Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-১৩-২০১৬

৩৫-এ বদলে যাওয়া সানি লিওনের জীবন

৩৫-এ বদলে যাওয়া সানি লিওনের জীবন

মুম্বাই, ১৩ মে- ইন্দো-কানাডিয়ান বংশদ্ভুত ভারতের শোবিজ অঙ্গনে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বিতর্কিত এবং একই সঙ্গে আলোচিত অভিনেত্রী সানি লিওন। আলোচনা সমালোচনা তার পিছু না ছাড়লেও তিনি ঠিকই বলিউডে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার দোরগোড়ায়। পর্নো ইন্ডাস্ট্রি ছেড়ে বলিউডে আসার পর মেইনস্ট্রিম সিনেমায় তাকে কেউ খুব একটা পাত্তা না দিলেও বর্তমানে তিনি ঠিকই বলিউডের প্রথম শ্রেণির তারকাদের সঙ্গে অভিনয়ের পরিবেশ তৈরি করেছেন! তুমুল আলোচনা সমালোচনা সহ্য করেও বলিউডে থেকে যাওয়ার স্বপ্নে বিভোর এই অভিনেত্রী আজ পা রাখলেন ৩৫ বছরে! 

হ্যাঁ। ৩৫ বছরে পা রাখলেন ইন্দো-কানাডিয়ান অভিনেত্রী সানি লিওন। ১৯৮১ সালের ১৩ মে কানাডার অন্তারিওতে জন্ম গ্রহণ করেন সানি লিওন। যদিও তার নাম কারেনজিৎ কৌর বহরা। পরবর্তীতে পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে প্রবেশের প্রাক্কালে নাম পরিবর্তন করেন তিনি।ভিনদেশে জন্ম আর বেড়ে উঠলেও সানি লিওনের বাবা মা ছিল শিখ পাঞ্জাবী। তার বাবা তিব্বতে জন্ম নিলেও বেড়ে উঠেছেন দিল্লীতে, আর মায়ের জন্ম শহর হিমাচল প্রদেশে। যদিও মা ২০০৮ সালে মৃত্যুবরণ করেন।

২০০১ থেকে ২০০৩ সালের মধ্যে পর্নো ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে জড়িয়ে যান সানি লিওন। এর আগে তিনি জার্মান বেকারি এবং টেক্স এন্ড রিটায়ার্টমেন্ট ফার্মে কাজ করতেন। এরপর ধীরে ধীরে পর্নো হাউজের সঙ্গে জড়িয়ে পরেন। কাজ করেন পেন্থহাউজ-এর সঙ্গে। এরজন্য ২০১৩ সালে তার নাম উঠে ‘পেন্থহাউজ পেট অব দ্য ইয়ার’-এ। এসবের মোহ আর ছেড়ে যেতে পারেননি সানি। জড়িয়ে পড়েন মেইনস্ট্রিম পর্নো ইন্ডাস্ট্রির সাথে। যার ফলশ্রুতিতে ২০১০ সালে তিনি বিশ্ব সেরা ১২ জন টপ পর্নো স্টারদের তালিকায় শীর্ষস্থানটি অর্জন করেন তিনি। 

কিন্তু এরপরেই আসলে সানির জীবনে ভিন্ন গল্পের হাতছানি! ২০১১ সালে তিনি সুযোগ পান ভারতীয় জনপ্রিয় টিভি রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস’-এর সিজন-৫-এ। আর এখানে অংশ নিয়েই জীবনের গল্প বদলে যায় তার। এই রিয়েলিটি শোয়ের মাধ্যমেই সানি লিওন তার জীবন থেকে ‘পর্নোস্টার’ শব্দটি অস্বীকার করেন, মানে সেখানে তিনি বলেন যে গত ১০ বছর ধরে তিনি মডেল ও টিভি তারকা হিসেবে পরিচিত হয়ে আসছেন। পর্নোস্টার শব্দটি নিজের নামের থেকে ঝেড়ে ফেলার পর ‘বিগ বস’-এর আসর থেকেই ভারতজুড়ে সানি লিওনের ব্যাপক ফলোয়ার তৈরি হয়। অসংখ্য ভক্ত অনুরাগীদের দেখা যায়। যদিও পর্নোস্টার সানিকে ‘বিগ বস’-এর আসরে জায়গা দেয়ায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে ‘কালার টিভি’র বিরুদ্ধে মামলা হয়।

এর পরের বছরেই সানি লিওন প্রথমবারের মত অভিনয় করেন বলিউডের সিনেমায়। জিসম-২ সিনেমায় অভিনয় করে দারুন শুরু করেন সানি। এরপর বেশকিছু সিনেমায় ‘আইটেম সং’-এও নাচতে দেখা গেছে তাকে। রাগিনী এমএমএস ২, এক পেহলি লীলা, কুচ কুচ লোচা হ্যায়, মাস্তিজাদেসহ সদ্য মুক্তি পাওয়া ছবি ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড। যদিও এরমধ্যে এখনো কোনো ভারতীয় প্রথম সারির অভিনেতার সঙ্গে দেখা যায়নি তাকে। তবে তিনি আশাবাদী, একদিন তার নামের পাশে ‘পর্নোস্টার’ শব্দটি প্রথমশ্রেনির অভিনেতা অভিনেত্রীদের কাছে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না। যেহেতু অতীতের কর্মের জন্য তিনি মোটেও দুঃখবোধ করেন না। 

চলতি বছরে একটি টিভি ইন্টারভিউতে সানিকে  জিজ্ঞেস করা হয় একটি কুৎসিততম প্রশ্ন। তাকে বলা হয়, ‘অতীতের পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করা নিয়ে দুঃখ বোধ করেন কিনা! আর এরজন্য ক্ষমা চাইবেন কিনা?’ এমন প্রশ্নের উত্তরে সানি বলেছিলেন, না। তিনি মোটেও অতীতের কাজের জন্য দুঃখবোধ করেন না। সাক্ষাৎকারে সানি তার অতীত নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেন। বলেন ভারতে বেশির ভাগ মানুষজন তাকে ভুল বুঝছে। আর অতীতে পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছেন বলে মোটেও বেদনা কিংবা হতাশা অনুভব করেন না। কোনো আফসোস নেই তার নিজের অতীত জীবন নিয়ে। এমনকি সাক্ষাৎকারে সানি লিওন এও বলেছিলেন যে, যদি আবার আমার পুনর্জন্ম ঘটে, তাহলেও আমি সানি লিওন হয়েই জন্ম নিতে চাই।  কারণ, আমি সত্যিই আমার নিজেকে খু্ব ভালোবাসি।

সানি লিওনের এমন অসাধারণ উত্তরে সমর্থন জানিয়েছিল পুরো বলিউড। আমির খান, শাহরুখ খান থেকে শুরু করে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, দীপিকা পাডুকোন এবং আনুশকা শর্মা সানির কথায় আবেগাপ্লুত হয়ে গিয়েছিল। আর এর পরেই এবার প্রথমবার বলিউড কিং শাহরুখের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা অর্জন করলেন সানি লিওন। শাহরুখের আসন্ন সিনেমা ‘রইস’-এ একটি আইটেম সং-এ দেখা যাবে তাকে। আর এমন সুযোগকে সানি লিওন বলিউডে শক্ত ভিত হিসেবে মনে করছেন! 

বলিউড

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে