Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-২৫-২০১৬

চার বছরে সীমান্তে ১৪৬ বাংলাদেশি খুন

চার বছরে সীমান্তে ১৪৬ বাংলাদেশি খুন

ঢাকা, ২৫ এপ্রিল- গত চার বছরে (২০১২-১৫) সীমান্তে ১৪৬ জন বাংলাদেশি ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ ও সে দেশের নাগরিকদের হাতে নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন।

সোমবার সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ২০১২ সালে বিএসএফ কর্তৃক ২৪ জন এবং ভারতীয় নাগরিক কর্তৃক ১০জন, ২০১৩ সালে বিএসএফের হাতে ১৮ জন এবং ভারতীয় নাগরিকের হাতে ১০ জন বাংলাদেশি নিহত হয়েছে।

এছাড়া ২০১৪ সালে বিএসএফের হাতে ২৪ জন এবং ভারতীয় নাগরিকের হাতে ১৬ জন, ২০১৫ সালে বিএসএফের হাতে ৩৮ জন এবং ভারতীয় নাগরিকের হাতে একজন বাংলাদেশি নিহত হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

চলতি বছরের ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত বিএসএফের হাতে পাঁচজন বাংলাদেশি মারা গেছে বলে জানান তিনি।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ সীমান্ত রক্ষার পাশাপাশি সীমান্তে বসবাসকারী জনসাধারণের সার্বিক নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনে বদ্ধপরিকর থাকলেও বিভিন্ন কারণে সীমান্তে বিচ্ছিন্নভাবে হত্যাকাণ্ড ঘটছে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান।

“সীমান্ত হত্যা বন্ধের প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সর্বোচ্চ পর্যায়ে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইতোমধ্যে সীমান্তরক্ষী বাহিনী প্রাণঘাতী মারণাস্ত্রের পরিবর্তে নন-লিথ্যাল উইপন (সাউন্ড গ্রেনেড, রাবার বুলেট ইত্যাদি) ব্যবহার করছে।”

মন্ত্রী জানান, সর্বশেষ গত বছরের ২-৭ অগাস্ট ভারতে অনুষ্ঠিত বিজিবি-বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ের সম্মেলনে বিজিবি মহাপরিচালকের সুনির্দিষ্ট কর্মপন্থা নির্ণয়ের আহ্বানের প্রেক্ষিতে বিএসএফ মহাপরিচালক বাংলাদেশি নাগরিক হত্যার ঘটনা শূণ্যের কোটায় নামিয়ে আনতে একমত হন।

তিনি বলেন, “বিভিন্ন সীমান্ত অপরাধ, বিশেষ করে সীমান্ত এলাকায় মাদক ও গরু পাচার এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট অবৈধ সীমান্ত পারাপার বন্ধ করতে সীমান্তে বিজিবির টহল তৎপরতা উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি করা হয়েছে।”

আরেক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “বঙ্গোপসাগরের নিরাপত্তায় কোস্ট গার্ডের জলযান ও জনবল স্বল্পতা রয়েছে। তবে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২০২০, ২০২৫ ও ২০৩০ সালের মধ্যে কোস্টগার্ডকে স্বয়ংসম্পূর্ণ বাহিনীতে পরিণত করা হবে।

“এর অংশ হিসেবে ২০১৮ সালের মধ্যে কোস্টগার্ডের বহরে ৯টি জাহাজ ও ৬টি বোট যুক্ত হবে। এতে নদী ও সাগরে বাংলাদেশের মৎস্য শিকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে।” 

অন্য একটি প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, নাজিম উদ্দিন রোড থেকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার স্থানান্তরের পর জাতির পিতা ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি জাদুঘর জনগণের জন্য উন্মুক্ত করা হবে।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে