Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.2/5 (17 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৯-২০১৬

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজের সন্ধানে দক্ষিণে ছুটছে মানুষ

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজের সন্ধানে দক্ষিণে ছুটছে মানুষ

দিনাজপুর, ১৯ এপ্রিল- জেলার পার্বতীপুর রেলওয়ে স্টেশনে প্রচণ্ড ভিড়। ঈদে কিংবা বিশ্বইস্তেমা থেকে ঘরে ফেরার দৃশ্য নয় এটি। জীবন-জীবিকার টানে কৃষি শ্রমিকরা প্রতিদিন দলবেঁধে ট্রেনে চড়ে ছুটছেন দক্ষিণে। তারা মাসখানেকের জন্য বাড়িতে রেখে যাচ্ছেন মা-বাবা, বউ-ছেলেমেয়েকে।
 
ট্রেনের ভেতরে কোনো জায়গা নেই। তারপরও উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার কৃষি শ্রমিকরা রোজগারের আসায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রেনের ছাদে চড়ে কাজের সন্ধানে ছুটছে দক্ষিণের জনপদে।   
  
শ্রমিকরা জানান, দিনাজপুরসহ বৃহত্তর রংপুর বিভাগের কয়েকটি জেলার মানুষ ঠিক এ সময় প্রতি বছরের মতো এ বছরেও কাজের সন্ধানে কাস্তে হাতে, ব্যাগে কিছু কাপড়-চোপড় নিয়ে ছুটে চলছেন দক্ষিণে। দক্ষিণাঞ্চলে কোথাও কোথাও বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে আবার কোথাও সপ্তাহ খানেকের মধ্যে কাটা-মাড়াই শুরু হতে পারে।   

দক্ষিণে একটু আগেই ইরি-বোরো জাতের ধান কাটা-মাড়াই শুরু হয়। আর সেখানকার কাজ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের নিজ এলাকায়ও ধান কাটা-মাড়াই শুরু হওয়ার সময় হয়। তখন তারা নিজ এলাকায় ফিরে আসেন।

সোমবার সকাল ১১টায় পার্বতীপুর রেলওয়ে স্টেশনের ৪নং প্লাটফরমে কথা হয় নীলফামারী জেলার কিশোরীগঞ্জ থেকে আসা আ. লতিফের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘অভাব-অনটনের সংসারে বৃদ্ধ বাবা-মা ও সন্তানের মলিন মুখের দিকে তাকিয়ে দু’পয়সা উপার্জনের আশায় রোজগার করতে যাচ্ছি।’ 

এভাবে অনেকেই জানিয়েছেন তাদের নানা দুঃখ-দুর্দশার কথা। এ সময় উত্তরাঞ্চলে মাঠে কোনো কাজ না থাকায় কৃষি মজুররা দলবেঁধে কাজের সন্ধানে ছুটে যাচ্ছেন দক্ষিণের বিভিন্ন জেলায়। বিশেষ করে পাঁচবিবি, জয়পুরহাট, আক্কেলপুর, তিলকপুর, সান্তাহার, আদমদীঘি, আত্রাই, নওগাঁ, নাটোর ও বগুড়ার বিভিন্ন উপজেলায়। 
 
ট্রেনযাত্রী কৃষিশ্রমিক রুস্তম আলী (৩৫) বলেন, ‘গত বছর সান্তাহার ও নওগাঁয় যেসব গৃহস্থ বাড়িতে কাজ করেছিলাম তাদের সবার মোবাইল নম্বর নিয়ে এসেছি। ধান পেকেছে জানিয়ে ফোন করায় এবারও নওগাঁয় যাচ্ছি।’ 

রুস্তম আলীর দলে শ্রমিকের সংখ্যা ১৪। তিনি জানান, গত বছর তারা গড়ে প্রতিদিন খরচ বাদে ৬ থেকে ৭শ টাকা আয় করেছে। এবারও সে আশাতেই যাচ্ছেন। 

কৃষি শ্রমিকরা জানায়, দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোতে যাতায়াতের সহজ ও সাশ্রয়ী মাধ্যম হচ্ছে ট্রেন। তাই উত্তরাঞ্চলের অধিকাংশ শ্রমিক খুলনা, রাজশাহী ও ঢাকাগামী বিভিন্ন মেইল ও আন্তঃনগর ট্র্র্র্রেনে যাতায়াত করে থাকে। 

পার্বতীপুর মন্মথপুর গ্রামের কৃষক ভরত চন্দ্র জানান, দেশে এখন আর কোনো মানুষই বেকার বসে থাকে না। বছর জুড়ে দেশের কোনো না কোনো স্থানে ধান ভুট্টা, গম, আলু, কলা, কালাই, শাক-সবজি ক্ষেতে কাজ লেগেই থাকে। কখনো কাজের অভাব দেখা দিলে হয় তারা রিকশা-ভ্যান চালায়। আর তা না হলে হাট-বাজারে কিংবা গ্রামে গ্রামে বিভিন্ন পণ্য ফেরি করে জীবিকা নির্বাহ করে।

দিনাজপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে