Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-০৮-২০১৬

ওয়াশিংটনে ডঃ আশরাফ আহমেদের দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান

এ্যান্থনী পিউস গমেজ


ওয়াশিংটনে ডঃ আশরাফ আহমেদের দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান

ওয়াশিংটন, ০৮ মে- গত ১লা মে, ২০১৬, মেরীল্যান্ডের কেবিন জন মিডল স্কুলের মিলনায়তে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এল্যুমনাই ফোরাম ইঙ্ক (ডুয়াফি)-এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ওয়াশিংটনের স্বনামধন্য লেখক ডঃ সৈয়দ আশরাফ আহমেদের দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান। ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার সুধী সমাজের শতাধিক লোকের উপস্থিতিতে অত্যন্ত চমৎকার আয়োজনে, সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল এই মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানটি। উল্লেখ্য, ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকায় অন্যান্য আয়োজনের পাশাপাশি ডুয়াফির এই আয়োজনটি ছিল সম্পূর্ন ভিন্ন মাত্রার, ভিন্ন আঙ্গিকে আয়োজিত এবং উপস্থাপিত একটি নান্দনিক অনুষ্ঠান, যার মধ্য দিয়ে ওয়াশিংটনপ্রবাসী সাহিত্যানুরাগী বাঙ্গালীদের বাংলা সাহিত্যের প্রতি গভীর অনুরাগ ও ভালবাসা প্রকাশ পেয়েছে এবং সেই  সঙ্গে অত্র এলাকার প্রবাসী কবি-সাহিত্যিকদের এবং তাদের  সৃজনশীল সাহিত্যসৃষ্টির স্বীকৃতি প্রদান ও অভিনন্দন জ্ঞাপনের জন্য প্রকাশ পেয়েছে এক অনন্য মননশীলতা।

যে দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের জন্য ডুয়াফি আয়োজন করেছিল এই অনুষ্ঠানটির, তা হল ডঃ আশরাফ আহমেদ রচিত এবং আগামী প্রকাশনী কর্তৃক প্রকাশিত দু’টি উপন্যাসঃ–

১। মার্তি মনীষের প্রেতাত্মা (আগামী প্রকাশনী, প্রকাশকাল ২০১৬)ঃ

বইটি লেখকের পর্তুগালে ভ্রমন অভিজ্ঞতার উপর লিখিত, কিন্ত ভ্রমন অভিজ্ঞতার অন্তরালে তিনি বিচরন করেছেন পর্তুগালের হাজার বছরের প্রাচীন ইতিহাসের পাতায় এবং  সেই প্রাচীন ইতিহাসকে তুলে আনতে গিয়ে তিনি কাল্পনিক ঘটনার আশ্রয়ে সমসাময়িক জীবনধারার সাথে একটি মেলবন্ধন গেঁথে দিয়ে সৃষ্টি করেছেন একটি অনুপম উপন্যাস।

২। অন্যচোখে বাংলাদেশ (আগামী প্রকাশনী, প্রকাশকাল ২০১৫)ঃ

এটি প্রবাসী স্বদেশীর ভ্রমন আলেখ্যের অন্তরালে চার দশকে বাংলাদেরশার আর্থ-সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলে এবং বহমান জীবনধারায় ও যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে মানুষের মানসিকতায় যে ব্যপক পরিবর্তন লেখক লক্ষ্য করেছেন তার অনুসন্ধিৎসু মন নিয়ে, তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে এই উপন্যাসটির পরিসরে।

এই বই দু’টি ছাড়াও লেখকের আরও দু’টি বই প্রকাশিত হয়েছেঃ-

৩। জলপরি ও প্রানপ্রভা (আগামী প্রকাশনী, প্রকাশকাল ২০১৪)

৪। কলাচ্ছলে বলা (আগামী প্রকাশনী, প্রকাশকাল ২০১৩)

অনুষ্ঠানটি সাজানো হয়েছিল কয়েকটি পর্বে-   লেখক ডঃ আশরাফ আহমেদের ব্যক্তি জীবনের উপড় আলোকপাত এবং ভিডিওচিত্র প্রদর্শনী, বইয়ের মোড়ক উন্মোচন, ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার গুনীজনদের সান্নিধ্যে লেখক ও প্রকাশিত উপন্যাসের উপড় আলোচনা অনুষ্ঠান, প্রকাশিত বই “মার্তি মনীষ” থেকে নেয়া বাংলা পর্তুগীজ ফাদো গান পরিবেশনা, ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকা থেকে ডুয়াফির তিন সদস্যের সদ্য প্রকাশিত কবিতার বই থেকে  কবিতা আবৃত্তি, লেখকের সাথে  আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্বের একটি ভিন্ন সাহিত্য আড্ডা এবং প্রকাশিত বই ভিত্তিক জারি গান।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই ক্ষুদে শিল্পী লাবিবা রহমান ভায়োলিনে জাতীয় সঙ্গীতের সুর বাজিয়ে শোনান এবং সকলে দাঁড়িয়ে  জাতীয় সঙ্গীতের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এরপর লেখক ডঃ আশরাফ আহমেদের ব্যক্তি জীবনের উপড় নির্মিত একটি স্বল্পদৈর্ঘ ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হয়। ভিডিওচিত্রটি নির্মান করেছেন ডুয়াফির সদস্য, জবনাব শফিকুল ইসলাম।

অতঃপর ডুয়াফির সভাপতি ডঃ মিজানুর রহমান ডুয়াফির পক্ষ থেকে  সবাইকে অনুষ্ঠানে স্বাগতম ও শুভেচ্ছা জানান। বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের জন্য যারা মঞ্চে আসনগ্রহন করেন, তারা হলেন-  ডঃ মিজানু ররহমান – ডুয়াফির প্রেসিডন্ট, প্রফেসর নুরুল ইসলাম (আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অর্থনীতিবিদ), জনাব জিয়াউদ্দিন চৌধুরী- প্রাক্তন আমলা ও বিশ্বব্যাংকের কর্মকর্তা, জনাব আজিজুল জলিল- প্রক্তন ব্যুরোক্র্যাট এবং লেখক, জনাব কাফী খান- প্রাক্তন নাট্যকার, চলচ্চিত্রশিল্পী ও সাংবাদিক, জনাব সৈয়দ জিয়াউর রহমান- প্রাক্তন সাংবাদিক।।

মোড়ক উন্মোচনের পর লেখক ডঃ আশরাফ আহমেদসহ যারা লেখকের ব্যক্তিজীবন ও তার প্রকাশিত বইয়ের উপড় আলোচনায় অংশগ্রহন করার জন্য মঞ্চে আসন গ্রহন করেন, তারা হলেন- ডঃ মোহসিন সিদ্দিকী (প্রাক্তন অধ্যাপক-  বুয়েট, বাংলাদেশ এবং হাওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, যুক্তরাষ্ট্র, সম্পাক ও প্রকাশক- “সাউথ এশিয়া ফোরাম কোয়ার্টারলি”), সৈয়দ মাহতাব আহমেদ (চিকিৎসক, লেখক), ডঃ হাসান ইমাম( অর্থনীতিবিদ, বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের বৈদেশিক বাণিজ্য বিভাগের অধিকর্তা ছিলেন, যুক্তরাজ্যে ইউনিভার্সিটি অব ওয়েলস এবং ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ডের প্রাক্তন অধ্যাপক), ডঃ সুলতান আহমেদ- (বিশ্বব্যাংকের প্রাক্তন কর্মকর্তা এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব), ওয়াহেদ হোসেইনী- (সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার, নর্দার্ন ভার্জিনিয়ার ডেমোক্র্যাটিক পার্টি এবং এএআরপি-র সক্রিয় সদস্য, পুস্তক সমালোচক ও কলামিষ্ট), আনিস আহমেদ- (নটর ডেম কলেজ, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক, বিবিসি’র প্রাক্তন এবং ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের বর্তমান সংবাদ বিশ্লেষক ও পাঠক, কলামিষ্ট এবং ইদানীং সময়ে ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার নন্দিত কবি) এবং  আদনান মোর্শেদ- (প্রাক্তন শিক্ষক, বুয়েট, ঢাকা, ক্যাথলিক ইউনিভার্সিটির সহযোগী অধ্যাপক, লেখক, স্থাপত্য গবেষক)। আলোচনা প্যানেলে মঞ্চে উপস্থিত এসব আলোকিত গুনীব্যক্তিরা লেখক ডঃ আশরাফ আহমেদের ব্যক্তি জীবন, তার ব্যক্তিত্ব ও প্রতিভা, পেশাগত সম্পৃক্ততা এবং তার সাহিত্যসৃষ্টির উপড় আলোচনা ও পর্যালোচনাসহ বিশদ আলোকপাত করেন এবং তার সদ্য প্রকাশিত বইয়ের উপড় সারগর্ভ আলোচনা করে বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

এরপর ডঃ আশরাফ আহমেদের সদ্য প্রকাশিত উপন্যাস “মার্তি মনীষের প্রেতাত্মা” থেকে ফাদো গান পরিবেশন করেন রাজিয়া সুলতানা তানিয়া, যা অনেকটা বাংলাদেশের ভাটিয়ালী ও ভাওয়াইয়া গানের আদলে রচিত এবং গীত, অনেকটা বিষাদময় ভাবাবেগের বহিঃপ্রকাশ ঘটে এই ফাদো গানে।

অতঃপর শুরু হয় ডুয়াফি’র তিন সদস্যের সদ্য প্রকাশিত কবিতার বই থেকে নেয়া কবিতার আবৃত্তি। যেসব কাব্যগ্রন্থ থেকে কবিতাগুলো নির্বাচন করা হয়, তাহলঃ

  • জলরাশির জন্য বাক্যসমুহ – জসীম উদ্দিন গওহর।
  • বিম্বিত কার্তিকডাঙ্গায় – মোহাম্মদ তারেক।
  • আলোকিত পালকের জলবিন্দু – আনিস আহমেদ।

কবিতা আবৃত্তিতে যারা অংশগ্রহন করেন, তারা হলেনঃ দিনা, মেরী, মিতা এবং সোমা। তাদের চমৎকার আবৃত্তি সবাইকে মোহিত করে । আর আবৃত্তির পর পরই মঞ্চে আসন গ্রহন করেন জনাব শফি দেলোয়ার কাজল, যার গ্রন্থনা ও উপস্থাপনায় দ্বিতীয় পর্বের আলোচনা, সাহিত্য আড্ডা ও প্রশ্নোত্তর পর্ব পরিচালিত হয়। যারা লেখকের সাথে এই সাহিত্য আড্ডায় অংশগ্রহন করেন, তারা হলেন- দস্তগীর জাহাঙ্গীর, জাহিদ মন্ডল, এ্যন্থনী পিউস গমেজ, সন্তোষ বড়ুয়া এবং ডঃ ইউনুস ঠাকুর। অত্যন্ত প্রানবন্ত ছিল অনুষ্ঠানের এই পর্বটি এবং লেখককে সরাসরি প্রশ্ন করার সুজোগ পেয়ে আলোচনকারী ও সাহিত্য আড্ডায় অংশগ্রহনকারীরা তাকে সাহিত্য ও জীবনভিত্তিক প্রশ্ন করে তার ব্যক্তি ও লেখকসত্বার ভিন্ন দিকের উপড় আলোকপাত করেন।

এপর্বের পর শুরু হয় জারি গান । প্রকাশিত উপন্যাস মার্তি মনীষের প্রেতাত্মা এবং লেখককে লক্ষ্য করে জারি গান পরিবেশন করেন, তারা হলেনঃ  শফিকুল ইসলাম, কন্ঠ শ্রমিক কাইউম খান, মোহাম্মদ আবীর আবসার, আনন্দ এবং পল গোমেজ। অত্যন্ত চমৎকার পরিবেশনা ছিল এই জারি গান।

অবশেষে ডুয়াফীর প্রেসিডেন্ট মিজানুর রহমান সবাইকে ডুয়াফি’র পক্ষ থেকে সবাইকে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করার জন্য ধন্যবাদ জানান এবং সবার মঙ্গল কামনা করে সবাইকে শুভেচ্ছা  জানিয়ে তিনি অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানার জন্য লেখক ডঃ আশরাফ আহমেদকে সবিনয় অনুরোধ করেন। ডঃ আশরাফ আহমেদ সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা, ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন । অনুষ্ঠানের পর দেখে গিয়েছে অনেকেই ডঃ আশরাফ আহমেদের কাছে তাদের সংগ্রিহীত বইয়ে তার অটোগ্রাফের জন্য হাজির হয়েছেন এবং তাকে নিয়ে ছবি তুলে  মুহূর্তের স্মৃতিগুলোকে ধরে রাখার জন্য ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছেন তাদের ক্যমেরার ফ্ল্যাশে।

অবশেষে সমাপ্ত হলো ডুয়াফি’র আয়োজনে ডঃ আশরাফ আহমেদের প্রকাশিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের নান্দিক অনুষ্ঠানটি... অনেক অনুষ্ঠানের স্মৃতির ভীড়ে এ অনুষ্ঠানটি একটি ভিন্ন আবেদন নিয়ে মনের গভীরে থেকে যাবে বহুদিন-  মনে থাকবে ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার কিছু আলোকিত মানুষদের সান্নিধ্যে কেটে যাওয়া এই সুন্দর দিনটির কথা । কখনো কখনো পেছন  ফিরে তাকালে মনে পড়ে যাবে মননশীল এই আয়োজনটির কথা, মনটা আপ্লুত হয়ে উঠবে এইসব আলোকিত মানুষের ভীড়ে কেটে যাওয়া কিছু সুন্দর মুহূর্তের স্মৃতির ছোঁয়ায় ।

যূক্তরাষ্ট্র

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে