Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২৫-২০১৬

তনু হত্যায় একজন আটকের খবর, পুলিশের অস্বীকার

আবুল কাশেম হৃদয়


তনু হত্যায় একজন আটকের খবর, পুলিশের অস্বীকার

কুমিল্লা, ২৫ মার্চ- কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় একজন আটকের সংবাদ পাওয়া গেলেও অস্বীকার করছে স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষ। আটক ওই তরুনের পরিবার সেনানিবাসে বসবাস করে এবং সে ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বলে বিশেষ সূত্রে জানা গেছে।

প্রাইভেট পড়াতে যাওয়ার সময় ওই তরুন প্রায়ই তনুকে উত্যক্ত করতো বলে তনুর পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। তবে কুমিল্লার পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন কাউকে গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকার করেছেন।

পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন জানান, তনু হত্যার বিষয়ে এখনো পর্যন্ত সংবাদ মাধ্যমকে দেয়ার মতো কোন তথ্য নেই। সুনির্দিষ্টভাবে কোন কিছু না জানা পর্যন্ত আমরা কিছু বলছি না।

তিনি আরও বলেন, নিহত তনুকে ফোনে কেউ বিরক্ত করতো বলে, তার ফেসবুকে যে নম্বর আছে সে সম্পর্কে এবং কেউ তাকে বিরক্ত করতো সে সম্পর্কে আমাদের কাছে কোন তথ্য নেই। তার পরিবার আমাদের কিছু জানায় নি।

পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন জানান, পোষ্টমর্টেম করলে কিছু পদ্ধতিগত বিষয় আছে। সে ধর্ষিত হয়েছে কিনা, তাকে হত্যা করা হয়েছে কিনা সব কিছু সম্পর্কে নিশ্চিত না হয়ে কিছু বলতে পারছি না।

এ বিষয়ে ওই সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার পর দিনই এক যুবককে আটকের পর তার ফিঙ্গার প্রিন্ট নেয়া হয়েছে। এরপর থেকে তার আর খোঁজ নেই। তবে তাকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে তুলে দেয়া হয়ে থাকতে পারে।

কুমিল্লা সেনা নিবাসের ৫৮/১ পাহাড় হাউসে বসবাস করা কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ইতিহাসের ২য় বর্ষের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর সাথে সবার সুসম্পর্ক ছিল। ছোট থেকে সে বড় হয় কুমিল্লা সেনানিবাসে। মাঝখানে এক বছর সে ক্যান্টমেন্টে ছিল না। স্কুল জীবনও কেটেছে কুমিল্লা সেনানিবাসে। সেনানিবাসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও যোগ দিত সে। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাই তাকে পছন্দ করতো। তনু হত্যার ঘটনার বিচারের দাবিতে কুমিল্লার স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সারাদেশে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা আইন শৃঙ্খলা কোরের এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে জেলা প্রশাসক হাসানুজ্জামান কল্লোল, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, ডিজিএফআইয়ের ডিজি সাজ্জাদ হোসেন, বিজিবির কমান্ডার লে. কর্ণেল মোখলেসুর রহমান, র‌্যাব ১১ এর ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানির কমান্ডার, এনএসআইয়ের জেনারেল ডিরেক্টর মজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক হাসানুজ্জামান কল্লোল সকলের সহযোগিতা চেয়ে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, তনু হত্যার বিষয়ে কারো কাছে কোন তথ্য থাকলে তা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে জানানো দরকার। আমরা সকলের সহযোগিতা চাই।

আর/১১:৫৪/২৫ মার্চ

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে