Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.2/5 (6 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-২৮-২০১৬

আজ চেন্নাইয়ে ৩৭ ডিগ্রি। ঠিক ২০০ বছর আগে যা হয়েছিল শুনলে চমকে যাবেন

আজ চেন্নাইয়ে ৩৭ ডিগ্রি। ঠিক ২০০ বছর আগে যা হয়েছিল শুনলে চমকে যাবেন

চেন্নাই, ২৮ এপ্রিল- ভ্যাপসা গরম কলকাতায়। চেন্নাইয়েও প্রায় একই অবস্থা। আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭-৩৮ ডিগ্রি হতে পারে। কিন্তু দু’শতক আগে কী হয়েছিল জানেন?

চেন্নাইয়ে (বা, মাদ্রাজই বলুন না-হয় আপাতত)  হাড়-কাঁপানো ঠান্ডা পড়েছে বললে বিশ্বাস করবেন? উল্টে বলে দেবেন, ‘‘পাগল।’’ এবার যদি বলি, চেন্নাইয়ে হাড়-কাঁপানো ঠান্ডা তো বটেই,  চেন্নাইয়ের তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নীচে, তা হলে কী বলবেন? উন্মাদ?

আজ থেকে ঘড়ি ধরে ঠিক ২০০ বছর পিছিয়ে যান। ১৮১৫ সালের ২৪ এপ্রিল, সোমবার তৎকালীন মাদ্রাজে সকালের তাপমাত্রা ছিল ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস!
কী ভাবছেন, এখানেই শেষ?

শুক্রবার, অর্থাৎ ২৮ এপ্রিল, ১৮১৫ তারিখে মাদ্রাজে সকালের তাপমাত্রা ছিল মাইনাস তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস! না, ঠাট্টা নয়, বাস্তব।

‘‘দ্য হিন্দু’’-তে লেখা হয়েছে যে, মাদ্রাজে বরফ পড়ার খবর পাওয়া গিয়েছিল। তবে তার সত্যতা যাচাই করা হয়নি। কিন্তু প্রশ্ন হল, মাদ্রাজে এই অবস্থা হয়েছিল কীভাবে?

১৮১৫ সালের এপ্রিলে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি মাউন্ট তামবোরায় অগ্নুৎপাত শুরু হয়েছিল। এপ্রিলের ১০ এবং ১১ তারিখ তামবোরায় যে বিস্ফোরণ ঘটেছিল, তা এককথায় বেনজির। ২,০০০ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত শোনা গিয়েছিল তার হুঙ্কার! আগ্নেয়গিরির উদ্গীরণে মারা যান ১২ হাজারের বেশি মানুষ।

আগ্নেয়গিরি থেকে ভেসে আসা ‘এয়ারোসল’ হাওয়ায় ভর করে ভারতের দিকে ধেয়ে এসেছিল দ্রুত। এই ‘এয়ারোসল’-এর কাজ হল সূর্য এবং পৃথিবী থেকে তাপ শুষে নেওয়া। মাদ্রাজে তার প্রভাব পড়েছিল। এবং সে কারণেই এই ঠান্ডা।

কিন্তু এর পরে যা হয়েছিল, তা বেশ খারাপ। একটি গোটা বছর গিয়েছিল শুখা। চাষ পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়, যার অনিবার্য পরিণতি হিসেবে উঠে এসেছিল খরা, রোগ, মৃত্যু। হাজার হাজার মানুষ মারা যান এতে।

আর/১৭:২৪/২৮ এপ্রিল

বিচিত্রতা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে