Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৪-১৮-২০১৬

তিনবার খারিজ হওয়ার পর ফের হাইকোর্টে যাচ্ছেন খালেদা

তিনবার খারিজ হওয়ার পর ফের হাইকোর্টে যাচ্ছেন খালেদা

ঢাকা, ১৮ এপ্রিল- জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বাদীকে নতুন করে জেরার অনুমতি চেয়ে ফের উচ্চ আদালতে যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। 

রোববার ঢাকার বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী তৃতীয় বিশেষ জজ আদালত-৩-এর বিচারক আবু আহমেদ জমাদার দ্বিতীয় দফা বাদিকে জেরার অনুমতি চেয়ে করা আবেদন খারিজ করে দেয়ার পর  এ সিদ্ধান্ত নেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও মামলার বিবাদী বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। 

হাইকোর্টে এই আপিল আবেদন করার জন্য আদালতে প্রয়োজনীয় সময়ও চেয়েছেন বেগম জিয়ার আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী।

এর আগে বাদী দুদক কর্মকর্তা হারুন-অর-রশিদের পুনরায় সাক্ষ্য গ্রহণ চেয়ে খালেদা জিয়ার আবেদন খারিজ করে দেন আদালত। দ্বিতীয় আবেদনও খারিজ করে দেন আদালত। 

এ বিষয়ে একটি আপিল করেছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। সেটাও খারিজ করে দেন আদালত। এ নিয়ে আপিল বিভাগে গেলে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখেন আপিল বিভাগ ।

এছাড়া দুদকের এ মামলায় খালেদা জিয়া লিভ টু আপিল করেন। হাইকোর্টে শুনানি শেষে ওই আপিলও খারিজ হয়ে যায়। এবার নতুন করে বাদীর জেরা গ্রহণের জন্য হাইকোর্টে আপিল করার কথা জানালেন বেগম জিয়ার আইনজীবীরা।

উল্লেখ্য, গত ৭ এপ্রিল মামলার দুই আসামি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজেদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায় বিচারের প্রত্যাশা করেন। সেদিন বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থতাজনিত কারণে আদালতে হাজির না হওয়ায় সময়ের আবেদন করেন তার আইনজীবীরা।

আদালত সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে ১৭ এপ্রিল আত্মপক্ষের সমর্থন ও যুক্তি উপস্থাপনের জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। মামলায় ৩২ জন সাক্ষ্য দেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছের তখনকার সহকারি একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

এস/০১:২০/১৮ এপ্রিল

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে