Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-২৯-২০১৬

সুলতান আহমেদের প্রার্থীপদের বিরোধিতা করেছিলেন দিদি

সুলতান আহমেদের প্রার্থীপদের বিরোধিতা করেছিলেন দিদি

কলকাতা, ২৯ মার্চ- নারদ ঘুষকাণ্ডে অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছেন সাংসদ সুলতান আহমেদ৷ কিন্তু এই নেতাকে একেবারেই পছন্দ করতেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ২০ বছর আগে ১৯৯৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনে সুলতানের প্রার্থী পদের বিরোধিতা করে ফেটে পড়েছিলেন সেদিনের দিদি৷ ক্ষোভ এতটাই যে গলায় চাদর পেঁচিয়ে আত্মহত্যারও হুমকি দেন৷ তখনও অবশ্য তিনি কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে এসে গড়ে তোলেননি তৃণমূল কংগ্রেস৷ছিলেন যুব কংগ্রেসের নেত্রী৷ এখন নিজের হাতে গড়া তৃণমূলে দিদিই শেষ কথা ৷ কেউ তাঁর করা দলের প্রার্থী তালিকা দেখে এখন ক্ষোভ প্রকাশ করলে দিদি দাবড়ে দিতে পারেন, হুঁশিয়ারি দিতে পারেন দল থেকে বের করে দেওয়ার৷ কিন্তু সেদিন দিদিকেই দেখা গিয়েছিল দলের প্রার্থী তালিকা অসন্তুষ্ট হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে৷

কিন্তু ২০ বছর আগে পুরানো দল কংগ্রেসের জনপ্রিয় যুবনেত্রী হলেও তিনি তখন পশ্চিমবঙ্গে দলের শেষকথা ছিলেন না৷ তাই চারজন প্রার্থীর নাম নিয়ে তীব্র আপত্তি তুলেছিলেন৷ সেই চার জনের অন্যতম ছিলেন সুলতান আহমেদ৷ বাকিদের একজন অধীর চৌধুরি৷ তিনি আজও মমতার চরম শত্রুই রয়েছেন৷ অন্য বাকি দুজন ছিলেন শংকর সিং এবং মৃণাল সিংহ রায়৷ সেদিন প্রার্থী তালিকা দেখে এতটাই ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন যে, হাতের কাছে থাকা একটা কালো চাদর গলায় পেঁচিয়ে আত্মহত্যাও নাকি করতে যাচ্ছিলেন৷ যদিও ওইভাবে মমতার সেদিনের ক্ষোভ প্রকাশকেও সেই সময় কংগ্রেসে থাকা তাঁর বিরোধী শিবিরের লোকরা দলে চাপ বাড়াতে নাটক করা হয়েছে বলে কটাক্ষ করেছিলেন৷এমনকী সেদিন কটাক্ষকারীদের অন্যতম ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরই একসময়কার ‘গডফাদার’ সুব্রত মুখোপাধ্যায়৷ অবশ্য তার পর গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গিয়েছে৷ সেই সুলতানকেও দিদি তাঁর নিজের দল তৃণমূলে জায়গা দিয়েছেন৷

শুধু তাই নয়, সুলতান আহমেদ তৃণমূলের টিকিটে সাংসদ হয়েছেন, হয়েছেন মন্ত্রীও ৷ বির্তকিত নারদ স্টিং অপারেশনে ঘুষের টাকা নিতে দেখা গিয়েছে সুলতান ও তাঁর বিধায়ক ভাই তথা এবারের বিধানসভা ভোটে খানাকুলের প্রার্থী ইকবাল আহমেদকেও৷ তাছাড়া এই স্টিং অপারেশনের হোতা ম্যাথু স্যামুয়েল দাবি করেছেন, ইকবালের মাধ্যমেই নাকি তৃণমূল নেতা-মন্ত্রীদের কাছে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি এবং প্রথমেই গিয়েছিলেন ইকবালের দাদা সুলতানের কাছে৷ স্যামুয়েলের এই দাবির পর থেকেই ঘরশত্রু হিসেবে বিভীষণ হিসাবে সুলতানের ভাই ইকবালের দিকেই সন্দেহের চোখে তৃণমূলের অন্দরের অনেকেই তাকাচ্ছেন৷

এফ/১৫:৫৫/২৯মার্চ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে