Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.4/5 (9 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৮-২০১৬

আটলান্টিক সিটিতে জমজমাট বাংলা বর্ষবরণ

সুব্রত চৌধুরি


আটলান্টিক সিটিতে জমজমাট বাংলা বর্ষবরণ
সাংস্কৃতিক পরিবেশনা

ওয়াশিংটন, ১৮ এপ্রিল- কালের বিবর্তনে আরও একটি বাংলা বছর মহাকালের গর্ভে হারিয়ে যাওয়ার পর পুরোনো বছরের যত গ্লানি, খেদ, আবর্জনা দূর করে নতুন বছরকে বরণ করার আনন্দ-উচ্ছ্বাস সারা বাংলাদেশ জুড়ে প্রবহমান। তার ঢেউ এসে আছড়ে পড়েছে সুদূর আমেরিকার নিউজার্সি অঙ্গরাজ্যের আটলান্টিক মহাসাগর বিধৌত আটলান্টিক সিটিতেও।

এরই ধারাবাহিকতায় ১৪ এপ্রিল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা নামতেই আটলান্টিক সিটিপ্রবাসী বাংলাদেশিদের সব পথ যেন এসে মিশেছিল একটি মোহনায়। আর সে মোহনা হলো স্থানীয় হাওয়ার্ড জনসন হোটেলের অডিটোরিয়াম। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব আটলান্টিক কাউন্টির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত নববর্ষ বরণ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বয়সী প্রবাসীরা বাঙালিত্বের জয়গান গাইতে গাইতে বর্ষবরণের মহাযজ্ঞে শামিল হয়েছিলেন। রং-বেরঙের বাহারি পোশাকে তাদের সদর্প পদচারণায় কাদা থিক থিক ভিড়ে অনুষ্ঠানস্থল হয়ে উঠেছিল ক্ষণিকের জন্য একখণ্ড মিনি বাংলাদেশ।


সাংস্কৃতিক পরিবেশনা

সঞ্চালকের কণ্ঠ ইথারে ভেসে আসতেই বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা ঘটে। এরপর নববর্ষের শুভেচ্ছায় সমবেত প্রবাসীদের সিক্ত করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শহীদ খান, সংগঠক মিরাজ খান ও এনজে ২৪ বাংলা টিভির পরিচালক মুহাম্মদ এনামুল হক চৌধুরী। এরপর এই ধরনীর সব অন্ধকার ও কুসংস্কার দূর করার মানসে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্বলন করেন সংগঠনের সভাপতি সেলিম সুলতান।

প্রবাসে ভিন্ন সংস্কৃতিতে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের শিশু-কিশোররা যাতে আবহমান বাংলার ঐতিহ্যবাহী কৃষ্টি-সংস্কৃতি অন্তরে ধারণ করে লালন-পালন করতে পারে তারই প্রয়াসে শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শুরুতেই সমবেত কণ্ঠে শিশু-কিশোররা পরিবেশন করে এসো হে বৈশাখ গান। সঙ্গে পরিবেশিত হয় সমবেত নৃত্য। এরপর শিশু-কিশোররা পরিবেশন করে দলীয় সংগীত ও নৃত্য। সংগীত শিল্পী সান্ত্বনা রায় চৌধুরী ও।


অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী কয়েকজন খুদে শিল্পী

কোরিওগ্রাফার নিবেদিতা ভট্টাচার্যের পরিচালনায় শিশু-কিশোরদের এই পরিবেশনা সবাইকে মোহিত করে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সংগীত পরিবেশন করেন শম্পা জামান, শহীদ আহমেদ, নাহিদ, কাজল ও রহমান। তাদের অক্টোপ্যাডে সহযোগিতা করেন সাত্তার মাহমুদ। কিবোর্ডে সহযোগিতা করেন নাইস চৌধুরী। সংগীতানুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল বাংলাদেশের জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সংগীতশিল্পী চন্দন চৌধুরীর মনোজ্ঞ সংগীত পরিবেশনা। অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ঝুলন কবিতাটি আবৃত্তি করেন বাচিক শিল্পী সুব্রত চৌধুরি। সমগ্র অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক জয়ন্ত সিনহা ও উত্তর আমেরিকার জনপ্রিয় উপস্থাপিকা রুহিদা হাসিন।

বৈশাখী মেলার বিভিন্ন স্টলে বাংলার ঐতিহ্যবাহী চারুকারু, পিঠে-পুলি, বুটিক, পোশাক-পরিচ্ছদ, গয়নাসহ নানারকম দেশীয় পণ্যের সমাহার ছিল। এসব স্টলে বিকিকিনি ছিল নজর কাড়া।। নববর্ষের অনুষ্ঠান সফল ও সার্থক করার জন্য বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপন কমিটি ২০১৬-র কর্মকর্তারা যারা নিরলস পরিশ্রম করেছেন তারা হলেন আহ্বায়ক মিরাজ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক জয়শ্রী দে ও বিপ্লব দেব, প্রধান সমন্বয়কারী মিল্টন চৌধুরী, সমন্বয়কারী এম এ করিম ও বিপ্লব দাশ, সদস্যসচিব আবদুর রব ও যুগ্ম সদস্যসচিব রাজেশ দাশ ও রওশন আলী। বৈশাখী মেলার স্টল ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন সোহাগ করিম ও মো. ইসমাইল। নববর্ষ অনুষ্ঠানের ব্যাপক প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন সংগঠনের প্রচার সম্পাদক শেখ সেলিম।


অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী কয়েকজন খুদে শিল্পী

বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপনের এই বিশাল কর্মযজ্ঞের ব্রডকাস্ট পার্টনার ছিল রেডিয়েণ্ট আইপিটিভি ও মিডিয়া পার্টনার ছিল এনজে ২৪ বাংলা টিভি চ্যানেল। নববর্ষ অনুষ্ঠানের সমগ্র আয়োজনটি অনুষ্ঠানস্থল থেকে এনজে ২৪ বাংলা টেলিভিশন চ্যানেল সরাসরি সম্প্রচার করে।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব আটলান্টিক কাউন্টির সভাপতি সেলিম সুলতান ও সাধারণ সম্পাদক শহীদ খান বাংলা নববর্ষের অনুষ্ঠানে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ব্যাপকভাবে অংশগ্রহণ করে এই অনুষ্ঠানকে সফল ও সার্থক করে তোলায় প্রবাসীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মধ্যরাত পার হয়ে যাওয়ার পর যখন নিভে আসে মঞ্চের আনন্দ আলো, তখন প্রবাসীরা পথ ধরে আপন ডেরায়। তাদের কর্ণ কুহরে তখনো ধ্বনিত হতে থাকে মেলায় যাই রে, মেলায় যাইরে...।

এফ/০৮:১৯/১৮ এপ্রিল

যূক্তরাষ্ট্র

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে