Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৪-২০১৬

মিয়ানমারে ভূমিকম্পে শঙ্কা বেড়েছে বাংলাদেশের

আশিকুর রহমান চৌধুরী


মিয়ানমারে ভূমিকম্পে শঙ্কা বেড়েছে বাংলাদেশের

ঢাকা, ১৪ এপ্রিল- একই বেল্টে পরপর দুবার ভূমিকম্প হওয়ায় দেশের পূর্বদিকে আরো বড় ভূমিকম্পের আশঙ্কা করা হচ্ছে। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের শুরুতে ভারতের মনিপুরে ও গতকাল বুধবার মিয়ানমারে যে ভূমিকম্প হয়েছে, তা একই বেল্টে হয়েছে। এতে আগামীতে বাংলাদেশের পূর্ব দিকে আরো বড় ধরনের ভূমিকম্পের আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মিয়ানমারের মাওলাইকে যে ভূমিকম্প হয়েছে, সেটা এতটা দুশ্চিন্তার কারণ হতো না, যদি জানুয়ারি মাসেই ভারতের মনিপুরের ভূমিকম্পটি না হতো। কেননা, এ দুটি ভূমিকম্পই হয়েছে একই বেল্ট থেকে, যা প্রমাণ করে বাংলাদেশের পূর্ব দিকে ভূমিকম্পের বেল্টটি কতটা শক্তি সঞ্চার করেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার বলেন, ‘এর আগে অনেকেই মনে করতেন যে এই বেল্ট ততটা অ্যাকট্ভি নয়। যেহেতু পরপর দুটি শক্তিশালী ভূমিকম্প হলো, সেহেতু মনে হচ্ছে এটি অ্যাকটিভ। আর আমাদের গবেষণায়ও আমরা দেখেছি যে এটির মাত্রা খুবই মারাত্মক। এখানে আমাদের হিসাবমতে সাড়ে আট থেকে নয় মাত্রার ভূমিকম্প হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’

বুধবারের ভূমিকম্পে চট্টগ্রামে নয়টি ও ফেনীতে চারটি দালান হেলে পড়ার ঘটনায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দালান নির্মাণের কাজে অবহেলা করা হয়। এটি হবে, তা তাঁদের অনুমানের মধ্যে ছিল। কিন্তু তাই বলে এতটা তাঁরা কল্পনাও করতে পারেননি।

বুয়েটের অধ্যাপক ড. তাহমীদ মালিক আল-হুসাইনী বলেন, ‘ফাউন্ডেশন সঠিকভাবে করা হলে এই রকম (বুধবারের কম্পন) ঝাঁকুনিতে কিছুই হওয়ার কথা নয়। তবে যে পরিস্থিতি, তাতে যদি আরো তীব্র মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানে, তাহলে আরো অনেক ভবনের একই ধরনের সমস্যা হবে। আরো বেশি ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’ 

বিশেষজ্ঞদের ভাষ্য, মিয়ানমারের ওই ভূমিকম্প যদি মাটির কম গভীরে হতো, তাহলে হয়তো পয়লা বৈশাখের উৎসবে অংশ নেওয়ার মানুষ খুঁজে পাওয়া যেত না।

এফ/২৩:৩২/১৪ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে