Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 5.0/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-১২-২০১৬

কর্তাদের শয্যাসঙ্গী না হলে দলে চান্স নাই!

কর্তাদের শয্যাসঙ্গী না হলে দলে চান্স নাই!

নয়া দিল্লী, ১২ মে- ভারতের নারী ফুটবলের এই হাল! এখানে শুধু প্রতিভা থাকলেই হয় না, জাতীয় দলে জায়গা পেতে হলে কর্মকর্তাদের শয্যাসঙ্গিনীও হতে হয়।

টিম ম্যানেজমেন্টের লোকেরা তাদের যৌন লালসা চরিতার্থ করতে এই সুযোগটি বরাবরই কাজে লাগায়। কিন্তু ভয়ে কোনও নারী খেলোয়াড় মুখ খোলেন না।

এমনই অভিযোগ তুলেছেন ভারতীয় দলের খোদ সাবেক অধিনায়ক সোনা চৌধুরী।  সম্প্রতি তার ‘গেম ইন গেম’ বইটিতে এমন অভিযোগ করেছেন। ভারতীয় নারী দলের এই অন্ধকার দিকটি তুলে ধরে দেশজুড়ে আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন তিনি।

বইটিতে সোনা লিখেছেন, বিদেশ সফরের সময় কোচ ও সচিব তাদের বিছানা প্লেয়ারদের ঘরেই রাখতে বলে। তারপর প্রতিদিন কোনও না কোনও নারী খেলোয়াড়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় তারা। তা না হলে জোটে না দলে খেলার সুযোগ। অনেকেই এর বিরুদ্ধে সরব হতে গিয়ে দল থেকেই বিতারিত হয়েছেন।

সোনা চৌধুরীর দাবি, শুধু জাতীয় দলেই নয়, রাজ্য পর্যায়েও এসব নোংরামি হয়। রাজি না হলে রাজনীতি করে টিম থেকেই বাদ দেয়া হয়।

নব্বইয়ের দশকের মাঝামাঝি ভারতীয় নারী ফুটবলে তারকা খেলোয়াড় ছিলেন সোনা চৌধুরী। ১৯৯৫ সালে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার এক বছরের মধ্যেই তিনি অধিনায়ক নির্বাচিত হন। পায়ে চোটের কারণে ১৯৯৮ সালেই শেষ হয়ে যায় ক্যারিয়ার।

আর/১২:১৪/১২ মে

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে