Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.7/5 (7 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-২৫-২০১৬

যে ১১ টি বিষয় হেয়ার স্টাইলিস্ট কখনও বলে না

যে ১১ টি বিষয় হেয়ার স্টাইলিস্ট কখনও বলে না

সুন্দর চুল চায় না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। একটি সুন্দর হেয়ারকাট দিয়েই যে কেউ পেতে পারেন অভিনব লুক। চুল কাটাতে আপনি হয়তো কোন ছবি নিয়ে যান কিংবা কথা বলে বুঝিয়ে দেন যে আপনি কেমনটা চাচ্ছেন। কিংবা কোন সেলিব্রেটির স্টাইল, যার মতো আপনি আপনার হেয়ারকাট করতে চাইছেন। কিন্তু হেয়ারকাট দেয়ার পর আপনি কি সেটি আপনার মনের মত পাচ্ছেন? 

তাই এখানে এমন ১১টি বিষয় উল্লেখ করা হল, যা আপনার হেয়ার স্টাইলিস্ট কখনও আপনাকে বলবে না, যতক্ষণ না আপনি তার কাছে পরবর্তী বার আসছেন।

সুন্দর চুলের জন্য অনেক কাজ করতে হবে, দুঃখিত

ছবিতে থাকা স্টাইলের সেই বিশেষ মাত্রায় পৌঁছানোর জন্য আপনার চুলকে আরও সুন্দর করতে হবে, যার জন্য প্রয়োজন কিছু কাজ। এটি করার জন্য আপনার আকর্ষণীয় চুল থাকতে হবে এবং তা চওড়া ও নিখুঁত হতে হবে। তবে মোটামুটি নিশ্চিতভাবে বলা যায়, এরকম নিখুঁত চুল বাস্তবে কারো নেই।

অবাক হওয়ার কিছু নেই- সেলিব্রেটিদেরও আপনার মতই চুল আছে
আমি, আপনি – সবার মতো সেলিব্রেটিরাও মানুষ। অন্তত যখন এটা শুধু চুলের ক্ষেত্রে বিবেচনা করা হয়। সেলিব্রেটিরা হেয়ারস্টাইলিস্ট, বাজারের প্রথম সারির প্রসাধনী এবং চুলের যত্নের জন্য প্রচুর খরচ করে থাকেন, যার সৌভাগ্য সবার হয় না। আপনি যদি এত খরচ করতে না চান, তাহলে প্রতিদিন সেলিব্রেটিদের মতো চুল নাও পেতে পারেন।

আপনার কি শুধু চুল পরিষ্কার করলেই চলে? আমারও
সত্যি কথা বলতে, পৃথিবীতে খুব অল্প মানুষই আছে যাদের চুল কেবল পরিষ্কার করলেই চলে। অনেককে দেখলে হয়তো এমন মনে হয়, কিন্তু এর জন্য অনেক কাজ করতে হয়। সঠিক শ্যাম্পু এবং হেয়ারকাট নির্বাচনের জন্য অনেক পরীক্ষা করতে হবে, স্টাইলিং কৌশল জানতে হবে এবং খুব সম্ভব তারা চুলে কিছু হেয়ার প্রোডাক্টস ব্যবহার করে থাকেন।

হেয়ার প্রোডাক্টস ব্যবহার করতে হবে
আপনি যদি চুলে হেয়ার প্রোডাক্টস ব্যবহার করতে না চান, তাহলে এই আশা করবেন না যে আপনার চুল এমন হবে যেমনটা আপনি চেয়েছেন। আপনি কি কখনও খেয়াল করেছেন, আপনার হেয়ার স্টাইলিস্ট হেয়ারকাটের সময় কী কী প্রোডাক্টস ব্যবহার করছেন। আপনি যদি এখনও ‘প্যান্টিন প্রো ভি’ কিংবা  ‘অ্যাকুয়া নেট’ ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে আপনার সময় হয়েছে প্রোফেশনাল প্রোডাক্টস বেছে নেওয়ার। নতুন প্রোফেশনাল প্রোডাক্টস গুলো অনেক কার্যকরী এবং এতে করে প্রতিদিন আপনি সদ্য পার্লার থেকে বের হওয়ার মতো চুল পাবেন।

আপনি ভুল প্রোডাক্ট ব্যবহার করছেন
আপনি হেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করছেন মানেই এই না যে আপনি সঠিক প্রোডাক্ট ব্যবহার করছেন। আপনি যদি একই প্রোডাক্ট ১০ বছর ধরে ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে এখন সময় হয়েছে আপনাকে বদলাবার। বিভিন্ন হেয়ার প্রোডাক্টস থেকে পরামর্শ নিন এবং বাসায় নিজে পরীক্ষা করে দেখে নিন।

পরিবর্তন আনা ভাল। পরিবর্তনকে হ্যাঁ বলুন
আপনি যদি নতুন কোন লুক চান, তাহলে চুলেও নতুন স্টাইল করুন। তাছাড়া সবসময় একই হেয়ারস্টাইল নিয়ে আপনি হয়তো খুশী না। অন্যদিকে সুন্দর একটি লুকের জন্য হেয়ার স্টাইলের ভূমিকা অনেক। এখানে স্টাইলিং হচ্ছে চাবিকাঠি। আপনার হেয়ার স্টাইলিস্টের কাছ থেকে উপদেশ নিয়ে নতুন নতুন হেয়ারকাট দিতে পারেন।

প্রথমে সফল না হলে বারবার চেষ্টা করুন
চুলকে নিয়ে নতুন নতুন জিনিস চেষ্টা করুন এবং কোন কিছুতে প্রথমে সফল না হলে আবার চেষ্টা করুন। সত্যি বলতে, হেয়ার স্টাইলিস্টরাও তাদের নিজেদের চুল নিয়ে পরীক্ষা করতে লম্বা একটি কঠিন সময় পার করে এসেছেন। যেমন, ফ্ল্যাট আয়রন দিয়ে চুল কোকড়া করা শেখা। একইভাবে সুন্দর চুল তৈরি করতেও।

আপনি যা চাচ্ছেন সেটা অসম্ভব
চুল নিয়ে হয়তো আপনার চাওয়া অনেক বেশি। তবে আপনার পছন্দের স্টাইলের জন্য দিনে যদি ৩০ মিনিটের দরকার হয়, সেখানে আপনি যদি ৫ মিনিট সময় দেন, তাহলে প্রত্যাশিত চুল পাওয়া তো সম্ভব না। চুলের জন্য আপনি কেমন শ্রম ও সময় দেন সেটা আপনার হেয়ার স্টাইলিস্টকে খুলে বলুন এবং সেই অনুযায়ী ম্যাচিং একটি হেয়ার স্টাইল পছন্দ করুন।

লম্বা চুলের জন্য কষ্টও বেশি
আপনার চুল যত লম্বা হবে, এর স্টাইলের জন্য শ্রম ও সময় উভয়ই তত বেশি দিতে হবে। আপনার চুলগুলো যদি অনেক বেশি পুরু হয় তাহলে সেটা একান্তই ভাগ্যের ব্যাপার। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটা হয় না।

আপনার চুলগুলো এখন আগের মতো নেই। অবস্থা অনুযায়ী এর যত্ন নিন
পার্লারের চেয়ার টাইম মেশিন নয়। বয়সের সাথে চুলও পরিবর্তিত হয়। ১৫ – ২০ বছর আগে আপনার কেমন চুল ছিল সেটা চিন্তা করলে চলবে না। বরং, এখন আপনার চুল কেমন আছে সেটার দিকে মনযোগ দিন।

আপনার হেয়ার স্টাইলিস্ট খুশী হবেন না যতক্ষন না আপনি খুশী হচ্ছেন
আপনার হেয়ার স্টাইলিস্ট চান যেন আপনাকে দেখতে সুন্দর লাগে এবং আপনার চুল নিয়ে আপনি খুশী হন। আপনার চুল নিয়ে তারা অনেক কষ্ট করেন এবং তারা চান যেন আপনি সেটা নিয়ে সন্তুষ্ট হতে পারেন। তারা চান আপনি যেন তার কাজকে ভালবাসেন, আপনার বন্ধুদেরকেও এটা বলেন এবং ছয় সপ্তাহ পর আবার সেখানে যেতে আগ্রহী হন। আপনি যদি তার কাজকে পছন্দ না করেন, তাহলে সেটা তাকে জানান। আর যদি পছন্দ করেন, তাহলেও জানান।

আর/১০:০৪/২৫ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে