Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 4.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২৬-২০১৬

বাঙালির শিকল ভাঙার দিন আজ

বাঙালির শিকল ভাঙার দিন আজ

ঢাকা, ২৬ মার্চ- আজ ২৬ মার্চ, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। বাংলাদেশের ইতিহাসে অনন্য দিন। স্বাধীনতা দিবস বাঙালির জীবনে একই সঙ্গে আনন্দ ও বেদনার, আঁধার পেরিয়ে শিকল ভাঙার দিনও। সাড়ে চার দশক আগে ১৯৭১ সালে এদিনের প্রথম প্রহরে নিরস্ত্র বাঙালির উপর ট্যাংক, কামান আধুনিক অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী। আকষ্মিক এ হামলার তীব্রতা এতই ভয়াবহ ছিল যে, তা স্বাধীনতাকামী বাঙালিকে স্তম্ভিত করেছে। কিছু সময়ের মধ্যে মুক্তিকামী বাঙালির কাছে পৌঁছে যায় স্বাধীনতার ঘোষণা।

মধ্যরাতে গ্রেপ্তার হওয়ার আগে বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তৎকালীন ইপিআরের সদর দপ্তরের ওয়ারলেসের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর এ আহ্বান ছড়িয়ে পড়ে সারাদেশে। শুরু হয় যুদ্ধ, যা পরে রূপ নেয় জনযুদ্ধে।  

বাঙালি জাতি স্বাধীনতার ৪৫তম এ বার্ষিকীতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে দিবসটি উদযাপন করছে। মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী বীর সন্তানদের স্মৃতির প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানাচ্ছে জাতি। শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক জাতীয় নেতাদের এবং গণহত্যার শিকার লাখো মানুষ ও সম্ভ্রম হারানো মা-বোনের প্রতি। আজ সরকারি ছুটির দিন।

বাঙালির স্বাধিকারের চেতনার উন্মেষ ঘটেছিল বায়ান্নর রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে। তা ধাপে ধাপে রূপ নেয় স্বাধীনতার আন্দোলনে। ধর্মীয় পরিচয়ে ভারতবর্ষ ভাগ হলে বাঙালির ওপর শোষণ শুরু করে পাকিস্তানি শাসকরা। একইসঙ্গে আগ্রাসন চালানো হয় ভাষা ও সংস্কৃতির ওপর। 

বঞ্চনা ও শোষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ উঠে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে। ষাটের দশকে প্রতিবাদ পরিণত হয় স্বাধিকারের দাবিতে। এভাবে ধাপে ধাপে স্বাধীনতার ভিত্তি তৈরি হয়। এ আন্দোলনের রূপকার হয়ে উঠেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।  

একাত্তরের নয়মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ৩০ লাখ মানুষের আত্মদান, ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রম আর বিপুল ক্ষয়ক্ষতির মধ্য দিয়ে ১৬ ডিসেম্বর অর্জিত হয় বিজয়। বাঙালি লাভ করে কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা। পৃথিবীর মানচিত্রে অভ্যুদয় ঘটে স্বাধীন বাংলাদেশের।

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সারাদেশে দিবস উদযাপিত হচ্ছে। ভোরে সাভারে অগণিত শহীদের স্মরণে নির্মিত জাতীয় স্মৃতিসৌধে  শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরি, বিদেশি কূটনীতিক, তিনবাহিনীর প্রধানরা। শ্রদ্ধা জানান বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। পরে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য শহীদ মিনার খুলে দেয়া হয়। 

দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে জাতীয় পত্র-পত্রিকা বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেছে। সরকারি ও বেসরকারি বেতার ও টিভি চ্যানেলগুলো প্রচার করবে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। সরকারি, আধা-সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। 

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তারা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন এবং দেশের সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

এফ/১০:২২/২৬মার্চ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে