Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৯-২০১৬

দেবতা জিউসের মজার কিছু তথ্য

আফসানা সুমী


দেবতা জিউসের মজার কিছু তথ্য

গ্রীক দেবতা জিউসের নাম জানি আমরা সবাই। তার মত বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় দেবতা হয়তো আর কেউ নেই। তার মানসপুত্র হারকিউলিসও অনেক জনপ্রিয়। তাকে নিয়ে নির্মিত হয়েছে কত চলচ্চিত্র, টিভি সিরিয়াল। আজও হচ্ছে, হবে ভবিষ্যতেও। আসুন জেনে নিই জিউস সম্পর্কে মজার কিছু তথ্য।

১। খ্রিষ্ট ধর্ম, ইসলাম, জুডাইজম, বৌদ্ধ ধর্ম এবং অন্য সকল ধর্ম প্রবর্তনের আগে জিউস ছিল একমাত্র ঈশ্বর যে কিনা সারা পৃথিবীতে খ্যাত এবং জনপ্রিয় ছিল। গ্রীসের অধিপতি আলেকজান্ডারের হাত ধরে জিউস পাড়ি দিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দিকে। রোম সাম্রাজ্যের উথানের সাথে সাথে জিউস অধিকার করে নেয় তাদের দেবতার পদ। এভাবে বড় দুইটি সভ্যতার ঈশ্বর এবং বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের পূজনীয় জিউস হয়ে ওঠে একক আধিপত্য বিস্তারকারী।

২। তাঁর প্রিয় পাখি ছিল সোনালী ঈগল, যা তিনি বহন করতেন সবসময় তাঁর সাথেই। তাঁর মতই ঈগলটি ছিল শক্তির প্রতীক, সাহস এবং ন্যায় বিচারের প্রতীক। পরবর্তীতে এটি হয়ে ওঠে প্রাচীন রোমের প্রতীক, বিশেষ করে রোমান লিগনের পরিচায়ক হয় ঈগল।

৩। বিশ্বাস করা হত, জিউস সবসময় কথা দিয়ে কথা রাখেন এবং  তাদেরকে শাস্তি দেন যারা কথা রাখেন না এবং অন্যের কাজে দখল দেন।

৪। অলিম্পিয়ায় সকল গ্রীক নাগরিক তাদের প্রধান দেবতার নিকট নৈবেদ্য দান করতেন। সেখান থেকেই বিখ্যাত অলিম্পিক গেমস এর প্রচলন যা প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হয় দেবতে জিউসের সম্মানে।

৫। যদিও ওরাকল সাইটগুলো সাধারণত দেবতা এপোলো বা অন্যান্য দেবতা, থেমিসের মত জনপ্রিয় দেবীদেরকে উৎসর্গ করা হয়, কিন্তু লেবাননের বা'আল ছিল জিউস সম্পর্কিত যাকে ল্যাটিনরা বলে জুপিটার।

৬। জেরুজালেমের জুদাইন মন্দিরে সম্রাট এন্টিওচাস একটি মূর্তি সনাক্ত করেন যা ছিল দেবতা জিউস অলিম্পিয়াসের মূর্তি। পরবর্তীতে হেলেনিজড জিউএস মূর্তিটিকে বা'আল সামেন হিসেবে চিহ্নিত করেন যার অর্থ 'স্বর্গের দেবতা'।

৭। জিউস ছিল ক্রনোস এবং রেয়ার সন্তান, তার ধারার সর্বোকনিষ্ঠ শিশু, যদিও অনেক সময় বলা হয় সে সবচেয়ে প্রবীন।

৮। জিউসকে তার বাবার কাছ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল। কারণ একজন বলেছিল, তার সন্তানদের একজনই তাকে সিংহাসনচ্যুত করবে। তখন রেয়া তাকে ক্রীটের মাউন্ট ইডার একটি গুহায় লুকিয়ে রাখেন এবং গায়ার কাছে সাহায্য প্রার্থণা করেন।

৯। অন্য একটি উপকাথায় বলা হয়, জিউসকে আমেলথিয়া নামক ছাগলের পিঠে চড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল এমন একটি জায়গায় যেখানে সেনারা চিৎকার করছিল, নিজেদের অস্ত্র দ্বারা শব্দ তৈরি করছিল যাতে শিশুর কান্না কেউ শুনতে না পায়।

১০। যদিও বিদ্যুৎ এবং আলোর দেবতা হিসেবে জিউসের নাম শোনা যায়, কিন্তু জিউস বৃষ্টির দেবতাও ছিল। তিনি সবসময়ই প্রকৃতির সাথে জড়িত ছিলেন। শস্য, ঝড়, আবহাওয়া সব মিলিয়ে তিনি ছিলেন সার্বিক দেবতা।

লিখেছেন- আফসানা সুমী

এফ/১৭:৩০/১৯ এপ্রিল

জানা-অজানা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে