Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-১৫-২০১৬

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সুখবর!

দেব দুলাল গুহ


ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সুখবর!

রক্তনালির রোগে যেসব ডায়াবেটিক রোগী শরীরের অঙ্গ হারিয়েছেন, তাঁদের জন্য আশার হাতছানি দিচ্ছেন গবেষকেরা। শরীরে প্রবেশযোগ্য নতুন একধরনের সঞ্জীবনী জেলির মতো তরল আবিষ্কৃত হয়েছে, যা রক্তনালি-সংক্রান্ত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত ইঁদুরের শরীরে নতুন রক্তনালি সৃষ্টি এবং অঙ্গের ভেতর দিয়ে পুনরায় রক্ত চলাচল স্বাভাবিক করতে পারে। গবেষকদের দাবি, কয়েক বছরের মধ্যেই এটি মানবদেহে পরীক্ষা করে দেখার উপযোগী হবে।

পেরিফেরাল ভাসকুলার ডিজিজ হলো এমন এক ব্যয়বহুল ধ্বংসাত্মক রোগ, যা লাখ লাখ মানুষকে আক্রান্ত করছে এবং যার কোনো দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসাপদ্ধতি নেই। ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে এই রোগ আরও ভয়াবহ। ২৫ শতাংশ ডায়াবেটিস রোগীকে এ রোগের কারণে অঙ্গহানির শিকার হতে হয়। যুক্তরাষ্ট্রের অস্টিনে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক অ্যারন বেকার সঞ্জীবনী জেল তৈরির পেছনের এই গবেষক দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন। 

তাঁদের সাম্প্রতিক গবেষণার ফলাফল জানিয়েছে, তাঁদের উদ্ভাবিত রিজেনারেটিভ জেল, আক্রান্ত অঙ্গের রক্তনালিতে ৮৫ শতাংশ ক্ষেত্রে রক্তের স্বাভাবিক প্রবাহ নিশ্চিত করেছে। অ্যারন জানান, এ ধরনের রোগের ক্ষেত্রে চিকিৎসাবিজ্ঞানে বর্তমানে ব্যবহৃত বিভিন্ন পদ্ধতি আসলে তেমন কোনো কাজে আসে না। তাই তারা এমন এক থেরাপি উদ্ভাবন করছেন, যার ফলে প্রোটিনভিত্তিক ‘গ্রোথ ফ্যাক্টর’ কাজে লাগিয়ে নতুন রক্তনালি তৈরি করা হবে। মানবদেহের নিজস্ব পুনরুৎপাদন পদ্ধতি ব্যবহার করে আক্রান্ত রক্তনালিকে নতুন সৃষ্ট রক্তনালি দিয়ে প্রতিস্থাপন করাই এই উদ্ভাবনের মূল তত্ত্ব বলে জানিয়েছেন অ্যারন।

কিন্তু এই উদ্ভাবন মানুষের শরীরে এখনো আশানুরূপ কাজ করেনি। এর পেছনের কারণ হিসেবে অ্যারন দায়ী করেছেন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত শরীরের এমন আরেকটি প্রোটিনের হারিয়ে যাওয়াকে, যেটি ছাড়া এই ‘গ্রোথ ফ্যাক্টর’ কাজ করে না। এই প্রোটিনটির নাম ‘সিন্ডেকান-৪’, যা রক্তনালির কোষের গায়ে থাকে এবং কোষের সংকেত আদান-প্রদানের কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে বলে মনে করা হয়। 

সাম্প্রতিক পরীক্ষণে দেখা গেছে, এই প্রোটিনটির সঙ্গে মিলিতভাবে গ্রোথ ফ্যাক্টরটি বেশি ভালো কাজ করে। এমনই বিভিন্ন কারণে অ্যারন এবং তাঁর দল নতুন এই পুনরুৎপাদনমূলক থেরাপি নিয়ে খুব আশাবাদী। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগ ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য তিন বছর মেয়াদে ২৭ লাখ মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

আর/১৮:০৪/১৫ মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে