Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English
» নাসিরপুরের আস্তানায় ৭-৮ জঙ্গির ছিন্নভিন্ন মরদেহ **** ইমার্জিং কাপে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ       

গড় রেটিং: 3.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-০৬-২০১৬

ভারতীয়রা আমাকে মানুষই মনে করতো না

ভারতীয়রা আমাকে মানুষই মনে করতো না

ইন্দো-কানাডিয়ান বংশদ্ভুত অভিনেত্রী সানি লিওন। অতীতে পর্নো ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে ভারতে বারবার তাকে সমালোচনা শুনতে হয়েছে। ভারত ছেড়ে যেতে অনেক ভারতীয় তার বিরুদ্ধে থানায় মামলাও করেছেন। বলিউডে অনেক অভিনেতারাও সানিকে দেখলেই নাক সিঁটকাতেন। এরইমধ্যে ছয়/সাতটি সিনেমায় অভিনয়ও করেছেন। যার মধ্যে ‘এক পেহলি লীলা’ ছাড়া প্রায় সবগুলোই সেক্স কমেডি! লাস্যময়ীভাবে তাকে উপস্থাপনার ধারাবাহিকতায় ক’দিন আগে মাস্তিজাদের পর ৬ মে শুক্রবার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তার আরো একটি সিনেমা ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’। সম্প্রতি ছবির প্রমোশনের অংশ হিসেবে স্পটবয়.কমকে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন সানি। যেখানে কথা প্রসঙ্গে উঠে এসেছে চলতি বছরের শুরুতে একটি টিভি সাক্ষাৎকারে পাল্টে যাওয়া তার ক্যারিয়ারের কথা। সাক্ষাৎকারে সানি জানিয়েছেন আমির খান ও সদ্য শুটিং শেষ করা বলিউড কিং শাহরুখের সঙ্গে প্রথমবার অভিনয়ের অনুভূতি। ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’ ছবির বিষয়গুলো বাদ দিয়ে সানির জীবনের সাম্প্রতিক ঘটনাগুলো দেয়া হল পাঠকদের জন্য:


-ভারতের মানুষ আপনার সম্পর্কে ভিন্ন ধারনা পোষণে করেন, যা চলতি বছরে আপনার বিখ্যাত টিভি সাক্ষাৎকারটি প্রকাশ হওয়ার পর অনেকের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটে। এসব ঘটনাকে কিভাবে দেখেন?

ওই ঘটনা আবার মনে করতে চাই না। যতোক্ষণ ওই ইন্টারভিউতে ছিলাম তখন উপস্থাপকের প্রশ্ন শুনে বারবার আমি বেরিয়ে আসতে চেয়েছি। পুরোটা সময় এক ধরনের অস্থিরতার ভিতরে ছিলাম। যখন ক্যামেরা অফ করা হয় তখন ওই সাংবাদিককে আমি এও বলেছিলাম যে, স্যার, ইন্টারভিউয়ের পরতো আপনাকে আপনার পরিবারের কাছে যেতে হবে?’ কিন্তু তারপরও বিব্রতসব প্রশ্ন করা থামাননি তিনি। তাতে আমার কি করার ছিল? এমন ঘটনায় সত্যি আমি মর্মাহত। কিন্তু আমার ভক্ত অনুরাগীরা আমাকে এমন ঘটনায় সমর্থন জানিয়েছে। এরপর থেকে ভারতীয়রা আমাকে মনুষ্যজাতি হিসেবে বিবেচনা করছে। যদিও এই ঘটনার আগে অনেকেই আমাকে মানুষ বলেই বিবেচনা করতেন না। সত্যিই ওই সাক্ষাৎকারটি প্রকাশের পর অনেক কিছুরই পরিবর্তন হয়েছে।      

বলিউডের তারকারা যখন আপনার সমর্থনে দাঁড়ায়, তখনই বোধয় আপনার ক্যারিয়ারটা ভিন্ন দিকে বাঁক নিতে শুরু করে। যেমন আলিয়া ভাট, আনুশকা শর্মা কিংবা প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মত তারকারা আপনার পক্ষে কথা বলে। তারা কেউ আপনার বন্ধু নয়, কিন্তু তাদের এই সমর্থনকে কিভাবে দেখেন...?
তাদের সমর্থনে আমি সত্যিই আপ্লুত। অন্যরকম অনুভূতিরও। যেসব প্রশ্ন আমাকে সে অনুষ্ঠানে করা হয়েছে তা আগেও বহুবার আমাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছে। কিন্তু ওই সাক্ষাৎকারটি দেখে যারা আমার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন তাদের প্রতি আন্তরিকভাবে আমি কৃতজ্ঞ।  

এমন সাক্ষাৎকার পাব্লিশ হওয়ার পর আমির খান আপনার সমর্থনে এগিয়ে এসেছিলেন, এমনকি আপনার সঙ্গে অভিনয় করার ইচ্ছাও পোষণ করতে দেখা গেছে আমিরকে...

আমি জানি(হাসি)। আমির খানের এমন সমর্থনে আমি অভিভূত। তিনি আমাকে একটি বার্তা পাঠিয়েছিলেন, যার জন্য আমি সত্যিই তার প্রতি কৃতজ্ঞ।

-তাহলে কি আমরা আমির খানের সঙ্গেও সানিকে দেখবো?
আমির খানের সঙ্গে আমার সরাসরি সাক্ষাৎ হয়েছে। কথাও হয়েছে বিস্তর। কিন্তু সিনেমা নিয়ে তার সাথে কোনো কথা হয়নি। 

-এরইমধ্যে শাহরুখের ‘রইস’ সিনেমায় শুটিংও করেছেন?
আমার স্পষ্ট মনে আছে যে শাহরুখ খান আমার স্বামীকে ফোন করেছেন! আমি আর ডেনিয়েল ওয়েবার একসঙ্গেই গাড়িতে বসা ছিলাম। হঠাৎ দেখি ডেনিয়েল কারসঙ্গে ফোনে কথা বলছে। কথা বলার পর গাড়িতে বসেই ডেনিয়েল আমাকে বললো, সানি! তুমি জানো আমাকে কে কল করেছিল? তুমি বিশ্বাস করতে পারবে না সে তুমাকে তার ছবিতে একটি গানের প্রস্তাব দিয়েছে! অনেকক্ষণ এমন করার পর ডেনিয়েল আমাকে বললো সেই ব্যক্তিটি বলিউড কিং শাহরুখ! এমন কথা শুনে আমি ডেনিয়েলকে জিজ্ঞেস করেছিলাম যে, তুমি কি সিওর যে শাহরুখ ঠিক নম্বরে কল দিয়েছে? হয়তো অন্যকাউকে সে কল করে থাকতে পারে!’ আসলে সত্যিই আমার বিশ্বাস হয়নি যে শাহরুখ আমাকে তার ছবির জন্য ভেবেছেন! এমন ঘটনার বেশ ক’দিন পর্যন্ত আমি রীতিমত শকড্ ছিলাম, তৃপ্তির রেশও ছিল বেশ ক’দিন!


-প্রথমবার যখন শুটিংয়ে শাহরুখের মুখোমুখি হয়েছিলেন, তখন কি নার্ভাস ছিলেন?
প্রথমদিনে যখন শুটিংয়ে শাহরুখের সামনে দাঁড়াই, সত্যিই আমি খুব নার্ভাস ছিলাম। আমি তখন স্টুডিওর বাইরে বসে ছিলাম​, পরিচালকের সঙ্গে কথা বলছিলাম। আর তখনই প্রথমবারের মত সেটে শাহরুখ খানকে আমি দেখি। তারসঙ্গে সাক্ষাতের পর আমি যখন আমার ভ্যানিটি ভ্যানে গিয়ে বসি তখন আমার মনে হয়, হায়! আমার হেয়ারস্টাইল আর মেকাপের যা অবস্থা এভাবে আমি কি করে শাহরুখের সঙ্গে সাক্ষাৎ দিলাম।(হাসতে হাসতে...)  


-তারপর যখন গানে একসঙ্গে নাচলেন, তখনকার অবস্থা...?
হাসতে হাসতে সানি জবাব দিলেন, আমার সমস্ত ইমোশনকে নিয়ন্ত্রণ করে শাহরুখের সঙ্গে প্রথমবার একই ফ্রেমে দাঁড়াই আমি। নিজেকে প্রবোধ দিয়ে বললাম, ‘সানি, একসঙ্গে চালিয়ে যাও! তুমি একজন পেশাদার অভিনেত্রী, ইমোশনাল হলে চলবে না’।  কিন্তু তারপরেও উচ্ছ্বাস সামলাতে না পেরে শাহরুখকে আমি বলে উঠেছিলাম, স্যার। এটাই একসঙ্গে আমাদের প্রথম শুট। এরজন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

-সে সময় আপনার নার্ভাসনেসটা কমলো কিভাবে?
আসলে প্রথম দিনের পরেই আমি রীতিমত প্রফেশনাল হয়ে গেলাম। মানে সব ঠিকঠাক হয়ে গেল। দ্বিতীয় দিন থেকে আমি আর শাহরুখের পাগল ভক্তের মত আচরণ করেনি।(হাসি..) 


প্রসঙ্গত, যে সাক্ষাৎকারটি সানিকে বলিউডের সমর্থন পেতে সহায়তা করে সেটি চলতি বছরের জানুয়ারিতে নেয়া হয়েছিল। সিএনএন এবং আইবিএন চ্যানেলের হয়ে যেখানে উপস্থাক হিসেবে ছিলেন ভূপেন্দ্র ছোবে নামের এক টিভি অ্যাঙ্কর। টিভি ইন্টারভিউতে সানিকে তার অতীত জীবন এবং ‘পর্নো ছবি’তে কাজ করা নিয়ে হেয় করে প্রশ্ন করেন ওই অ্যাঙ্কর। যেসব কুৎসিত প্রশ্ন করা হয় সেসময় সেগুলোকে টিভি অ্যাঙ্করের প্রতি রুচিহীনতার প্রশ্ন বলে উল্লেখ করেছিলেন অনেকে। কিন্তু সানি লিওন সেই প্রশ্নগুলো খুব ভালোভাবে মোকাবেলা করেন। আর এইজন্য তার পাশে পেয়েছেন বলিউড তারকাদের। 

এফ/১৯:৪৩/০৬মে

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে