Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-২১-২০১৬

বিশেষ নিরাপত্তায় আট পেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা

সরোয়ার আলম


বিশেষ নিরাপত্তায় আট পেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা

ঢাকা, ২১ মে- বিশিষ্ট ব্যক্তি, কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিকসহ আট পেশার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিশেষ নিরাপত্তার আওতায় আনা হচ্ছে। এ জন্য সরকার নানা উদ্যোগ নিয়েছে। কথিত জঙ্গিগোষ্ঠীর হুমকির মধ্যে থাকা এমন ব্যক্তিদের বিশেষ নিরাপত্তা দেবে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো। বাসভবন থেকে কর্মস্থলে আসা-যাওয়া ও কোনো অনুষ্ঠানে অবস্থানকালীন তাঁদের জন্য থাকবে পর্যাপ্ত নিরাপত্তাব্যবস্থা। এসব ব্যক্তির বাসাবাড়ি ও আশপাশ এলাকায় অযথা অবস্থানকারীদের ওপর করা হবে বিশেষ নজরদারি। সন্দেহ হলেই তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ ও তল্লাশি করা হবে। এছাড়া তাঁদের নিরাপত্তা দিতে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারসহ সোর্স নিয়োগের চিন্তাও করা হচ্ছে। পাশাপাশি প্রশাসনে জঙ্গিবাদ সংশ্লিষ্ট বা এমন মনোভাবাপন্ন ব্যক্তিদের অবস্থান ও অনুপ্রবেশ রোধে সচেতনতা তৈরি ও গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় ও গোয়েন্দা সংস্থার

গোপন তথ্য চুরি ও হ্যাকিং রোধে আরো সতর্কতামূলক ব্যবস্থার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসক ও ৬৪ জেলার পুলিশ সুপারদের এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  গত ৩০ এপ্রিল পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের একটি প্রতিবেদন আমলে নিয়ে পুলিশ সদর দপ্তর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ১৬ দফা সুপারিশ করেছে। ওই সুপারিশগুলো আমলে নিতে বিশেষ অনুরোধও করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘বিভিন্ন নামে গড়ে ওঠা জঙ্গিগোষ্ঠীর হুমকিতে থাকা ব্যক্তিদের যথাযথ নিরাপত্তা জোরদার করেছে সরকার। গোয়েন্দা সংস্থাগুলো তাদের তত্ত্বাবধানে নজরদারিও করছে। জঙ্গি দমনে সরকার কঠোর অবস্থানে রয়েছে। পাশাপাশি সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে। যারা ধর্মীয় উগ্রবাদকে পুঁজি করে সন্ত্রাস সৃষ্টি করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে সরকার দেশব্যাপী কর্মসূচি নিয়েছে। পুলিশ সদর দপ্তরের সুপারিশগুলো আমরা আমলে নিয়েছি।’

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরেই দেশের বিভিন্ন স্থানে উগ্রবাদী জঙ্গিগোষ্ঠী বিভিন্ন পেশার মানুষকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। এঁদের মধ্যে আবার কেউ হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন। হত্যাকাণ্ড ও হুমকির ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় সরকার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর চাপও বেড়ে গেছে। বেশির ভাগ ঘটনায় পুলিশ বা র‍্যাব কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারছে না। এ নিয়ে সম্প্রতি সরকারের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠক করেছেন। যাঁরা হুমকি পাচ্ছেন বা যাঁদের ওপর হামলার আশঙ্কা করছেন তাঁদের বিশেষ নিরাপত্তা দিতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। নিরাপত্তার বিষয়ে স্পেশাল ব্রাঞ্চের একটি প্রতিবেদন আমলে নিয়ে পুলিশ সদর দপ্তর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে ১৬ দফা সুপারিশ করে। পুলিশ সদর দপ্তরের প্রতিবেদনটি গুরুত্বসহ আমলে নিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ইতিমধ্যে দেশের সব জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারদের কাছে নির্দেশনা গেছে। বিশিষ্ট ব্যক্তি, কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিকসহ আট পেশার ব্যক্তিকে বিশেষ নিরাপত্তা দিতে বলা হয়েছে।

সূত্র জানায়, পুলিশ সদর দপ্তরের প্রতিবেদনে জঙ্গি হামলা বা টার্গেট কিলিং বন্ধে কিছু সুপারিশ করা হয়। এতে বলা হয়, তথ্য সংগ্রহে সাইবার ইন্টিলিজেন্সকে গুরুত্ব দিয়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের পাশাপাশি এজেন্ট ও সোর্স নিয়োগসহ প্রশাসনে জঙ্গিবাদসংশ্লিষ্ট মনোভাবাপন্ন ব্যক্তিদের অবস্থান ও অনুপ্রবেশে সচেতনতা তৈরি ও গুরুত্বপূর্ণ  মন্ত্রণালয় ও গোয়েন্দা সংস্থার গোপন তথ্য চুরি ও হ্যাকিং রোধে সর্বোচ্চ সতর্কতা নিশ্চিত করতে হবে। সুপারিশে আরো বলা হয়েছে, দেশের স্থিতিশীল পরিস্থিতি বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সতর্কভাবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি, সর্বজন গ্রহণযোগ্য আলেম-ওলামাসহ বিভিন্ন ধর্মীয় নেতার মাধ্যমে ধর্মের বিধিবিধানের সঠিক ব্যাখ্যা, করণীয় ও বর্জনীয় বিষয়গুলো ব্যাপক প্রচারণায় আনার উদ্যোগ নিতে হবে। জঙ্গিবাদ দমনে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে মসজিদের ইমামদের মাধ্যমে জুমার নামাজে খুতবার আগে বক্তব্য দিতে হবে। মাদ্রাসা ও ধর্মীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবাদের কুফল-সংক্রান্ত পাঠদান চালু করা, মিডিয়া, সামাজিক সংগঠন ও বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে জঙ্গিবাদবিরোধী সচেতনতা বৃদ্ধি, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে কথিত প্রগতিশীল, মুক্তমনা ও সুধী নামধারী ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যমূলকভাবে ধর্ম ও ধর্মীয় নেতাদের বিরুদ্ধে অশালীন, করুচিপূর্ণ মন্তব্য, ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ, ধর্ম ও দেশের প্রচলিত আইনবিরোধী কর্মকাণ্ড থেকে বিরত রাখতে হবে। প্রয়োজনে এসব লোকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থাও নিতে হবে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে উগ্রপন্থীদের ধর্মীয় অপপ্রচার রোধে সার্বক্ষণিক  মনিটরিংয়ের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া, মহানগরে অবস্থানরত ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রেখে সন্দেহজনক ব্যক্তিদের তথ্যাদি যাচাই-বাছাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া ও হামলার শিকার হওয়ার সম্ভাব্য ব্যক্তির তালিকা থানায় সংরক্ষণ করে তাদের নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া, জঙ্গি কর্মকাণ্ডের মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করা এবং পলাতক ও জড়িত জঙ্গি সদস্যদের গ্রেপ্তার অভিযান পরিচালনা, জঙ্গিদের আর্থিক সহায়তা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি ও রাজনৈতিক দল ও সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া, প্রশিক্ষিত টিমের সাহায্যে অপরাধীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা, জঙ্গিদের কারাগারে আনা-নেওয়ার পথে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা জোরদার, কারাগারে আটক জঙ্গিদের সঙ্গে দেখা করতে আসা ব্যক্তিদের তালিকা সংরক্ষণসহ পরবর্তী সময়ে তাদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণে রাখা, মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ  এলাকা, সড়কসহ বিভিন্ন সোসাইটি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করে মনিটরিংয়ের মাধ্যমে নিরাপত্তা জোরদার করতে বলা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তি, সাংবাদিকসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের হত্যার হুমকি দিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম, জেএমবিসহ একাধিক জঙ্গিগোষ্ঠী। ইতিমধ্যে এসব জঙ্গিগোষ্ঠীর টার্গেট কিলিংয়ের শিকার হয়েছেন ৯ জন ব্লগার, চারজন অধ্যাপক, পুলিশ, দুজন বিদেশি নাগরিকসহ ৩৭ জন নানা মত ও পথের বিশ্বাসী ব্যক্তিত্ব। এ ছাড়া এখনো জঙ্গিগোষ্ঠীর হত্যার হুমকির মুখে আছে অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। এভাবে জঙ্গিগোষ্ঠী দেশের সামগ্রিক উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করে দেশে-বিদেশে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করছে। আর যাতে কেউ হত্যাকাণ্ডের শিকার না হয় সেদিকে বিশেষ নজর দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘পুলিশ সদর দপ্তরের সুপারিশগুলো আমরা আমলে নিয়েছে।’

একই কথা বলেছেন কয়েকজন পুলিশ সুপার। তাঁরা বলেন, আট পেশার লোকদের বিশেষ নিরাপত্তা দিতে সরকার বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে। ইতিমধ্যে পুলিশ, র‍্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা কাজ শুরু করে দিয়েছেন।

এফ/১৬:০৯/২১মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে