েছে। ওইদিন তিনি চাঁচড়া ইউনিয়নেই যাননি। অথচ এই ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় তাকে আটক করা হয়েছে।

মীর জহুরুল ইসলাম দাবি করেন, পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ পর্যায়ের কতিপয় কর্মকর্তা এই ষড়যন্ত্রের পেছনে রয়েছে। ইতোপূর্বেও তাদের নানা কর্মকাণ্ডে যশোরে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। আর এতে ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে আওয়ামী লীগের।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আটকের প্রতিবাদে বাংলাদেশ পরিবহণ সংস্থা শ্রমিক সমিতি শনিবার সকাল থেকে যশোরে সবধরণের যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। পরিবহণ শ্রমিক নেতাকর্মীরা শহরের মণিহার ও খাজুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। দুপুর ১২টা পর্যন্ত এক কর্মসূচি পালিত হয়। একই সময়ে শহরে ইজিবাইক ধর্মঘট পালন করেছেন ইজিবাইক চালক শ্রমিকরা।

আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি পীযুষকান্তি ভট্টাচার্য্য, মুক্তিযোদ্ধা খয়রাত হোসেন, আব্দুল খালেক, দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শেখ রোকেয়া পারভীন ডলি, ইউপি চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম, এহসানুর রহমান লিটু, আজিজুল আলম মিন্টু, পৌর কাউন্সিলর মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তা, হাবিবুর রহমান চাকলাদার মনি, গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

এফ/০৬:৩২/২২মে

যশোর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে