Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (26 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৭-২০১৬

উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬০০ অবৈধ বিদ্যুত সংযোগ

ওবাইদুল হক চৌধুরী


উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬০০ অবৈধ বিদ্যুত সংযোগ

কক্সবাজার, ১৭ এপ্রিল- কক্সবাজারের উখিয়া পল্লী বিদ্যুতের অসহনীয় লোডশেডিং এর কারনে চলমান এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থী ছাত্র/ছাত্রীদের পড়ালেখায় সিমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দিনে রাত্রে বেশির ভাগ সময় বিদ্যুৎ না থাকার কারনে দুর্বিসহ হয়ে পড়েছে জনজীবন। পুরো উপজেলার লোডশেডিং এর কারন অনুসন্ধান করতে গিয়ে পাওয়া গেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। শুধুমাত্র কুতুপালং রোহিঙ্গা বাজারে ৫০ টি মিটার থেকে দেওয়া হয়েছে প্রায় ৬০০ অবৈধ সংযোগ।

একটি বাজারের অবৈধ সংযোগের কারনে উখিয়ার সর্বত্র লোডশেডিং বেড়েছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। ডিজিএম নুর হোসেন বললেন বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

সম্প্রতি সরজমিন কুতুপালং রোহিঙ্গা বাজার ও ক্যাম্প পরিদর্শন করে দেখা গেছে, কক্সবাজার টেকনাফ সড়কের কুতুপালং বাজার লাগোয়া বস্তির ভেতর আর একটি শহর। যেন চঠ্রগ্রামের রিয়াজউদ্দিন বাজার। ছোট ছোট গলিতে মোবাইল, ফামেসী, জুয়েলারী সহ শত শত দোকান। প্রতিটি দোকানেই ব্যাপক আলোকসজ্জা। চলছে টিভি, ফ্রিজ, কম্পিউটার। নাম পরিচয় গোপন করে জানতে চাইলে রোহিঙ্গা ফার্মেসী মালিক জসিম উদ্দিন, খাইরুল আমিন কম্পিউটার দোকানী ছৈয়দ হোসন জানান, স্থানীয় সাবেক মেম্বার বখতিয়ার মেীলভীর কাছ থেকে তারা বিদ্যুাৎ সংযোগ গুলো নিয়েছে। তারা জানান, প্রায় ৫০ টি মিটার থেকে ৬০০ সংযোগ দেওয়া হয়েছে কুতুপালং বস্তি বাজার ও ক্যাম্পে। প্রতিটি দোকান থেকে বিদ্যুৎ বাবদ মাসিক ভাড়া নেওয়া হচ্ছে বাল্ব প্রতি ৩০০ টাকা।

সে হিসেবে ৬০০ দোকানের প্রায় ১২০০ বাল্ব থেকে ৩০০ টাকা করে মাসে আদায় করা হচ্ছে ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা। এর বাইরে ফ্রিজ, কাম্পউটার, ফ্যান ও টিভির জন্য রয়েছে আলাদা বিল। অভিযোগ রয়েছে, ৫০ টি মিটারের অধিকাংশ মিটার ট্রাম্পারিংয়ের মাধ্যমে ফাঁকি দেওয়া হচ্ছে বিপুল পরিমান বিদ্যুৎ বিল। এক্ষেত্রে বখতিয়ার মেম্বারকে সহয়তা দিয়ে যাচ্ছে উখিয়া পল্লী বিদ্যুতের একশ্রেনীর দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা কর্মচারী। শুধুমাত্র রোহিঙ্গাদের নিয়ে বানিজ্যের জন্য এভাবে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ অপচয় হচ্ছে। উখিয়া সর্বত্র বেড়েছে লোডশেডিং।

এমন অভিযোগ কুতুপালং এলাকার স্থানীয় সচেতন জনসাধারনের। এদিকে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের মাঝেও লোডশেড়িং নিয়ে বিরাজ করছে চাঁপা ক্ষোভ। দিনে-রাতে সমান তালে লোডশেড়িং হওয়ায় পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতিতে ব্যাঘাত ঘটছে বলে একাধিক পরীক্ষাথীর্র অভিযোগ। তারা এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।

এ ব্যাপারে উখিয়া পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম নুর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, রোহিঙ্গা বাজার ও ক্যাম্পে অবৈধ সংযোগের বিষয়ে তদন্তপুর্বক ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। এভাবে লোডশেডিং কেন হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি উপর থেকে বিদ্যুৎ যা পাচ্ছি তা নিয়ে চালিয়ে নিচ্ছে। সরবরাহের তুলনায় চাহিদা বেশী হলে আমার কিছুই করার নেই।

কক্সবাজার

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে