Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-৩০-২০১৬

৩৬ ঘণ্টায় সমস্যা দূর হবে পুরান ঢাকাবাসীর

৩৬ ঘণ্টায় সমস্যা দূর হবে পুরান ঢাকাবাসীর

ঢাকা, ৩০ মার্চ- আগামী ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে (গতকাল থেকে) রাজধানীর পুরান ঢাকার বাসিন্দাদের সব সমস্যা সমাধানের ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। এ সময়ের মধ্যে যদি সমস্যাগুলোর সমাধান না হয় তাহলে সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে পুরান ঢাকার ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের সঙ্গে ‘জনপ্রতিনিধি, জনতার মুখোমুখি’ শীর্ষক এক সভায় স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তাকে লক্ষ করে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন।

সাঈদ খোকন বলেছেন, ‘আজ আপনাদের সমস্যার কথা শুনতে এসেছি, মন দিয়ে শুনবো, মন দিয়ে কাজ করবো। আপনারা আমার এবং আমার কাউন্সিলরদের থেকে কড়ায় গন্ডায় বুঝে নেবেন।’

সভায় উপস্থিত বাসিন্দাদের অভিযোগ- পুরান ঢাকার অধিকাংশ এলাকায় ওয়াসার পানিতে ময়লা ও দূর্গন্ধ থাকে। স্যুয়ারেজের পানি রাস্তায় চলে আসে। স্যুয়ারেজ ও পানির লাইন একাকার হয়ে গেছে। পানি মুখে দিলে মুখ জ্বলে। কোনো কোনো এলাকায় ১৫ দিনও পানি আসে না। রাস্তাঘাটে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা ঠিক মতো রাস্তা পরিষ্কার করে না। ডাস্টবিনের ময়লা নেয়না। বিদ্যুতের খুঁটিগুলোর সংস্কার হয়না। রাস্তায় তীব্র যানজট লেগেই থাকে।

তাদের আরো অভিযোগ- স্কুল কলেজগুলোর সামনে বখাটেরা ইভটিজিংয়ে লিপ্ত থাকে। পুলিশকে অভিযোগ করেও কোনো সুফল পাওয়া যায় না। বাবুবাজার ব্রিজের পাশের পুলিশ বক্সে পুলিশ অবৈধ কর্মকোণ্ডে লিপ্ত থাকে। যে কারণে বিজ্রের ওপর যানজট লেগেই থাকে। পরে মেয়র ওই পুলিশ বক্সটি চারদিকে সাদা গ্লাস দিয়ে নির্মাণ করার নির্দেশ দেন।

নগরবাসীর এমন অভিযোগের ভিত্তিতে মেয়র সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ডেকে এনে কত সময়ের মধ্যে সমস্যা সমাধান করবে তার জবাব নিয়ে নেয়। এসময় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা আগামী ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে সব সমস্যা ঠিক করে দেয়ার ঘোষণা দেন। এসময় মেয়র এক কর্মকর্তাকে লক্ষ করে স্থানীয়দের ভাষায় বলেন, ‘সড়কের সব বাতি জ্বলতে অইবো, যদি না জ্বলে তোমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা অইবো।’

পরে নগরবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বাবু বাজার ব্রিজের সিঁড়িটি উন্মুক্ত করে দেয়ার ঘোষণা দেন মেয়র। এছাড়া ব্রিজের নিচের ‘আইল্যান্ড’ উন্নুক্ত, মহানগর জেনারেল হাসপাতালকে ভারতের একটি আধুনিক হাসপাতালের আদলে মর্ডান হার্ট হাসপাতাল স্থাপন, একটি মহিলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নির্মাণ, ধুপখোলা খেলার মাঠে আধুনিক শিশু পার্ক নির্মাণ, শান্তিনগর থেকে বাবু বাজার হয়ে কেরানীগঞ্জ পর্যন্ত ওভার ব্রিজ নির্মাণ, পুরো নগরীতে এলইডি লাইট স্থাপন, ইভটিজিং ও যানজট নির্মূল, বাবু বাজার ব্রিজের পরে একটি ফুট ওভার ব্রিজ অথবা আন্ডারপাস নির্মাণ, মৃত ব্যক্তিদের গোসল করানোর জন্য একটি গোসলখানা নির্মাণ, সব কমিউনিটি সেন্টার আধুনিকায়ন ও রাস্তাঘাট সংস্কারের ঘোষণা দেন।’

মেয়র বলেন, ‘এই নগরীকে যদি আমরা আমাদের ঘরের মতো ভাবি তাহলে একে বাসযোগ্য করে গড়ে তোলা সম্ভব। আপনার ঘরকে যেমন আপনি সাজিয়ে রাখেন, যেভাবে বসবাস করে ঠিক একইভাবে আপনার শহরকেও সাজিয়ে রাখা আপনার দায়িত্ব। আমি আপনাদের ওয়ার্ডের জন্য ১০০টি ডাস্কবিন দিবো। আপনারা ময়লা-আবর্জনা সেখানে ফেলবেন।’

খেলার মাঠ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, ‘৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ২২টি খেলার মাঠ ও পার্ক উন্নয়নের কাজ শুরু হবে। খেলার মাঠ আর পার্ক নিয়ে কোনো সমস্যা থাকবে না। তবে আমরা উন্নয়ন করে দিলে আপনারা তা রক্ষার দায়িত্ব নিতে হবে।’

ওয়াসার গাফিলতির বিষয়ে মেয়র বলেন, ‘কাজ আদায় করে নেবেন। যদি আপনাদের কোনো বাসায় পানি না থাকে তাহলে খবর দিবেন। বিনা পয়সায় ওয়াসা পানি দিয়ে যাবে।’

পরে মেয়র বলেন, ‘আপনার যা যা চেয়েছেন আমি সব কিছুই দিয়েছি। কিন্তু আপনাদেরও আমাকে একটি সুন্দর নগরী উপহার দিতে হবে।’

সভায় ডিএসসিসির ৩২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. বিল্লাল শাহ, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মো. বিল্লাল, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মরক্তা ক্যাপ্টেন রকিব উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এস/১৪:১০/৩০ মার্চ

ঢাকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে