Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১২-২০১৬

ইমপিচমেন্ট এড়াতে পারছেন না রৌসেফ!

ইমপিচমেন্ট এড়াতে পারছেন না রৌসেফ!

ব্রাসিলিয়া, ১২ এপ্রিল- ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। সোমবার কংগ্রেস কমিটির বেশিরভাগ সদস্যই প্রেসিডেন্টের ইমপিচমেন্টের পক্ষে রায় দিয়েছেন। আগামী সপ্তাহে পার্লামেন্টে সদস্যরা এই প্রস্তাবের ওপর ভোটাভুটিতে অংশ নেবেন। সম্প্রতি অর্থনৈতিক মন্দা, ঘাটতি ও বিভিন্ন দুর্নীতির ঘটনায় ব্যাপক চাপের মুখে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট রৌসেফ।

সোমবার বিকেলে দীর্ঘ তর্ক বিতর্কের পর ৬৫ সদস্য বিশিষ্ট কংগ্রেসের ৩৮ জনই প্রেসিডেন্ট রৌসেফেরেই ইমপিচমেন্ট বা অভিশংসনের পক্ষে রায় দিয়েছেন। প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দিয়েছে ২৭ জন কংগ্রেস সদস্য। তাদের এই সিদ্ধান্তটি এবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে উত্থাপন করা হবে। সেখানে আগামী ১৭ বা ১৮ এপ্রিল তার ইমপিচমেন্টের ওপর ভোটাভুটি হওয়ার কথা রয়েছে। দেশে আর্থিক সঙ্কট ও ঘাটতি মোকাবেলায় যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে ব্যর্থ হওয়ায় তার বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নিলেন কংগ্রেস সদস্যরা। যদিও এই ঘটনা ব্রাজিলের রাজনৈতিক সঙ্কটকে আরো জটিল করে তুলবে বলেই মনে হয়।

ব্রাজিলের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে মোট সদস্য সংখ্যা হচ্ছে ৫১৩ জন। প্রেসিডেন্ট রৌসেফের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট আনতে হলে কমপক্ষে ৩৪২টি ভোট লাগবে। অন্যদিকে ইমপিচমেন্ট এড়াতে রৌসেফের দরকার ১৭২ ভোট। পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে এই প্রস্তাব অনুমোদিত হলে সেটি সিনেটে পাঠানো হবে। সিনেটে সুপ্রিম কোর্টের প্রেসিডেন্ট গোটা প্রক্রিয়াটি পর্যবেক্ষণ করবেন। তবে নিম্নকক্ষে ইমপেচমেন্ট প্রস্তাবটি অনুমোদিত না হলে সেখানেই থেমে যাবে এর সকল প্রক্রিয়া।

তবে সর্বশেষ জরিপে দেখা যাচ্ছে, পার্লামেন্টের ২৯২ জন সদস্য প্রেসিডেন্ট রৌসেফের ইমপেচমেন্টের জন্য ভোট দেবেন বলে মনস্থির করেছেন। আর ১০৬ জন এখনো সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করতে পারেননি। আর ডিলমার প্রেতি আস্থা রয়েছে ১১৫ জনের।

এদিকে প্রেসিডেন্টে বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্টের এই সিদ্ধান্তে ব্রাজিলে নতুন করে রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। এ নিয়ে দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়েছে রৌসেফের সমর্থক ও বিরোধীরা। রাজধানী ব্রাসিলিয়ায় ব্যাপক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করছে তার সমর্থকরা। পাল্টা সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে বিরোধীরাও। দু পক্ষের মধ্যকার সংঘাত এড়াতে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগেুলো ঘিরে রেখেছে পুলিশ। তারা সেখানে কোনো সমাবেশ করার অনুমতি দেবে না বলে জানিয়েছে।

ব্রাজিলের অর্থনৈতিক ঘাটতি ও দুর্নীতির অভিযোগের জের ধরে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে রৌসেফের জনপ্রিয়তা ব্যাপক হ্রাস পেয়েছে। যদিও ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কার্স পার্টির সমর্থকরা বলছে, এটি একটি ষড়যন্ত্র। গণতান্ত্রিক সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতেই এই পদক্ষেপ নিয়েছে কংগ্রেস।

কংগ্রেস কমিটিতে ভোটাভুটির আগে প্রেসিডেন্টের পক্ষ নিয়ে অ্যাটর্নি জেনানেরল জোসে ইডুয়ার্ডো কর্ডোজো বলেন,‘এটি একটি অদ্ভূত ঘটনা। যে প্রেসিডেন্ট কোনো অপরাধ করেননি, একটি পয়সাও চুরি করেননি, তাকেই বরখাস্ত করার চেষ্টা চলছে।’ কোনো অপরাধ বা জালিয়াতি ছাড়াই এই ধরণের পদক্ষেপের ফলে দেশে একটি অভ্যুত্থান হতে পারে বলেও তিনি আশঙ্কা ব্যক্ত করেছেন।

দক্ষিণ আমেরিকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে