Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 5.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৪-০৭-২০১৬

এগুলোই বিশ্বের ভয়ঙ্করতম মারণ বোমা!

এগুলোই বিশ্বের ভয়ঙ্করতম মারণ বোমা!

আজ বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলির অস্ত্রভাণ্ডার সজ্জিত ভয়ানক সব মারণ বোমায়। পরমাণু বোমা, হাইড্রোজেন বোমা, গ্যাভিটি বোমা থেকে শুরু করে আরও অত্যাধুনিক বোমা। প্রতিনিয়তই গবেষণা চলছে আরও কত শক্তিশালী বোমা বানানো যায় তা নিয়ে। সেরকমই কিছু মারণ বোমা ও তাদের ইতিহাস জেনে নেওয়া যাক এই গ্যালারিতে।


বি-৫৩ পরমাণু বোমা:
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বোমাটি তৈরি করে ইউনাইটেড স্টেটস অ্যাটমিক এনার্জি কমিশন। বি-৪১ পরমাণু বোমা বাতিল হওয়ার পর মার্কিন অস্ত্রাগারে বি-৫৩-র ঠাঁই হয়। ৯ মেগা টন ওজন বিশিষ্ট এই বোমা আমেরিকার অন্যতম শক্তিশালী অস্ত্র।


জার বোমা:
মানব সভ্যতার সবচেয়ে শক্তিশালী অ্যাটমিক বোমা। ১৯৬১-র ৩০ অক্টোবর বোমাটি ফাটিয়ে পরীক্ষা করা হয়। ৫০ মেগা টনের বোমাটি তৈরি করে রাশিয়ান ফেডারেশন। এর আরেক নাম ‘কুজ কিন মাট’।


হারিকেন অ্যাটমিক বোমা:
১৯৫২ সালে পশ্চিম অস্ট্রিয়ার মন্তেবেলো দ্বীপে এটির পরীক্ষা করা হয়। প্রজেক্টের নাম ছিল অপারেশন হারিকেন। ব্রিটেন এই বোমাটির পরীক্ষা করে। ওজন ২৫ কিলো টন।


দ্য মার্ক-৩৬ পরমাণু বোমা:
আমেরিকার অস্ত্র ভাণ্ডারের শক্তিশালী ও ভয়ঙ্করতম বোমাগুলির মধ্যে একটি। থার্মো নিউক্লিয়ার ডিভাইসের মাধ্যমে তৈরি বোমাটি ফাটার সঙ্গে সঙ্গে চেন রিঅ্যাকশন শুরু হয়। এটি মার্ক-২১ নিউক্লিয়ার বোমার অ্যাডভান্সড ভার্সন। ১৫০ ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের এই বোমাটি ফাটলে ওজন ১০ মেগা টন শক্তি নির্গত হয়।


দ্য লিটল বয় অ্যাটম বোমা:
১৯৪৫-এ ৬ অগস্ট জাপানের হিরোশিমাতে অ্যাটমিক বোমাটি ফেলে আমেরিকা। এটই প্রথম পরমাণু বোমা যা যুদ্ধে ব্যবহার করা হয়েছে। এর কোড নাম ‘লিটল বয়’। ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের এই বোমাটির মোট শক্তি ১৫ কিলো টন টিএনটি বিস্ফোরণের সমান।


ফ্যাট ম্যান অ্যাটমিক বোমা:
১৯৪৫-এর ৯ অগস্ট জাপানের নাগাসাকি শহরে এই বোমাটি ফেলে আমেরিকা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় আমেরিকা যে দু’টি বোমা জাপানে ফেলে তার মধ্যে এটি একটি। বোয়িং বি-২৯ সিপারফোরট্রেস বিমান থেকে এটি নাগাসাকি শহরের উপর ফেলা হয়। ১০,৩০০ পাউন্ডের এই বোমাটি তৈরি হয় লস আলামস ল্যাবরেটরিতে।


দ্য মার্ক-২১ পরমাণু বোমা: বিশ্বের শক্তিশালী গ্র্যাভিটি বোমাগুলির মধ্যে এটি একটি। ১৯৫৫-য় এটির পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এটি সেই সময়ের ভয়ঙ্করতম বোমা ছিল।


দ্য কাসল ব্রাভো হাইড্রোজেন বোমা: থার্মো নিউক্লিয়ার ডিভাইসে তৈরি এটি প্রথম হাইড্রোজেন বোমা। ১৯৫৪-র ১ মার্চ মার্শাল দ্বীপের বিকিনি আটলে এটির পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ ঘটায় আমেরিকা। হাইড্রোজেন বোমাগুলির মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী বিস্ফোরণ ছিল এটি।

আর/১২:০৫/০৬ এপ্রিল

জানা-অজানা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে