Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.2/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-০৮-২০১৬

শতভাগ কর অবকাশ সুবিধা চায় ডিএসই

শতভাগ কর অবকাশ সুবিধা চায় ডিএসই

ঢাকা, ০৮ মে- চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরেও শতভাগ কর অবকাশ সুবিধা চেয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। বর্তমানে ক্রমহ্রাসমান কর অবকাশ সুবিধার আওতায় ডিএসই ৮০ ভাগ অবকাশ সুবিধা ভোগ করছে। ফলে ডিএসইকে চলতি অর্থবছর থেকেই মোট আয়ের ওপর ৭ শতাংশ হারে কর্পোরেট কর প্রদান করতে হবে।

২০১৪-১৫ অর্থবছরের ২৬ জুন জারি হওয়া আয়কর প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী এই কর সুবিধা পাচ্ছে ডিএসই। ৯ ফেব্রুয়ারি ডিএসই’র প্রতিনিধিরা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করে তারা এ কর অবকাশ সুবিধা দাবি করেন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার এনবিআরে চিঠিও পাঠায় ডিএসই।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের প্রজ্ঞাপন জারি করে স্টক এক্সচেঞ্জকে ক্রমহ্রাসমান হারে ৫ বছরের কর অবকাশ সুবিধা দেয় এনবিআর। প্রথম বছরের জন্য শতভাগ, দ্বিতীয় বছর অর্থাৎ চলতি বছরের জন্য ৮০ শতাংশ, তৃতীয় বছরের জন্য ৬০ শতাংশ ও চতুর্থ বছরের জন্য ৪০ শতাংশ এবং পঞ্চম বছরের ২০ শতাংশ হারে কর্পোরেট কর ধার্য করা হয়। সে হিসেবে, চলতি অর্থবছরের আয়ের ওপর স্টক এক্সচেঞ্জগুলোকে ৭ শতাংশ হারে কর্পোরেটর কর দেয়ার কথা। বর্তমানে কর্পোরেট কর হার ৩৫ শতাংশ। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. স্বপন কুমার বালা বলেন, বিষয়টি নিয়ে এনবিআরের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। এখনও আলোচনা পর্যায়ে রয়েছে। চূড়ান্ত হলে জানানো হবে।

এদিকে এনবিআরে পাঠানো ডিএসইর চিঠিতে বলা হয়েছে, ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন স্কিমের আওতায় স্টক এক্সচেঞ্জের যে সংস্কার চলছে তা চলমান রাখতে এবং পুঁজিবাজারের অবকাঠামোগত বিনিয়োগ সক্ষমতা ধরে রাখার স্বার্থে স্টক এক্সচেঞ্জের কর অবকাশ দেয়ার বিষয়টি পরিবর্তিতভাবে বিবেচনা করা প্রয়োজন।

বর্তমানে সরকার স্টক এক্সচেঞ্জের আয় থেকে কোনো প্রকার আয়কর পাচ্ছে না। তাই চলতি আয়বর্ষে শতভাগ কর অবকাশ প্রদান করলে সরকারের রাজস্ব সংগ্রহে তেমন ব্যত্যয় ঘটবে না। চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, যদি এখনই এক্সচেঞ্জগুলোর আয়ের ওপর কর বসানো হয় তাহলে এতে এক্সচেঞ্জগুলোর নিট আয় বিশেষভাবে কমবে, যা এক্সচেঞ্জগুলোর শেয়ারপ্রতি আয়ে (ইপিএস) সরাসরি বিরূপ প্রভাব ফেলবে। এর ফলে এক্সচেঞ্জের নেট অ্যাসেট ভ্যালু (ন্যাভ) কমবে। যদি ন্যাভ কমে তবে সেক্ষেত্রে এক্সচেঞ্জগুলোর নিজস্ব শেয়ারের বিক্রয়মূল্য কমে যেতে পারে। ফলে ৫৩এন ধারার অধীনে স্টক এক্সচেঞ্জের নিজস্ব শেয়ার বিক্রয় থেকে অর্জিত মূলধনী লাভের ওপর ১৫ শতাংশ হারে কর আদায় ব্যাপকভাবে হ্রাস পেতে পারে। স্টক এক্সচেঞ্জের জন্য প্রযোজ্য চলতি বছরের নিট ৭ শতাংশ কর্পোরেট কর অব্যাহতি দিলে ১৫ শতাংশ হারে মূলধনী লাভের কর রাজস্ব অনেক বেশি হবে।

এক্সচেঞ্জ ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন আইন, ২০১৩-এর বিধান অনুযায়ী মোট ইস্যু করা শেয়ারের শতকরা ২৫ ভাগ ২০১৬ সালের মধ্যে বৈদেশিক কৌশলগত বিনিয়োগকারীর কাছে বিক্রয় করতে হবে। কর অবকাশ না থাকার কারণে শেয়ারপ্রতি ইপিএস কমলে এক্সচেঞ্জের নেট অ্যাসেট ভ্যালু (ন্যাভ) কমবে। এ কারণে কৌশলগত বিনিয়োগকারীর কাছে প্রত্যাশিত উচ্চমূল্যে শেয়ার বিক্রয় করা কঠিন হবে। 

এফ/০৯:৩২/০৮মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে