Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-০৫-২০১৬

ভুল করেও যেন মুসলিমের রক্তপাত না হয়

ভুল করেও যেন মুসলিমের রক্তপাত না হয়

ঢাকা, ০৫ মে- ভুল করেও যেন কোনো মুসলিমের রক্তপাত না হয় সে ব্যাপারে তাদের অত্যন্ত সাবধান হওয়া প্রয়োজন বলে জানিয়েছে আল-কায়েদার বাংলাদেশ শাখা আনসার আল ইসলাম।

তবে জুলহাজ মান্নানের বাড়ির নিরাপত্তারক্ষী পারভেজ মোল্লাকে আঘাত করার ইচ্ছে তাদের ছিল না বলে দাবি করছে সংগঠনটি।।

বুধবার এক বিবৃতিতে ইউএসএআইডির কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নান ও নাট্যকর্মী মাহবুব তনয়ের হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে এ কথা জানায় তারা।

দুই পৃষ্ঠার বিবৃতিতে সমকামিতাকে গ্রহণযোগ্য করে তোলার চেষ্টারত গণমাধ্যমকেও হুমকি দিয়েছে আনসার আল ইসলাম।

জুলহাজ মান্নান ও মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যার পর এর দায় স্বীকার করে আনসার আল ইসলাম টুইটে লিখেছিল, “আলহামদুলিল্লাহ! আল্লাহ তা’আলার অনুগ্রহে আনসার আল ইসলাম-এর দুঃসাহসী মুজাহিদিনরা বাংলাদেশে সমকামী প্রসারের পথিকৃৎ, সমকামীদের গুপ্ত সংগঠন ‘রূপবান’- এর পরিচালক জুলহাজ মান্নান ও তার সহযোগী সামির মাহবুব তনয়কে হত্যা করেছেন। ক্রুসেডার আমেরিকা ও তার ভারতীয় মিত্রদের সাহায্য নিয়ে ১৯৯৮ সাল থেকে এই ভূখণ্ডের অধিবাসীদের মধ্যে সমকামিতার মতো জঘন্য অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছিলেন এই বেতনভোগী ভৃত্যদ্বয়।”

শিগগির বিস্তারিত আসছে বলে উল্লেখ করা হয়েছিল ওই টুইটে। বুধবার আনসার আল ইসলামের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে ওই হত্যাকাণ্ডের বিস্তারিত তুলে ধরে সংগঠনটি।

বিবৃতিতে বলা হয়, “কোনো মুসলিমের রক্তপাত ঘটানো শরিয়া অনুযায়ী বড় পাপ। আর সেকারণে ভুল করেও যেন কোনো মুসলিমের রক্তপাত না হয় সে ব্যাপারে আমাদের অত্যন্ত সাবধান হওয়া প্রয়োজন। অনেক বছর ধরে এ দেশে অনেক ব্যক্তি ও সংগঠন মুসলিমদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। এসব ব্যক্তি ও সংগঠনের ওপর প্রথমে হামলা চালিয়ে মুসলিমদের জাগিয়ে তোলাটাই সর্বোৎকৃষ্ট পন্থা।”

জুলহাজ মান্নানের বাড়ির নিরাপত্তা রক্ষী পারভেজ মোল্লাকে আঘাত করার ইচ্ছে তাদের ছিল না দাবি করে বিবৃতিতে বলা হয়, আত্মরক্ষার্থে তারা পারভেজের ওপর হামলা করতে বাধ্য হয়েছে। তাকে আহত করার জন্য দুঃখও প্রকাশ করা হয় বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে অভিযোগ করা হয়, বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত যখন নিরীহ ও নিষ্পাপ মানুষরা হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়, শত শত মুসলিম নিহত হন, যুক্তরাষ্ট্র তখন নীরব ভূমিকা পালন করে; মানবতা বা মানবাধিকার নিয়ে উদ্বিগ্ন হয় না। আর যখন ইসলামের কোনো শত্রু কিংবা ইসলামোফোবিয়ার প্রচারক হত্যার শিকার হন তখন এ ‘ক্রুসেডার’দের অশ্রু গড়িয়ে পড়ে।

যেসব গণমাধ্যম বাংলাদেশের মুসলিমদের মাঝে সমকামিতাকে গ্রহণযোগ্য করে তোলার চেষ্টা করছে তাদের এ ধরনের ‘ঘৃণ্য অপরাধ’ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “তা না হলে এ ভূখণ্ডের মুসলিমরা আপনাদের ক্ষমা করবে না।”

আইএসের প্রতি আল কায়েদার দৃষ্টিভঙ্গির ব্যাখ্যা দিয়ে আল-কায়েদা নেতা আয়মান আল জাওয়াহিরির দেওয়া একটি উদ্ধৃতি তুলে ধরা হয়েছে বিবৃতিতে। জাওয়াহিরি বলেছেন- “আমরা আল-বাগদাদি ঘোষিত খেলাফতকে স্বীকৃতি দিই না কিংবা একে মহানবীর আদর্শের আলোকে ঘোষিত খেলাফত বলে মনে করি না। কিন্তু এর মানে এই নয় যে আমরা আইএসের সব কর্মকাণ্ডকেই অবৈধ মনে করি। যদিও তাদের পর্বত সমান ভুল রয়েছে, তারপরও কিছু কিছু ক্ষেত্রে তারা সঠিক সিদ্ধান্তও নিয়েছে।”

বেশিসংখ্যক নিরাপত্তারক্ষী কিংবা সিসিটিভির ক্যামেরার মোতায়েন নয় বরং ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ করাই নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলার একমাত্র উপায় বলে ‘ইসলামের শত্রুদের’ সতর্ক করা হয়েছে বিবৃতিতে।

গত মাসের শেষের দিকে রাজধানীর কলাবাগানে বাসায় ঢুকে জুলহাজ মান্নান ও মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ইউএসএআইডির কর্মকর্তা  জুলহাজ বাংলাদেশে প্রকাশিত প্রথম সমকামীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার পত্রিকা ‘রূপবান’-এর সম্পাদক ছিলেন। তনয় ছিলেন লোকনাট্য ও রূপবানের কর্মী।

এস/০৩:২০/০৫ মে

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে