Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১৪-২০১৬

যুক্তরাষ্ট্রের ১,৪০,০০০ কোটি ডলার বিদেশে পাচার

যুক্তরাষ্ট্রের ১,৪০,০০০ কোটি ডলার বিদেশে পাচার

ওয়াশিংটন, ১৪ এপ্রিল- আয়কর ফাঁকি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় করপোরেট কোম্পানিগুলো যেমন : অ্যাপল, ওয়ালমার্ট এবং জেনারেল ইলেকট্রনিক্সের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো মোট এক লাখ চল্লিশ হাজার কোটি ডলার অর্থপাচার করেছে বহির্দেশীয় বাণিজ্যের নামে। সম্প্রতি দরিদ্রতা বিরোধী দাতব্য সংস্থা অক্সফাম এক রিপোর্টে এই তথ্য প্রকাশ করেছে। সংস্থাটির মতে, রাশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া এবং স্পেন থেকে যে পরিমাণ অর্থ বাইরে চলে গেছে তার চেয়েও অনেক বেশি অর্থ বের হয়ে গেছে মার্কিনীদের।

অক্সফামের মতে, অন্যান্য দেশের অর্থপাচারকারীদের মতো যুক্তরাষ্ট্রের অর্থপাচারকারীরাও বহির্দেশে বাণিজ্যের সঙ্গে যুক্ত এমন মোট ১ হাজার ৬০৮টি কোম্পানির নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এই অর্থপাচার করেছে। পানামা পেপার্স ফাঁস হয়ে যাওয়ায় পর অক্সফামের বিশ্লেষকরা সেই নথি বিশ্লেষণ করে দেখেন যে, যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় মোট ৫০টি করপোরেট কোম্পানি কর ফাঁকি দেয়ার জন্য এই মোসাক ফনসেকার মাধ্যমে অর্থপাচার করেছে।

রিপোর্টে শুধু অর্থপাচার সংক্রান্ত তথ্যই প্রকাশ করা হয়নি; পাশাপাশি বৈশ্বিক আয়কর ব্যবস্থাপনায় যে কৌশলগত সমস্যা রয়েছে এবং সেই সমস্যার ছিদ্রপথ ধরেই করপোরেট কোম্পানিগুলো তাদের অলস অর্থ বিদেশি কোনো কোম্পানির নামে পাচার করছে। বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট মোট ১০৮ বিলিয়ন ডলার পাচার করেছে বলে নথিতে জানা যায়। এছাড়াও শীর্ষস্থানীয় ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ফিজার, গুগলের সহযোগী অ্যালফাবেট এবং তেল কোম্পানি এক্সন মবিলও এই অর্থ পাচারের সঙ্গে জড়িত।


মার্কিন এই শীর্ষ করপোরেট কোম্পানিগুলো শুধু অর্থপাচারই করেনি, পাশাপাশি কোম্পানিগুলো দেশীয় বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ১১ লাখ ২০ হাজার কোটি ডলার ঋণ নিয়েছে আয়কর যাতে না দিতে হয় সেজন্য। মোটের ওপর, বহির্দেশে বাণিজ্যের এই আয়কর সুবিধা থাকায় মার্কিন করপোরেট কোম্পানিগুলো ৪ ট্রিলিয়ন ডলার আয়কর দেয়া থেকে নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে পেরেছে।

উল্লেখ্য, ২০০৮ এবং ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় ৫০টি কোম্পানি স্রেফ মার্কিন সরকারের সঙ্গে বাণিজ্যিক লবি করতেই ব্যয় করেছিল ২ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার।

অক্সফামের উচ্চপদস্থ আয়কর কর্মকর্তা রুবি সিলভারম্যান বলেন, ‘আমাদের কাছে বৈশ্বিক আয়কর ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে নিয়মতান্ত্রিকভাবে আয়কর ফাঁকি দেয়ার যথেষ্ট প্রমাণ আছে। আমরা এমন একটা অবস্থার ভেতর দিয়ে যেতে পারি না যেখানে ধনী এবং ক্ষমতাবানেরা তাদের জন্য নির্ধারিত আয়কর দেবে না। তাদের এই আয়কর না দেয়ার ফলে বাদবাকি সাধারণ মানুষকে সেই আয়কর টানতে হয়।’

আর/১৬:৪২/১৪ এপ্রিল

উত্তর আমেরিকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে