Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.1/5 (7 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-০৯-২০১৬

‘উন্নয়ন’ বনাম ‘দুর্নীতি’ নিয়েই হয়েছে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন

‘উন্নয়ন’ বনাম ‘দুর্নীতি’ নিয়েই হয়েছে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন

কলকাতা, ০৯ মে- শেষ হয়ে গিয়েছে ২০১৬ পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন। দীর্ঘ দু’মাস ধরে চলতে থাকা লড়াইতে চলেছে বহু পারস্পরিক আক্রমণ। আক্রমণের বেশীরভাগই হয়েছে মৌখিক। সব ক্ষেত্রেই বুঝে নেওয়ার হিসেব দিয়েছে সবপক্ষ। এই সমস্ত কিছুর মধ্যে থেকে সরাসরি বিষয়টি উন্নয়ন বনাম দুর্নীতির লড়াই হয়ে দাঁড়িয়েছে।

নির্বাচনী প্রচারের প্রথম থেকেই তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতিয়ার ছিল রাজ্যের সার্বিক উন্নয়ন। রেশনে ২টাকা কেজি দরে চাল দেওয়া, কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, সবুজ সাথী, গতিধারা প্রভৃতির মতো প্রকল্পই ছিল তৃণমূলের প্রচারের মূল হাতিয়ার। উন্নয়নের বিপুল ধারা নিয়ে ভবিষ্যতে অনেকে গবেষণা করবে বলেও দাবি করেছিলেন মমতা। একইসঙ্গে বাম-কংগ্রেস জোটকে ‘মানুষকে বিভ্রান্ত করার ঘোঁট’ বলে কটাক্ষ করছিলেন। চিত্রটা পালটে গেল ১৪ই মার্চ। ক্যামেরা সামনে ঘুষ নিতে দেখা গেল তৃণমূলের প্রথম সারির একডজন নেতা-মন্ত্রী-সাংসদকে। বিষয়টি নিয়ে প্রথম বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছিল না ঘাসফুল শিবির। জাল ভিডিও বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কিন্তু, জনমানসে নারদের প্রভাব দেখে তাকেই প্রকাশ্য সভায় বলতে শোনা গিয়েছে, “ভুল করলে প্রয়োজনে চর মারুন। অভিমান করবেন না, চোর বলবেন না।” একইসঙ্গে প্রার্থী তালিকা প্রকাশের আগে নারদ নিউজ ওই ভিডিও প্রকাশ করলে বিষয়টি নিয়ে ভাবনাচিন্তা করতেন বলেও মন্তব্য করেছিলেন মমতা। এরপরেই ২০১৫-১৬ অর্থবর্ষের শেষ দিনে ঘটল আরেক চাঞ্চল্যকর ঘটনা। কলকাতার পোস্তা এলাকায় ভেঙে পড়ল নির্মীয়মাণ বিবেকানন্দ উড়ালপুল। সেখানেও নাম জড়িয়ে গেল তৃণমূল কংগ্রেস নেতার। যদিও ওই প্রকল্প বাম আমলের বলে দায় ঝেড়ে ফেলেছেন মমতা।

বিরোধী শিবির অবশ্য সব দায় তৃণমূলের উপরেই চাপিয়েছে। সারদা কেলেঙ্কারি, নারদ কাণ্ড, উড়ালপুল বিপর্যয় সেইসঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূল নেতাদের দাদাগিরি এই সব কিছু নিয়েই ঘাসফুল শিবিরকে আক্রমণ করে গিয়েছে বিরোধীরা। শিল্পক্ষেত্রে রাজ্যের পিছিয়ে পড়াকেও হাতিয়ার করেছে বিরোধীদের সবপক্ষ। এত কিছুর পরেও তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান হাতিয়ারই ছিল তাদের পরিচালিত সরকারের উন্নয়নের ধারা। একইসঙ্গে দলের নেতারা নারদ ভিডিওর সত্যতাও স্বীকার করে নিয়েছেন। নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ হয়ে গেলে নারদ কাণ্ডে জড়িতদের বিরুদ্ধে এবং নারদ নিউজের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন মমতা। সব মিলিয়ে বিধানসভা নির্বাচনের লড়াইটি দাঁড়িয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের ‘উন্নয়ন’ বনাম ‘দুর্নীতির’ লড়াই।

এফ/০৮:৫৯/০৯মে

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে