Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-০২-২০১৬

‘ক্ষতিপূরণ নেতাগো মুখে, বাস্তবে নাই’

নেহাল হাসনাইন


‘ক্ষতিপূরণ নেতাগো মুখে, বাস্তবে নাই’

ঢাকা, ০২ মে- ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে একমাত্র উপার্জনের স্থানটি পুড়ে যাওয়ায় উপার্জনহীন হয়ে পড়েছেন কাওরান বাজারের হাসিনা মার্কেটের ব্যবসায়ীরা। অগ্নিকাণ্ডের সময় নেতারা ক্ষতিপূরণ দেয়ার আশ্বাস দিলেও বাস্তবে তা পূরণ করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন পুড়ে যাওয়া দোকানের মালিকেরা।

সোমবার সকালে সরেজমিনে উত্তর কাওরান বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি ঘুরে দেখা যায়, পুরো বাজার জুড়ে পরে আছে টিন আর ছাই। এর পাশেই বসে রয়েছেন দোকান মালিকরা। মেসার্স জনতা মসলা ভান্ডারের মালিক তরিকুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ‘আমার সব শেষ হয়ে গেছে। কাল কতবার কইরা ফায়ার সার্ভিসরে কইলাম আগে আমার দোকানের আগুনডা নেভান, কিন্তু হেরা শুনলো না।’

কি পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দোকানে প্রায় আড়াই লাখ টাকার মাল ছিল। সাথে কিছু নগদ টাকাও ছিল। ওগুলা সব পুইড়া ছাই হইয়া গেছে। সবাই শুধু ক্ষতিপূরণ দেয়ার আশ্বাস দিতাছে, কিন্তু বাস্তবে তার বালাইও নাই। ক্ষতিপূরণ নেতাগো মুখেই।’

তরিকুল ইসলামের পাশেই বসা ছিলেন স্টার মাহবুব বেডিং এর কর্ণধার মো. আলী বাবু। তার দোকানে ৭ থেকে ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘হেরা শুধু আশ্বাসই দিতাছে, ক্ষতিপূরণতো কিছুই পাইলাম না।’

বাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ওই বাজারে অনুমোদিত দোকান ছিল ১৮২টি। অনুমোদনহীন ছিল আরো ২০ থেকে ৩০টি দোকান। সবমিলে রোববার রাতের আগুনে মার্কেটের প্রায় ১৩ কোটি টাকার ওপরে ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা ব্যবসায়ীদের। 

এছাড়াও ওই মার্কেটে বেশ কয়েকটি সিম নিবন্ধনের বায়োমেট্রিক মেশিনও পুড়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের কারণ অনুসন্ধানে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অ্যাভিয়েশনের ঢাকা বিভাগের পরিচালক মোজাম্মেল হককে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস। 

উল্লেখ্য, রোববার রাত ৭ টা ৫৫ মিনিটে উত্তর কাওরান বাজার ব্যবসায়ী কল্যান সমিতিতে আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। টানা দুই ঘণ্টা চেষ্টার দমকলের ২৬টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। আগ্নিকাণ্ডের সময় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ব্যবসায়ীদের বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের বড় ক্ষতি হয়ে গেছে। এই ক্ষতি পুষিয়ে দেওয়ার জন্য যা করা দরকার, সরকার তা করার চেষ্টা করবে।’

উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক বলেন, ‘হাসিনা মার্কেটের আগুন একটি দুর্ঘটনামাত্র। ব্যবসায়ীদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, এটা দুঃখজনক ঘটনা। তবে উচ্ছেদ প্রক্রিয়ার সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই।’

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে