Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.5/5 (21 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-২৫-২০১৬

ঠিকাদারি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে টুকু হত্যা

ঠিকাদারি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে টুকু হত্যা

রাজশাহী, ২৫ এপ্রিল- রাজশাহীতে ঠিকাদারি ব্যবসা নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে পরিকল্পিতভাবে জেলা আওয়ামী লীগের নেতা ও রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক প্রশাসক জিয়াউল হক টুকুকে হত্যা করা হয়েছে। এমন দাবি করেছে নিহতের পরিবার ও ঘনিষ্টজনরা।

ঘটনার পর কৌশলে পালিয়ে যাওয়া নয়ন নামে ঢাকার এক যুবক ফোনে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করলেও গত ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও তার হদিশ পায়নি পুলিশ। হত্যাকাণ্ডে যুক্ত আরো দুইজন পলাতক রয়েছে। তবে এ ঘটনায় পুলিশ টুকুর স্থানীয় দুই বন্ধু রবিউল ইসলাম ও জসিম উদ্দিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

এদিকে, পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ এনে নিহত টুকুর স্ত্রী সামশুন্নাহার লতা সোমবার (২৫ এপ্রিল) নগরীর বোয়ালিয়া থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। মামলায় টুকুর ব্যবসায়িক বন্ধু ঢাকার একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নয়ন, রাজশাহী নগরীর তরিকুল ইসলাম ও অজ্ঞাত একজনকে আসামি করার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন নিহত টুকুর স্বজনরা। এদিকে, এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে আরো চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে, রাজশাহীর বরেন্দ্র বহুমূখি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিএমডিএ) একটি কাজ পায় আওয়ামী লীগ নেতা টুকুর মেসার্স প্রমিনেন্ট কনস্টাক্টশন। এ কাজে তার সঙ্গে পার্টনার হিসেবে যুক্ত হয় ঢাকার একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এ কাজ নিয়ে ঢাকার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে টুকুর দেনা-পাওনা ছিলো। এ নিয়ে দ্বন্দ্বও চলে আসছিলো।

আজ থেকে ১০ দিন আগে টুকু ঢাকায় গিয়ে তার পাওনা পরিশোধের জন্য চাপ সৃষ্টি করেছিলো। এরপর দুদিন আগে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান থেকে নয়নকে রাজশাহীতে পাঠানো হয়। দুদিন থেকে নয়ন রাজশাহীতেই অবস্থান করছিলো।

গত রোববার (২৪ এপ্রিল) একসঙ্গে তারা টুকুর চেম্বারে বসে দুপুরের খাবারও খান। সেখানেই টেবিলে থাকা টুকুর লাইসেন্স করা পিস্তল দিয়ে পেছন থেকে তাকে গুলি করা হয়। এসময় অপর দুই বন্ধু জসিম ও রবিউল বাইরে থাকলেও তরিকুল ও অজ্ঞাত একজন ঘরেই ছিলো।

সেখানে নাটক সাজিয়ে প্রচার করে টুকু তার পিস্তল পরিষ্কার করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়। তাৎক্ষণিক এ তথ্য সাংবাদিকদেরও জানানো হয়। তবে সন্ধ্যার পর হত্যাকাণ্ডের রহস্য বেরিয়ে আসে। এরপর থেকেই আত্মগোপনে চলে যায় ঢাকার যুবক নয়ন, স্থানীয় তরিকুল ও অজ্ঞাত একজন। টুকুর ঘনিষ্টরা জানায়, নয়ন পেশাদার খুনি। ব্যবসায়িক হিসেব-নিকেশ নিয়েই তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

এদিকে, জিয়াউল হক টুকুকে পেছন থেকে গুলি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. এনামুল হক। ময়না তদন্ত শেষে তিনি জানান, টুকুকে পেছন থেকে গুলি করা হয়েছে। পিঠের দিকে যে ফুটো আছে তা তুলনামূলক ছোট। এছাড়াও বুকের হাড়ের ভেতরের অংশে গুলির জখম পাওয়া গেছে। এ থেকে বিষয়টি বোঝা যায় যে, টুকুকে পিঠের সাইড থেকে গুলি করা হয়েছে। গুলি হাড়ের ভেতরের অংশ জখম করে অল্প উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়। এছাড়াও গুলিতে টুকুর ফুসফুসের নিচের অংশ জখম হয়।

অধ্যাপক ডা. এনামুল হক জানান, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এখনো দেয়া হয়নি। কয়েকদিনের মধ্যে টুকুর বিস্তারিত ময়নাতদন্তের রিপোর্ট জমা দেয়া হবে। রোববার (২৪ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে তার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

রাজশাহী চেম্বার অব কর্মাসের সাবেক প্রশাসক জিয়াউল হক টুকুর দাফন সোমবার সম্পন্ন হয়েছে। বেলা ১০টায় নগরীর শহীদ কামারুজ্জামান চত্বরে জানাজা শেষে তাকে হেতেম খাঁ কবরস্থানে দাফন করা হয়। তার জানাজায় রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের দায়িত্ব প্রাপ্ত মেয়র নিযাম উল আযিম, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খানছাড়াও বিভিন্ন পেশা ও শ্রেণির মানুষ অংশ নেন।

প্রসঙ্গত, ২৪ এপ্রিল বিকেল সাড়ে চারটার দিকে নগর ভবনের সামনের ব্যবসায়িক চেম্বারে বন্ধু নয়নের হাতে থাকা পিস্তুলের গুলিতে নিহত হন টুকু। এ ঘটনায় নগরীতে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ চেম্বার থেকে পিস্তল ও কনস্টাক্টশনের কাগজপত্রও জব্দ করেছে।

এফ/২২:৩৯/২৫এপ্রিল

রাজশাহী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে