Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৮-২০১৬

বখাটেদের চিহ্নিত করাই ছিল আমার উদ্দেশ্য: মাকসুদ

বখাটেদের চিহ্নিত করাই ছিল আমার উদ্দেশ্য: মাকসুদ

ঢাকা, ১৮ এপ্রিল- প্রায় ত্রিশ বছর ধরে বাংলা নববর্ষ উদযাপনে ছেলে-মেয়েরা তুমুল আনন্দে গেয়ে আসছে জনপ্রিয় শিল্পী মাকসুদের গাওয়া ‘মেলায় যাইরে’ গানটি! সম্প্রতি গানটির কিছু শব্দ, কথা নিয়ে উঠেছে তুমুল বিতর্ক। অনেক নারীবাদী সংগঠন থেকে শুরু করে সুশীল সমাজেরও কেউ কেউ এই জনপ্রিয় গানটির কিছু কথা পরিবর্তনের দাবী তুলছেন। আর নিজের গান নিয়ে হঠাৎ চারদিকে সমালোচনা ছড়িয়ে পড়ায় চুপ করে থাকতে পারেননি শিল্পী ও কবি মাকসুদ। বললেন, যে ‘বখাটে’ শব্দটিকে নব্য নারীবাদী গোষ্টি ‘আপত্তিকর’ বলে দাবী তুলছেন ওই শব্দটি দিয়েই তিনি বাংলার কুলাঙ্গারদের চিহ্নিত করতে চেয়েছেন!  

গানটি লিখেছিলেন ১৯৮৮ সালে। এরপর থেকে গত প্রায় ত্রিশ বছর ধরে বাংলার মানুষের মুখে মুখে ফিরেছে গানটি। অথচ হঠাৎ করে গানের শব্দ পরিবর্তন করার দাবীকে অযৌক্তিক বলে দাবী করে মাকসুদ বলেন, ‘১৯৮৮তে গানটি লেখার সময় এই শব্দ(বখাটে) ব্যবহার করতে বাধ্য হয়েছিলাম। কারণ ভদ্র ভাষায় এই সকল কুলাঙ্গার দানবদের সনাক্ত করতে এর চেয়ে 'শক্ত গালি' আমার কাছে ছিল না।’ 

তিনি কেন গানে বখাটে শব্দটি ব্যবহার করেছেন, তারও যুক্তি দিয়েছেন মাকসুদ। গানে গানে বখাটেদের চিহ্নিত করায় তার উদ্দেশ ছিল জানিয়ে তিনি জানান, ‘সব 'ছেলে' বখাটে না, এবং ১৬ কোটি মানুষের এই দেশে বখাটের সংখ্যা খুব বেশি হলে কয়েক হাজার। এদেরকে সরাসরি চিহ্নিত করাই ছিলো আমার উদ্দেশ্য। এবং 'বখাটে' অর্থ 'দুষ্ট' না| 'দুষ্ট' বলেও ২০১৫ দুঃখজনক ঘটনার পর এক মহল এদের 'জায়েজ' করার চেষ্টা চালাচ্ছে। 'রাজাকার' শব্দ কর্তন করে যেমন রাজাকার বিরোধী আন্দোলন সম্ভব না - একই ভাবে এই গানটির মেসেজ 'বখাটে' বাদ দিয়ে কেবল অনর্থই দাড়াবে’।

যারা ‘মেলায় যাইরে’ গানটিতে হঠাৎ করে দীর্ঘদিন পর এসে ‘বখাটে’ শব্দটিকে নিতে পারছেন তাদেরকে তথাকথিত ‘প্রগতিশীল’ ও নব্য ‘নারীবাদী’ আখ্যা দিয়ে মাকসুদ বিচলিত নন জানিয়ে বলেন, ‘এই 'গালি' যারা হজম করতে পারছে না, তারা এবং কিছু তথাকথিত নব্য 'প্রগতিশীল' 'নারীবাদি' রা এই ফালতু 'ক্যাম্পেইন' করছে কেবলই আমাকে 'পেইন' দিতে। তাতে কোনো লাভ নেই। আমি মোটেও বিচলিত নই। কারণ আমার দেহে এর চেয়ে অনেক 'শক্ত পেইন কিলার' আছে এবং সব সময় থাকবে।’

তবে এত কেম্পেইন আর বিভিন্ন ফোরাম থেকে তার গানে শব্দ পরিবর্তনের দাবীকে নাকচ করে দিয়ে মাকসুদ বলেন, খুব কষ্ট পেয়েছি এই যাত্রা বাঙালির 'সৃষ্টিশীলতার' করুন অবস্থা দেখে। 'শব্দ/লাইন পরিবর্তন' এর দাবি উঠেছে কিন্তু এর পরিবর্তে কি শব্দ/লাইন হতে পারে তার অত্যন্ত দুর্বল নমুনা এসেছে বহু জায়গা থেকে, বহু ফোরাম থেকে। তাই আমার গানের লাইন অপরিবর্তিত রেখে একটা কাউন্টার কেম্পেইন হতে পারে- ‘ললনারা দৌড়ান দিলে, বখাটেদের রেহাই নাই।’

প্রসঙ্গত, ‘বখাটে ছেলের ভিড়ে ললনাদের রেহাই নাই’ লাইনটির পরিবর্তন করার দাবি উঠেছে সর্বশেষ পহেলা বৈশাখে। শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে ফেস্টুন প্ল্যাকার্ড হাতে ‘মেলায় যাইরে’ গান থেকে ওই লাইনটি বাদ দেয়ার আহ্বান জানান তারা।

এফ/১৭:০৫/১৮ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে