Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৪-০৭-২০১৬

অনির্দিষ্টকালের জন্য চুয়েট বন্ধ ঘোষণা

অনির্দিষ্টকালের জন্য চুয়েট বন্ধ ঘোষণা

চট্টগ্রাম, ০৭ এপ্রিল- চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) অনির্দিষ্ঠকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছেন চুয়েট প্রসাশন। ৭ এপ্রিল বেলা ৩.০০ ঘটিকার মধ্যে ছাত্রদের এবং ছাত্রীদের ০৮ এপ্রিল সকাল ১০.০০ ঘটিকার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। পুনরাদেশ না দেয়া পর্যন্ত চুয়েট এরতক পর্যায়ের সকল শিক্ষা কার্যক্রম (পরীক্ষাসহ) বন্ধ ঘোষণা করা হলেও তকোত্তর পর্যায়ের সকল শিক্ষা কার্যক্রম যথারীতি চলবে।

৭ এপ্রিল বৃহস্পতিবার তারিখ বেলা ১০.৩০ ঘটিকায় উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, সকল ডীন, বিভাগীয় প্রধান, পরিচালক, প্রভোস্ট এবং রেজিস্ট্রারের সমন্বয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভার সিদ্ধান্তক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক আইন শৃংঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশংকার বিষয় বিবেচনা করে একটি জরুরী বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়া হয়।

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) ফজলুর রহমান জানান, চুয়েটের স্থাপত্য বিভাগের লেভেল-৫, টার্ম-১ এর মেধাবী ছাত্র মোঃ মুহাইমিনুল ইসলাম (স্টুডেন্ট নম্বর-১০০৬০২১) গত ২৯ মার্চ, মদুনাঘাট এলাকায় অটোরিকশায় (টুকটুকি/লেগুনা) মর্মান্তিক দূর্ঘটনার শিকার হয়ে নিহত হন।

উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ৩০ মার্চ, থেকে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে চরম উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। এ সময় ছাত্র-ছাত্রীরা বেশ কিছু দাবী প্রদানপূর্বক সকল একাডেমিক কার্যক্রম (ক্লাস ও পরীক্ষা) থেকে নিজেদেরকে বিরত রাখে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকসহ একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনের প্রধান ফটকে দফায় দফায় তালা লাগিয়ে দেয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ এ বিষয়ে দফায় দফায় সভায় মিলিত হয়। সভাসমূহের সিদ্ধান্তক্রমে ছাত্র-ছাত্রীদের সকল দাবীর বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে এবং তা সময়ে সময়ে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে অবহিতু করা হয়। এরপরও ছাত্র-ছাত্রীরা শিক্ষা কার্যক্রমে যোগদান না করে পরিচালক (ছাত্রকল্যাণ) এর পদত্যাগের নতুন দাবীসহ ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন, বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচী অব্যাহত রাখে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে উপরোক্ত সিদ্ধানসমূহ নেয়া হয়।

আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীরা দাবী করেন, তাদের যুক্তিযুক্ত আট দফা দাবী বাস্তবায়নে প্রসাশন আশ্বাস দিলেও এখনো পর্যন্ত তার কোন প্রতিফলন ঘটে নি। তাই তারা তাদের দাবী আদায়ের লক্ষ্যে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু চুয়েট প্রসাশন দাবী বাস্তবায়নের প্রদক্ষেপ গ্রহণ না করে হঠাৎ ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষাণা করে হল ত্যাগের নির্দেশ দেয়।

তারা আরো দাবী করেন, ছাত্রাবাসের পানি বন্ধ করে, পুলিশের মাধ্যমে ছাত্রদের হল ত্যাগে বাধ্য করে। তারা জানান, তাদের এই আন্দোলন দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। তারা আলোচনার মধ্যমে প্রেস কনফারেন্স করে পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষানা করবেন।

এস/১৯:৫৫/০৭ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে