Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১১-২০১৬

বাড়বে বিরোধী ভোট তবে মসনদে মমতাই

বাড়বে বিরোধী ভোট তবে মসনদে মমতাই

কলকাতা, ১১ এপ্রিল- নারদ স্টিং অপারেশন কাণ্ড, পোস্তা উড়ালপুল দুর্ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেস কোনঠাসা হলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই ফের মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসছেন৷ বিশিষ্ট জ্যোতিষীদের গনণায় সেই তথ্যই উঠে এসেছে৷ বর্তমান পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে দেখা গিয়েছে, বাধাবিঘ্ন থাকলেও ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলই ক্ষমতায় আসবে। তবে এবার আসনসংখ্যা কমবে। তবে গনণায় দ্বিমতও আছে৷ কোনও কোনও জ্যোতিষী  বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের জোট ক্ষমতায় আসতে পারে—এমনটা স্পষ্ট করে না বললেও তাঁরা  ‘পরিবর্তনের’ লক্ষণও দেখছেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (জন্ম তারিখ-০৫/0১/১৯৫৫), সূর্যকান্ত মিশ্র (১৮/৪/১৯৪৯) এবং অধীর চৌধুরির (২/৪/১৯৫৬) জন্মকুণ্ডলী তৈরি করে নির্বাচনের আগে বিস্তারিত গণনা করেছেন স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত জ্যোতিষী দেবাশিস সেন। তিনি বলেন, ২০১৫ সালের ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীর সময় ভালো ছিল। তারপর থেকে চলতি বছরের ৩ এপ্রিল পর্যন্ত সময় খারাপ গিয়েছে। তাঁর সময় খুব ভালো হয়েছে পরের দিন থেকে। তাই জয় তাঁর হবেই। খুব সামান্য ব্যবধানে হলেও মমতাই ক্ষমতায় আসবেন বলে দাবি দেবাশিসবাবুর। মমতার রাশি অনুযায়ী এখন শনির দশা চলছে। যার অবস্থান এখন বৃশ্চিক রাশিতে। যার জন্য একটার পর একটা ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ছেন তিনি। কিন্তু ২৫ মার্চের পর থেকে এই শনি বক্রি হয়ে যাচ্ছে। শনি বক্রি হয়ে বুধের নক্ষত্রে থাকার জন্য তাঁর মুখ্যমন্ত্রী হওয়া কেউ আটকাতে পারবে না। সূর্যকান্ত মিশ্রের বৃহস্পতির দশা চললেও তা জন্মকুণ্ডলীতে নীচস্থ অবস্থায় রয়েছে। এই কারণেই তাঁর এখনই ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা নেই। দেবাশিসবাবু আরও বলেন, সূর্যবাবু এবং অধীরবাবুর মিল হল, দু’জনেরই ধনু রাশি এবং বৃশ্চিক লগ্ন। তার ফলেই দু’জনে এক হতে পেরেছেন।

তৃণমূলের একাধিক হেভিওয়েট নেতানেত্রীর ব্যক্তিগত স্তরের জ্যোতিষ সংক্রান্ত পরামর্শদাতা গোরাচাঁদ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ২০১৬ সালে তৃণমূলই সরকার গড়বে। তবে সরকার গড়ার ক্ষেত্রে মূল সেনাপতি বা ‘কিং-মেকার’ মুকুল রায়। তাহলে মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন? এই প্রশ্নের উত্তর তাঁর গণনায় পাওয়া গেলেও এখনই সেই নাম সামনে আনতে রাজি হননি এই জ্যোতিষী।

মহিলা জ্যোতিষী হিসাবে ইতিমধ্যেই এক পরিচিত নাম মধুমিতা শাস্ত্রী। তিনি কিন্তু এঁদের থেকে একটু অন্যরকম ফলাফল পাচ্ছেন তাঁর গণনায়। তাঁর মতে, এখন বৃহস্পতি ও রাহু একইসঙ্গে সিংহ রাশিতে অবস্থান করছে। তাতে আবার শনির দৃষ্টিও রয়েছে। এই সিংহ রাশির অবস্থানই ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণ করে। আর বৃহস্পতি, শনি এবং রাহুর এই ধরনের অবস্থানকে জ্যোতিষশাস্ত্রের পরিভাষায় বলে গুরুচণ্ডালি অবস্থান। তাই ক্ষমতার বদল হলেও হতে পারে। আর তা না হলেও বেশ বড়সড় ওলটাপালট অবশ্যই হবে বলে গণনায় জানতে পারছেন মধুমিতাদেবী।গণনালব্ধ ফল বাস্তবিকই মিলবে কি না, তা জানা যাবে আগামী ১৯ মে।

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে