Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.6/5 (8 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-১০-২০১৬

এই ৫ 'অস্বাস্থ্যকর' খাবারই শরীরের দরকার!

এই ৫ 'অস্বাস্থ্যকর' খাবারই শরীরের দরকার!

হার্টের ব্যামো। তাই ডিম বাদ। মোটা হয়ে যাবেন। তাই পাত থেকে তুলে দিলেন আলু। ঘি, মাখন, বাদাম তো নৈব নৈব চ। খাদ্যাভ্যাসে প্রাচীন ও আধুনিক বিজ্ঞানের সংঘাত লেগেই আছে। কিছু খাবার সুস্বাদু হলেও, স্রেফ শরীরের ভয়ে বাদ। নয়া গবেষণা কিন্তু কিছু চিরাচরিত মিথ একেবারেই ভেঙে দিচ্ছে। যেমন, আলু, ডিম, দুগ্ধজাত খাবার শরীরের পক্ষে খুবই ভালো বলেই দাবি নয়া গবেষণায়। লন্ডনের কিংস কলেজের নিউট্রিশনাল সায়েন্স-এর লেকচারার স্কট হার্ডিং-এর গবেষণা বলছে, যে ৫ খাবার তথাকথিত অস্বাস্থ্যকর তকমা দেওয়া হয়, সেগুলিই আসলে শরীরের দরকার।

১. ডিম
হৃদরোগীরা ডিম ডায়েট থেকে বাদ দিয়ে দেন। কারণ, কোলেস্টেরল। একটি ডিমে ১৮৫ মিলিগ্রাম ডায়েটরি কোলেস্টেরল থাকে। যা রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রায় খুবই সামান্য হেরফের করে। বরং ডিমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, প্রোটিন ও মিনারেল থাকে, যা শরীরের দরকার। অতএব কোলেস্টেরল বেড়ে যাবে, এই ভয়ে কেউ যদি ডিম না খান, তাহলে খুব একটা বুদ্ধিমানের কাজ করেন না বলেই দাবি গবেষণায়।

২. মাখন বা মার্জারিন
মাখন বা মার্জারিনকেও অনেকে ডায়েট থেকে বাদ দেন। বিজ্ঞানীরা বলছেন, মার্জারিন তৈরি হয় ভেজিটেবল ফ্যাট থেকে। স্যাচুরেটেড ফ্যাট বেশি থাকে না। তাই হার্টের পক্ষে ভালো।

৩. আলু
অনেকের কাছেই খুব প্রিয় এই খাবারটি। কিন্তু মোটা হওয়ার ভয়ে আলুর তাকাতে চান না। বিজ্ঞানীরা বলছেন, আলুতে প্রচুর কার্বোহাইড্রেট থাকে, এটা ঠিক। একই সঙ্গেথাকে, প্রচুর ভিটামিন সি, ভিটামিন বি ও মিনারেল। আলু রান্না করার পর কার্বোহাইড্রেটের বেশির ভাগই গ্লুকোজ থাকে। শরীরের এনার্জি বাড়াতে গ্লুকোজ অনবদ্য কাজ করে। তাই আলু বাদ দিলেই সুস্থ থাকবেন, এমনটা নয় বলেই দাবি বিজ্ঞানীদের।

৪. দুগ্ধজাত খাবার
ঘি, মাখন, চিজ-ও অনেক ব্যক্তির কাছে অস্বাস্থ্যকর। স্কট হার্ডিং বলছেন, যে কোনও দুগ্ধজাত খাবারেই প্রচুর ক্যালসিয়াম ও প্রোটিন থাকে। তাই পরিমাণমতো দুগ্ধজাত খাবার খেলে শরীরের উপকারই হয়। বেশি তো কোনও জিনিসই ভালো নয়।

৫. বাদাম
ফ্যাট ও ক্যালোরির ভয়ে বাদামকে বাদ দেওয়া ঠিক নয়। হার্ডিং-এর গবেষণা বলছে, বাদামে স্যাচুরেটেড ফ্যাট খুব সামান্য থাকে। বরং প্রোটিন, ভিটামিন সি, ম্যাগনেশিয়াম, ফাইবার থাকে প্রচুর। এই উপাদানগুলি শরীরের ওজনকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। অতএব ইচ্ছে হলে একমুঠো খেতেই পারেন। অসুবিধে নেই।

উপসংহারে বিজ্ঞানীদের বক্তব্য, সুপার ফুড বা ভিলেন ফুড বলে কিছু হয় না। যা আপনার কাছে সুপার ফুড, তা বেশি খেলে ভিলেন ফুড হয়ে যেতেই পারে।

এফ/১৬:০৬/১০ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে