Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-১০-২০১৬

অস্ট্রেলিয়ার ছয় বোন চম্পার গল্প

অস্ট্রেলিয়ার ছয় বোন চম্পার গল্প

সিডনি, ১০ মে- সাত ভাই চম্পার গল্প মনে আছে তো! সেই যে এক রানীর ঘরে একে একে সাত ছেলে জন্ম নিল। কিন্তু হিংসুটে সতীনরা তাদের মাটি চাপা দিয়ে রাখলেন। কিন্তু ভাগ্যগুণে বেঁচে গেল তাদেরএকমাত্র বোন চম্পা। সাত ভাই চম্পার এই অভিনব গল্প নিয়ে ষাটের দশকে চলচ্চিত্রও নির্মিত হয়েছে। বাংলাদেশের অন্যতম ব্যবসাসফল ছবি এটি। এগুলো তো রূপকথা আর সিনেমার গল্প। বাস্তবে কখনো কোনো মানুষের ঘরে আটটি সন্তানের জন্ম হওয়া কি সম্ভব? অবশ্যই সম্ভব না। জানি, এ কথা বললে কেউ বিশ্বাসও করবেন না। তবে আটটি না হলেও একসঙ্গে পাঁচ পাঁচটি সন্তান হওয়ার ঘটনা কিন্তু সত্যি। এবং এরা দিব্যি একসঙ্গে বেড়ে ওঠছে। যদিও এটি একটি ব্যতিক্রমী ঘটনা।

গত জানুয়ারি একসঙ্গে পাঁচ সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার গর্বিত মা কিম টুসি। তারা সবাই বেঁচে আছে এবং সুস্থ স্বাভাবিক বেড়ে ওঠছে। এদের একজন ছেলে, নাম কিথ। বাকি চারজনই মেয়ে। এদের নাম আলি, পেনেলোপ, টিফানি ও বিট্রেক্স। কিম টুসির এর আগের সংসারে নয় মাসের আরো একটি ছেলে আছে। তার স্বামী ভাঘুন টুসির আগের বৌয়ের ঘরের আছে ছোট ছোট দুটি মেয়ে। সবমিলিয়ে সাতটি ছেলেমেয়ের মা টুসি। এদেরকে আপনি ছয় বোন চম্পা বলবেন না তো, কি বলবেন? অবশ্য এদেরকে ছয় বোন চম্পা বললেই বোধহয় অধিক যুক্তিসঙ্গত হয়।

একসঙ্গে পাঁচ শিশুর দেখা শোনা করাটা কম ঝক্কির কাজ! দিনে একজনকে আটবার করে মোট ৪০ বার দুধ খাওয়ানো। সপ্তাহে সাড়ে তিনশ বার ন্যাপি বদলানো। তবে এ কাজে টুসিকে সাহায্য করে দাতব্য সংস্থার লোকজন। তাই তো কিছুটা বাঁচোয়া! জন্মের পর বাচ্চাগুলোকে ইনটেনসিভ কেয়ারে রাখা হয়েছিল মোট ৬ সপ্তাহ।

একটু শক্ত পোক্ত হওয়ার পর তাদের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। পাঁচ মাস বয়সী ওই পাঁচ বাচ্চাকে নিয়ে সম্প্রতি স্থানীয় চ্যানেলে খোলামেলা আলাপ করেছেন টুসি। প্রথমবারের মত তাদের ছবিও প্রকাশ পেয়েছে। এইসব কিউট কিউট বেবিদের ছবি দেখতে খুবই মজার। বেঁচে থাকো সাত ভাই থুড়ি ছয় বোন চম্পা।

বিচিত্রতা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে