Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-২২-২০১৬

হত্যাকাণ্ড হলেই সরকার ‘ব্লেইম গেম’ শুরু করে

হত্যাকাণ্ড হলেই সরকার ‘ব্লেইম গেম’ শুরু করে

ঢাকা, ২২ মে- সাম্প্রতিক বিভিন্ন হত্যাকাণ্ডের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘হত্যাকাণ্ড হলেই সরকার ‘ব্লেইম গেমে’ শুরু করে। দেশব্যাপী জনপদের পর জনপদে এখন শুধু মরণ যন্ত্রণার আর্তনাদ শোনা যায়। চারিদিকে যেন ঘাতকদের আধিপত্য আর উল্লাস ধ্বনি। দেশে বেশ কিছুদিন ধরে জঙ্গিগোষ্ঠী মরণখেলায় মেতেছে।’ শনিবার (২১ মে) বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

কুষ্টিয়ায় হোমিওপ্যাথিক ডাক্তার মীর সানাউর রহমান হত্যা এবং সঙ্গে থাকা কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাইফুজ্জামানকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানিয়ে গণমাধ্যমে এ বিবৃতি দেন মির্জা ফখরুল। বিবৃতিতে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানান তিনি।

বিবৃতিতে সরকারের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান সরকার ভোটারবিহীন হওয়ায় জনগণের কাছে তাদের জবাবদিহি করতে হয় না। সেজন্য দেশব্যাপী লাশের মিছিল আর রক্তস্রোতে তাদের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশে বেশ কিছুদিন ধরে জঙ্গিগোষ্ঠী মরণখেলায় মেতেছে। কিন্তু এই গোষ্ঠী কারা, কোথায় এদের ঠিকানা, কীভাবে এরা প্রাণনাশের নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে, সে সম্পর্কে কোনো হদিস বের না করে প্রত্যেকটি হত্যাকাণ্ডে সরকার শুধু ‘ব্লেইম গেমেই’ ব্যস্ত থেকেছে। উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টা চালিয়েছে। উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠীর মতো এই ভোটারবিহীন সরকারও ভিন্নমত সহ্য করতে পারে না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সারা দেশে গত কয়েক মাসে বিদেশি হত্যা, হিন্দু মঠের পুরোহিত, ধর্মান্তরিত খ্রিষ্টান, শিয়া সম্প্রদায়ের নেতা, পীরের অনুসারী, দর্জি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র, সাধু, বৌদ্ধভিক্ষু ও মার্কিন সাহায্য সংস্থার কর্মকর্তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব হামলার সঙ্গে সানাউরের হত্যার মিল আছে। সুতরাং কোনো একটি সংগঠিত অশুভ শক্তি, যারা একটি শক্ত জাল বিস্তার করে একের পর এক প্রাণঘাতি পৈশাচিক অপরাধ সংঘটিত করে যাচ্ছে- তা বলাই বাহুল্য।’

তিনি বলেন, ‘সরকার গণতন্ত্রকে ভগ্নস্তূপে পরিণত করতে বিরোধী দল দমন, মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরণ, সংগঠন ও সমাবেশের অধিকারকে যেভাবে দলন করে উদ্যম ও তৎপরতা দেখিয়েছেন তা কারোরই ভুলে যাওয়ার কথা নয়। কিন্তু এই জঙ্গিদের মতো একটি অপশক্তি দমন করতে সরকারের পদক্ষেপ এখনো পর্যন্ত জনগণ দেখতে পায়নি।’

দেশে গণতন্ত্রহীনতার কারণেই ভয়ঙ্কর পশুশক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে- এমন অভিযোগ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘সরকার দেশ পরিচালনায় সহিংস সন্ত্রাসাশ্রয়ী হওয়ার সুযোগেই মানবতাবিরোধী উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠীর তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকারের উচিত ছিল এ ধরনের একটি অপশক্তির মোকাবিলায় দল-মত নির্বিশেষে প্রতিরোধের আহ্বান জানানোর। কিন্তু সরকারের মন্ত্রীরা সেটি না করে স্ববিরোধী বক্তব্য রাখছেন। সরকারের দায়-দায়িত্বহীন অস্পষ্ট ভূমিকায় এই অপশক্তি আরো উৎসাহিত হয়ে উঠেছে।’

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত মীর সানাউর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যবর্গ ও আত্মীয়-স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। একইসঙ্গে অধ্যাপক সাইফুজ্জামানের আশু সুস্থতা কামনা করেন তিনি।

এদিকে, অপর এক বিবৃতিতে কারাগারে বিএনপির ঘনিষ্ঠ সিনিয়র সাংবাদিক শফিক রেহমানের স্বাস্থ্যের চরম অবনতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম। তিনি অবিলম্বে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কারাগার থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান। বিএনপি মহাসচিব ‍হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘চিকিৎসার অভাবে শফিক রেহমানের অপ্রত্যাশিত কিছু হলে সরকারকেই এর দায় বহন করতে হবে।’

এফ/০৬:২৫/২২মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে