Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.2/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৫-০৩-২০১৬

অন্টারিও বেঙ্গলি কালচারাল সোসাইটির উদ্যোগে টরন্টোতে জমজমাট বৈশাখী মেলা

অন্টারিও বেঙ্গলি কালচারাল সোসাইটির উদ্যোগে টরন্টোতে জমজমাট বৈশাখী মেলা

টরন্টো, ০৩ মে- আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। সাহিত্য সংস্কৃতিতে আমাদের অগ্রযাত্রা বেগবান হয়ে উঠেছে। নাটকে, কবিতায়, চিত্রকলায়, সাহিত্য ভাবনায়-প্রবন্ধে, এমনকি আমাদের জারিসারি পরিবেশনায়ও। টরন্টো ক্রমশ হয়ে উঠছে বাঙালি সংস্কৃতি চর্চার একটি আদর্শ শহর। টরন্টোতে নববর্ষ নিয়ে যত অনুষ্ঠান হয়েছে এবং এখনো হচ্ছে বাংলাদেশের বাইরে এমনকি খোদ বাংলাদেশেও বৈশাখে নববর্ষ উদযাপন নিয়ে এমন বহুমুখী অনুষ্ঠান হয়েছে কি না সন্দেহ। এটা আমাদের সাংস্কৃতিক ফসলের মাঠের সেচের জন্য স্রোতধারার দ্বিতীয় প্রধান উৎস মুখ।

প্রবাসে নতুন প্রজন্মের মধ্যে বাংলা সংস্কৃতির বীজ বপনের প্রতিশ্রুতি নিয়ে যাত্রা শুরু করা অন্টারিও বেঙ্গলি কালচারাল সোসাইটি বরাবরের মতো এবারও আয়োজন করে দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা ও বর্ষবরণের উৎসব। গত ২৩ এপ্রিল টরন্টোর ডানডাস ও পার্লামেন্ট এলাকায় অবস্থিত বুলগেরিয়ান চার্চে অনুষ্ঠিত ঐ মেলায় ঢল নেমেছিল প্রবাসী বাঙ্গালীদের। মেলার পাশাপাশি আয়োজন করা হয়েছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও। স্থানীয় শিল্পীরা নাচ, গান, কবিতা আবৃত্তি ও অভিনয়ের মাধ্যমে মাতিয়ে রাখেন দর্শকদের। শিশু শিল্পীদের নৃত্য আর সঙ্গীত পরিবেশনা ছিল অনবদ্য ও সর্বাঙ্গসুন্দর।

শিশুদের যেমন খুশি তেমন সাজো পর্ব দিয়ে শুরু হয়েছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এই পর্বে বিচারক ছিলেন এন আর বি টিভির ডাইরেক্টর এডভোকেট আফিয়া বেগম। যেমন খুশি তেমন সাজো অংশগ্রহণকারী শিশুরা হলোঃ আজরাফ হক, রাফায়েল হক, অঙ্কিতা কর্মকার ও বিনীতা কর্মকার। পরিচালনা করেন আসমা হক।

আঞ্চলিক ভাষায় সংবাদ পাঠ দর্শকদের মন জয় করেছে। এতে বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষায় একটি নির্দিষ্ট সংবাদ পাঠ করেন ইসমত আরা নেলি, ফারহানা মোতাহার, ঝুম্পা চক্রবর্তী ও মাহবুবুল হক ওসমানি।

রবীন্দ্র পর্বে আলোচনায় অংশ নেন লেখক ও গবেষক সুব্রত কুমার দাস। রবীন্দ্র সঙ্গীত পরিবেশন করেন দীনা সায়েদ। 

দেশাত্মবোধক গান নিয়ে আলোকপাত করেন কবি দেলওয়ার এলাহী। এ পর্বে বৈশাখকে আহবান জানিয়ে সমবেত কণ্ঠে- 'এসো হে বৈশাখ, এসো এসো' গানটি দিয়ে শুরু করে অতঃপর দেশাত্ববোধক গান পরিবেশন করেন 'ও বি সি এসে'র শিল্পী ওমর ফারুখ, আজিজা ফারুক, কামরুজ্জামান ভূঁইয়া,মৌ বেগম, ইয়াসমিন খায়ের, ইসমত আরা নেলি, গোলাম মহিউদ্দিন ও ঝুম্পা চক্রবর্তী। তবলায় সঙ্গত করেন কমল বণিক। 

অনুষ্ঠানে একটি গান পরিবেশন করেন অন্টারিও বেঙ্গলী কালচারাল সোসাইটির নেত্রী ফারহানা পল্লব।

মেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী সংগঠন ও স্কুলগুলোর মধ্যে ছিল আলমপিয়া স্কুল অব মিউজিক, নৃত্যকলা কেন্দ্র ও বাচনিক। শিশু শিল্পীদের নিয়ে সঙ্গীত পরিবেশন করেন আলমপিয়া স্কুল অব মিউজিকের প্রিন্সিপাল এ. এফ. এম আলিমুজ্জামান। টরন্টোর আবৃত্তি সংগঠন 'বাচনিক' একক ও সম্মিলিতভাবে কবিতা আবৃত্তি করেন। তাদের পরিবেশনায় পুঁতিপাঠ শ্রোতা দর্শকদের মন জয় করে।

বাচনিকের আবৃত্তি শিল্পীরা হলেনঃ মেরী রাশেদীন, রেজা অনিরুদ্ধ, ফারহানা মোতাহার, আসমা হক, এলিনা মিতা ও আশরাফুন নাহার জলি। 

গান ও কবিতার কোলাজ পরিবেশন করেন সৈয়দা মার্জিয়া মৌ ও সুমন মালিক। একক আবৃত্তিতে জীবনানন্দ দাশের কবিতা আবৃত্তি করেন ফারহানা মোতাহার। শিশু কিশোরদের পর্বে গান পরিবেশন করেন রাইদা ফাইরুজ মিষ্টি, তাহসিন এনায়েত, ফারাহ তাসনিম বৃষ্টি, অঙ্কিতা কর্মকার ও বিনীতা কর্মকার। শিশু কিশোরদের পরিবেশনার একটি পর্ব উপস্থাপনা করেন পরমা সাঈবা।

পাহাড়ী গান পরিবেশন করেন ওমর ফারুখ ও তার দল। পল্লীগীতি পরিবেশন করেন মুক্তি প্রসাদ।

লালন গীতি পরিবেশন করেন সুনীতি সর্দার। হারানো দিনের গান পরিবেশন করেন যূথিকা বড়ুয়া।

নজরুল গীতি পরিবেশন করেন গোলাম মহিউদ্দিন। বাংলা চলচ্চিত্র ও আধুনিক গান পরিবেশন করেন রুখসানা তারিক সানু, ফারহানা শান্তা, নাসরিন খান, টিটু কবীর। বাংলা চলচ্চিত্রের একটি গানের সাথে অভিনয় করেন বিপ্লব কর্মকার ও অর্পিতা কর্মকার।

দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের গান পরিবেশন করেন সুমী বর্মণ। কবি ও সংগঠক ম্যাক আজাদ রচিত ও পরিচালিত 'শুভাকাঙ্ক্ষী' নাটকটির অভিনয় অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকল দর্শকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। তিন চরিত্র বিশিষ্ট এই নাটকে দর্শকনন্দিত অভিনয় করেন ম্যাক আজাদ, মানিক চন্দ ও রিনি শাখাওয়াত। 

অনুষ্ঠানস্থলে দৃষ্টিনন্দন মঞ্চ সজ্জা করেন নুরুন নাহার সুপ্তি ও শারমীন সুলতানা। মেলা উপলক্ষে একটি সাহিত্য সামায়িকী প্রকাশ করা হয়। 'হালখাতা' নামের এই সুদৃশ্য সাময়িকীটি সম্পাদনা করেন কবি দেলওয়ার এলাহী ও ফারহানা পল্লব। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ওন্টারিও বেঙ্গলি কালচারাল সোসাইটির সভাপতি জসিম উদ্দিন, সহসভাপতি মুন্নি সোবহানি, নির্বাহী পরিচালক ফারহানা পল্লব ও প্রোগ্রাম পরিচালক ড.হাসান মাহমুদ, ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন শাহানারা খন্দকার। পুরো অনুষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট সবাইকে আপ্যায়ন করেন মাহবুবা উদ্দিন আলো।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী শিশু কিশোরদের সনদ প্রদান করা হয়। ও বি সি এসের পক্ষ থেকে সনদ প্রদান করেন জসিম উদ্দিন ও ফারহানা পল্লব। পুরো অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন ফারহানা মোতাহার, মাহবুবুল হক ওসমানি ও ফ্লোরা সুচী।

মূলের শিকড় শক্ত করে যদি মাটিতে ছড়িয়ে আঁকড়ে ধরে, তাহলে যে কোনো বৃক্ষের ফলের জন্য বেগ পেতে হয় না। গানের মৃত্তিকায় ছড়িয়ে থাকা সেই শিকড়ের নাম উচ্চাঙ্গ শিক্ষা। যার শিকড় যত মৃত্তিকালগ্ন ছড়ানো; তার কণ্ঠ ততই অনায়াস প্রক্ষেপণের উপযুক্ত। সুক্ষ্মদর্শী কাজও তার কাছে সহজিয়া অধীন।

এই কথাটি বারবার মনে হয়েছিল শিল্পী দম্পতি মুন্নি সোবানী ও আফজাল সোবানীর গানের পরিবেশনা শুনে শুনে। বিশেষ করে মুন্নি সোবানী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায় হোক আর শাহনাজ রহমতউল্লাহর গান হোক, কী মধুর সাবলীলতায় পরিবেশন করে আপামর মানুষের মন কেড়ে নিলেন! মুগ্ধ হয়ে সবাই তাঁর গান শুনলাম।

সেই সন্ধ্যার গানের রেশ এখনো আমার কানের কাছে অনুরণন তুলছে-
'মমতারই শিশির গুলো, ছড়িয়ে আছে পায়......'

কানাডা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে