Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.3/5 (8 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-০৭-২০১৬

অদ্ভুত কিছু কর আইন

অদ্ভুত কিছু কর আইন

ভাষাবিজ্ঞানীদের মতে লাতিন শব্দ টাক্সো থেকে বর্তমানের বহুল আলোচিত ট্যাক্স শব্দের উৎপত্তি। বাংলায় এই ট্যাক্সকে বলা হচ্ছে ‘কর’। অবস্থাভেদে এই করেরও আছে আবার প্রকারভেদ। এযাবৎ প্রাপ্ত ইতিহাস ঘাটলে দেখা যায়, ট্যাক্স বা করের প্রথমত প্রচলন হয়েছিল নিম্নবর্গীয় শ্রেণিকে পণ্য ব্যবহার থেকে বিরত রাখার চেষ্টা থেকে। এবিষয়ে মানুষের কাছে প্রাপ্ত তথ্যাবলী ঘেটে দেখা যায়, প্রাচীন মিসরে ফারাওরা কর সংগ্রহের জন্য একটি নির্দিষ্ট পদ সৃষ্টি করেছিলেন, যার নাম ছিল ‘স্ক্রিবেস’। ফারাও অনুগত এই স্ক্রিবেসদের কাজ ছিল রান্নার তেলের উপর আরোপিত কর আদায় করা। জনগণ যাতে রান্নার করার কাজে অন্য জ্বালানি ব্যবহার করতে না পারে এবং নির্দিষ্ট পরিমান নিয়ন্ত্রন করার জন্য ওই স্ক্রিবেসরা মিসরবাসীর ঘরে ঘরে গিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে কর সংগ্রহ করতো। বর্তমান সময়ে দাড়িয়ে মিসরীয়দের এই কর আইন আমাদের কাছে অদ্ভুত লাগবেই। তবে এমন অদ্ভুত আইন যে শুধু মিসরেই ছিল তা নয়, বিশ্বের অনেক স্থানেই এমনটি ছিল।


প্রাচীন রোমে কর নিয়ে ছিল বেশকিছু আইন। সমাজের শ্রেণিভেদে এই কর প্রদান করতে হতো। তবে অধিকাংশ সময়ই ভূস্বামীরা নিজেরা রাজার খাজানায় কোনো কর দিতেন না। ধনী শ্রেণি কর থেকে রেয়াত পেলেও সমাজের দাসদের কর দিতে হতো। একজন দাস যদি কোনো কারণে অপর একজন দাসকে হত্যা করতো, তবে সেই নিহত ব্যক্তিকে স্বাধীন হিসেবে ধরে তার স্বাধীনতার কর দিতে হতো হত্যাকারীকে। অপরদিকে কোনো দাস যদি নিজের স্বাধীনতা কিনতে চাইতো, সেক্ষেত্রেও তাকে কর দিতে হতো তার মালিককে।


মধ্যযুগে গোটা ইউরোপ জুরে ব্যবহার্য সাবানের উপর কর ধার্য করা ছিল। সাবান তৈরিতে যে চর্বি দরকার হয়, সেই সঙ্কট মোকাবেলায় ইউরোপের জনগণের উপর উত্তোরত্তর কর ধার্য করা হতো। খুব বেশিদিন আগের কথা নয়, ১৮৩৫ সাল পর্যন্তও ইংল্যান্ডে সাবানের উপর কর ধার্য ছিল। এই কর নিয়ে বেলজিয়ামসহ বিভিন্ন দেশে রাষ্ট্রপক্ষের সঙ্গে জনগণের সংঘাতের ইতিহাসও জানা যায়। খোদ আয়ারল্যান্ডে এই সাবান করের ইস্যুটি জাতীয় বৃহত্তর ইস্যুতে মোড় নিয়েছিল।


আজও বিশ্বের উন্নত দেশের উন্নত শহর নিউইয়র্কে একটি অদ্ভুত কর আইন বলবৎ আছে। সেখানে প্রস্তুতকৃত খাবারের উপর কর ধার্য করা হয়। অর্থাৎ খাবার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানকে একবার খাবারের কাঁচামালের জন্য কর দিতে হয়। আবার সেই কাঁচামাল থেকে খাবারটি প্রস্তুত হবার পরও কর দিতে হয়। একে মার্কিনীরা বলেন ডবল ট্যাক্স।


ফ্রান্সে বিদ্রোহ হয়েছিল কেন? ঐতিহাসিক থেকে বিশ্লেষকরা অনেক ব্যাখ্যা দলিল দস্তাবেজ হাজির করে দেবেন এই প্রশ্নটি করলেই। আর তারা যে দলিল দেখাবেন তা কিন্তু মিছে নয়। সবই সত্যি, কিন্তু এই সব সত্যির অন্তরালে আরও একটি সত্যি লুকিয়ে আছে। আর তা হলো, ফ্রান্সের সেই ঐতিহাসিক বিদ্রোহ সংঘঠিত হয়েছিল লবনের উপর কর আরোপ করাকে কেন্দ্র করে। যেমনটা তিউনিশিয়ার বুয়াজিজির শরীরে আগুন লাগলো, অথচ গোটা মধ্যপ্রাচ্য পুড়ে গেলে সেই আগুনে। ফ্রান্সে লবনের উপর করকে বলা হয় গ্যাবেলে।


ইংলিশ সেনানায়ক অলিভার ক্রমওয়েল তার রাজনৈতিক বিরোধীদল এবং রাজপরিবারবর্গের উপর কর আরোপ করেছিলেন। রাজপরিবারের পূর্ণবয়স্ক প্রত্যেক সদস্যকে দশ শতাংশ হারে কর প্রদান করতে হতো। মজার বিষয় হলো, ওই কর থেকে জমাকৃত অর্থ ক্রমওয়েল আবার ওই রাজপরিবারের বিরুদ্ধে লড়াইয়েই ব্যবহার করতেন।


রোমান সম্রাট ভেসগাসিয়ান তার প্রজাদের প্রসাব করার উপর কর আরোপ করেছিলেন বলে জানা যায়। কারণ তিনি যেভাবেই হোক জানতে পেরেছিলেন যে, মানুষের প্রসাবে কাপড় পরিস্কার করার উপাদান আছে। আর সেই উপাদান কেউ এমনি এমনি ত্যাগ করলে তাকে কর দিতে হতো।


যুক্তরাজ্যের একটি রাজ্য কানেক্টিকাট। এই রাজ্যে কেউ যদি নিজের ব্যবহৃত ডায়াপার নিজে কিনতে আসে তাহলে তাকে কর দিতে হয় না। কিন্তু কোনো পিতা-মাতা যদি তার সন্তানের জন্য ডায়াপার কিনতে আসেন, তবে তাকে কর দিতে হবে। হাস্যকর মনে হলেও, ওই রাজ্যে এই আইন নিয়ে কয়েকদফা মারামারির ঘটনাও ঘটেছে। কিন্তু তারপরেও রাজ্য সরকার ওই কর প্রত্যাহার করতে রাজি নয়।

আর/১৮:১৫/০৭ এপ্রিল

বিচিত্রতা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে