Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-১৩-২০১৬

কে এই মুস্তাফিজ?

কে এই মুস্তাফিজ?

ঢাকা, ১৩ মে- বর্তমান সময়ে ক্রিকেট বিশ্বে সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটার কে? উত্তারটা এক কথায় উঠে আসবে মুস্তাফিজ। হ্যাঁ বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেস বোলার মুস্তাফিজুর রহমান।

বর্তমান সময়ে সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটার তিনি। অথচ এক বছর আগেও মুস্তাফিজের পরিচয় ছিলো নিছক অজপাড়াগাঁয়ের এক সাধারণ ঘরের ছেলে। আর এই এক বছরের মধ্যেই সেই ছেলেটির আলোয় আলোকিত হয়েছে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। বর্তমান সময়ে ক্রিকেটের সেরা সম্পদও এই বিস্ময় বালক। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের মাত্র এক বছরেই পৌঁছে গেছেন শিকড় থেকে শিখরে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর থেকেই নিজের নামের পাশে যুক্ত করছেন একের পর এক রেকর্ড। ২০১৫ সালের ২৪ এপ্রিল পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পদচারণা শুরু হয় এ বিস্ময় বালকের।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পাশাপাশি রাজত্ব করে বেড়াচ্ছেন বিশ্বের বিভিন্ন ঘরোয়া লীগ গুলোতে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সব থেকে জমজমাট আসর আইপিএলের তো সেরা বোলারের খেতাব পেয়েই গেছেন। এছাড়াও ডাক পেয়েছেন বিগ ব্যাশ, কাউন্টি ক্রিকেট। এর আগে ডাক পেয়েছেন পাকিস্তান সুপার লীগে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক বিস্ময় বালক মুস্তাফিজের সম্পর্কে:

মুস্তাফিজ সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার তারালি ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া গ্রামের আলহাজ্ব আবুল কাশেম গাজী। চার ভাই ও দুই বোনের সংসারে মুস্তাফিজ কনিষ্ঠ।

ব্যক্তিগত তথ্য:
নাম: মুস্তাফিজুর রহমান

জন্ম: ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৯৫

শিক্ষা: জিলানী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

জেলা: সাতক্ষীরা

উচ্চতা: ৫ ফুট ১১ ইঞ্চি (১.৮০ মিটার)

যেখানে খেলছেন:
বাংলাদেশ জাতীয় দল

২০১৪-বর্তমান: খুলনা বিভাগ।

২০১৬-বর্তমান: মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব।

২০১৫-বর্তমান: ঢাকা ডায়নামাইটস।

২০১৬-বর্তমান: লাহোর কালান্দার্স।

২০১৬-বর্তমান: সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ

২০১৬-বর্তমান: সাসেক্স

এর আগে তিনি সাতক্ষীরা জেলার অনুর্ধ্ব-১৬, ১৮ ও ১৯ দলের হয়ে খেলেছেন।

ব্যাটিংয়ের ধরণ: বামহাতি ব্যাটসম্যান।

বোলিংয়ের ধরণ: বামহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার।

পরিবার:
পিতা: আবুল কাসেম গাজী।

মাতা: মাহফুজা খাতুন।

বড় ভাই: মাহফুজুর রহমান।

মেজ ভাই: জাকির হোসেন।

সেজো ভাই: মোখলেছুর রহমান পল্টু।

ক্রিকেট জগতে মুস্তাফিজের আগমের পিছনে সবচেয়ে বড় অবদান তার সেজ ভাই মোখলেসুর রহমানের। ক্রিকেট পরিবারেই জন্ম হয়েছিলো মুস্তাফিজের। এক সময় বড় ভাই এবং মেজ ভাইও ক্রিকেট খেলতেন। আর সেজ ভাই মোখলেসুর রহমান এখনো খেলেন।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে মুস্তাফিজ:
টি-টোয়েন্টি: টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মুস্তাফিজের অভিষেক হয় পাকিস্তানের বিপক্ষে। ২০১৫ সালের ২৪ এপ্রিল মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম বল হাতে নামেন মুস্তাফিজ। তার অভিষেক ম্যাচে রেকর্ডের জন্ম দেন টাইগাররা। ওই ম্যাচে বাংলাদেশ দল প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের বিপক্ষে ৭ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে জয়লাভ করে।

ওয়ান ডে (ওডিআই) অভিষেক: মুস্তাফিজের একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে ভারত বিরুদ্ধে। গত বছরের ১৮ জুন। অভিষেক ম্যাচেই তিনি ৫ উইকেট লাভ করেন এবং ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন। তার পরে ২১ জুনেও ভারতের বিপক্ষে ৪৩ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা হন। জীবনের প্রথম দুই ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে তিনি বিশ্বরেকর্ড গড়েন৷ ব্রায়ান ভিটোরি’র পর দ্বিতীয় বোলার হিসেবে প্রথম দুইটি ওডিআইয়ে পাঁচ-উইকেট লাভের বিরল কীর্তিগাথা রচনা করেন মুস্তাফিজুর।

মুস্তাফিজুর তার প্রথম দুইটি ওডিআইয়ে ৫/৫০ ও ৬/৪৩ লাভ করেন। তার এ ক্রীড়ানৈপুণ্যে ওডিআইয়ের ইতিহাসেব যেকোন বোলারের তুলনায় সেরা। তার এ অসম্ভব বোলিংয়ের ফলে ২০১১ সালে জিম্বাবুয়ের ব্রায়ান ভিটোরি’র বাংলাদেশের বিপক্ষে ৫/৩০ ও ৫/২০ ম্লান হয়ে যায়।

ভারতকে তিনি তৃতীয়বার ২০০ বা তার নিচে রান তুলতে বাধ্য করান। এর ফলে বাংলাদেশ পঞ্চমবারের মতো ভারতের বিপক্ষে জয় পায়। এ জয়ে বাংলাদেশ আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ে ৯৩ পয়েন্ট নিয়ে ৭ম স্থানে উত্তরণ ঘটায়। দ্বিতীয় ওডিআইয়ে মুস্তাফিজুরের ৬/৪৩ বোলিং পরিসংখ্যান বাংলাদেশী বোলারদের মধ্যে তৃতীয় সেরা। তার পূর্বে মাশরাফি বিন মর্তুজা ৬/২৬ ( কেনিয়া, ২০০৬) ও রুবেল হোসেন ৬/২৬ ( নিউজিল্যান্ড, ২০১৩) রয়েছেন।

টেস্ট অভিষেক: ২০১৫ সালের ২১ জুলাই দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় এ কাটার মাস্টারের।
টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অভিষেক হওয়া মুস্তাফিজ ১৩ ম্যাচ খেলে ৩০৭ রান খরচে তুলে নিয়েছেন ২২ উইকেট। সর্বোচ্চ ইনিংস ২২/৫ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ইকোনোমি ৫.৯৮।

৯টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে পেয়েছেন ২৬ উইকেট। ৪৫২ বল করে ৪.২৬ ইকোনোমিতে ৩২১ রান দেন। ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ৪৩/৬।

এছাড়াও মাত্র ২টি টেস্ট খেলেন এক বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে। দ.আফ্রিকার বিপক্ষে খেলা এই ‍দুই টেস্টে ২.৫৫ ইকোনোমিতে তুলে নেন ৪ উইকেট।

বর্তমানে মুস্তাফিজ আইপিএল মাতাচ্ছেন। আইপিএল এখন পর্যন্ত ১০ ম্যাচ খেলে ৬.১৮ ইকোনোমিতে তুলে নেন ১৩ উইকেট। এবং এবারের আইপিএলে সবচেয়ে সফল বোলারও তিনি।

আর/১২:১৪/১৩ মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে