Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.0/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-১৫-২০১৬

রডের বদলে বাঁশ: তদন্তে বুয়েট প্রতিনিধি দল

রডের বদলে বাঁশ: তদন্তে বুয়েট প্রতিনিধি দল

চুয়াডাঙ্গা, ১৫ মে- চুয়াডাঙ্গার দর্শনায় উদ্ভিদ সংগ নিরোধের নিমার্ণাধীন ভবনে রডের বদলে বাঁশ ব্যবহার করায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে বুয়েটের একটি প্রতিনিধি দল।

দামুড়হুদা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুফি রফিকুজ্জামান জানান, শনিবার বুয়েটের পরিকল্পনা বিভাগের পরিচালক প্রতীপ কুমার মণ্ডলের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের প্রতিনিধি দলটি ভবনের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন।

“এছাড়া তারা নিজেদের মধ্যে গোপন বৈঠক করেন। পরে তারা স্ক্যান করবেন বলেও জানান।”

কৃষি কর্মকর্তা বলেন, বুয়েটের প্রতিনিধি দলটি সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে চায়নি।

“তারা পরীক্ষার-নিরীক্ষার পর প্রকৃত অবস্থা নিশ্চিত হয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলবেন।”

এ সময় সেখানে বুয়েটের স্থাপত্য অধিদপ্তরের শিক্ষক আহম্মেদ বশির উদ্দিন ও শিক্ষক আবুল বাসার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিপ্তরের নির্বাহী প্রকোশলী মাহাবুবুর রহমান, অধিদপ্তরের ঢাকার খামার বাড়ীর প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আশরাফুল ইসলাম, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোস্তাফিজুর রহমান, গণপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মাসুম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন বলে কৃষি কর্মকর্তা সুফি রফিকুজ্জামান জানান।

দর্শনা পৌরসভার পাশে ৩ হাজার ৭৫০ বর্গফুট আয়তনের আধুনিক মানের ল্যাবরেটরি ও অফিস ভবন নির্মাণকাজ শুরু হয় গত বছরের ১ ডিসেম্বর। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ফাইটো স্যানিটারি ক্যাপাসিটি শক্তিশালীকরণ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ২ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ভবনটি। ইতোমধ্যেই এর প্রায় ৭০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।

গত ৬ এপ্রিল নির্মাণকাজে লোহার পরিবর্তে বাঁশ ব্যবহারের অভিযোগ তোলে এলাকাবাসী। এরপর কাজ বন্ধ করে ঘটনা তদন্তে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদুর রহমানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি করে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুসের কাছে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্মাণাধীন ওই ভবনের ঢালাইয়ে রড না দিয়ে বাঁশের ফালি এবং খোয়ার পরিবর্তে পরিত্যক্ত সুরকিসহ নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করা হয়েছে।

ভবনটি নির্মাণ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ঢাকার ফার্মগেটের জয় ইন্টারন্যাশনাল।

এ ঘটনায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ঢাকার সিনিয়র মনিটরিং ইভালিউশন অফিসার মেরিনা জেবুন্নাহার দামুড়হুদা মডেল থানায় তিনজনকে আসামি দেখিয়ে মামলা করেন।

তিন আসামি হলেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জয় কনস্ট্রাকশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনি সিং, ইঞ্জিনিয়ারিং কনসোর্টিয়াম লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুস সাত্তার ও প্রকল্প বিশেষজ্ঞ আইয়ুব হোসেন।

তাদের মধ্যে মনি সিং আটক রয়েছেন।

আর/১২:২৪/১৫ মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে