Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২৫-২০১৬

বিনা মূল্যে চিকিৎসা সুবিধা দিতে চালু হলো স্বাস্থ্যবিমা

বিনা মূল্যে চিকিৎসা সুবিধা দিতে চালু হলো স্বাস্থ্যবিমা

টাঙ্গাইল, ২৫ মার্চ- দরিদ্র মানুষকে বিনা মূল্যে চিকিৎসা-সুবিধা দিতে দেশে প্রথমবারের মতো চালু হয়েছে স্বাস্থ্যবিমা। টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে গতকাল বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে এই বিমা উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

সরকারের স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচির (এসএসকে) আওতায় শুরুতে টাঙ্গাইলের কালিহাতী, ঘাটাইল ও মধুপুর উপজেলায় স্বাস্থ্যবিমা চালু হলো। গতকাল দুপুরে কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ বিমার উদ্বোধন করেন। পরে তিনি কালিহাতী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কয়েকজন দরিদ্র মানুষের হাতে বিমা কার্ড তুলে দেন।

এ সময় মোহাম্মদ নাসিম বলেন, চিকিৎসাসেবা পাওয়া মানুষের সাংবিধানিক অধিকার। কেউ যাতে এ সেবা থেকে বঞ্চিত না হন, সে জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই স্বাস্থ্যবিমার উদ্যোগ নিয়েছেন। তাই তাঁর নামে এই বিমার নামকরণ করা হবে।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বব্যাংকের কাছে মাথানত না করে নিজেদের অর্থে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু করেছেন। সরকার জনগণের চিকিৎসাসেবা এবং বিদ্যুতের আলো ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করছে। এই তিন কারণেই মানুষ আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে আবার ক্ষমতায় আনবে।

স্বাস্থ্যসচিব সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক খাদ্যমন্ত্রী মো. আবদুর রাজ্জাক, টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের প্রশাসক ফজলুর রহমান খান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক দীন মোহাম্মদ নুরুল হক, স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচির মহাপরিচালক আসাদুল হক, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মহাপরিচালক মো. আলমগীর, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. মাহবুব হোসেন, সিভিল সার্জন সৈয়দ ইবনে সাইদ, কালিহাতী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাহারুল ইসলাম তালুকদার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে স্বাস্থ্যবিমা চালু থাকলেও বাংলাদেশে এটাই প্রথম। পরীক্ষামূলক এই প্রকল্পের আওতায় টাঙ্গাইলের কালিহাতী, ঘাটাইল ও মধুপুর উপজেলার দরিদ্র পরিবারগুলোর ওপর জরিপকাজ করা হয়েছে। প্রতিটি দরিদ্র পরিবারকে একটি করে স্বাস্থ্যবিমা কার্ড দেওয়া হবে, যাতে পরিবারের সবার নাম উল্লেখ থাকবে। এই কার্ড দিয়ে পরিবারের যেকোনো সদস্য বিনা মূল্যে ৫০টি রোগের জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ, পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও ওষুধ পাবেন। কার্ডধারীরা প্রথমে নিজ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাবেন। সেখানে চিকিৎসা-সুবিধা পর্যাপ্ত না হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁদের টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে। সেখানেও তাঁরা বিনা মূল্যে সব ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও ওষুধ পাবেন।

প্রকল্পটির পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচির মহাপরিচালক আসাদুল হক। স্থানীয়ভাবে সমন্বয় করবেন টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন সৈয়দ ইবনে সাইদ। তিনি বলেন, তিনটি উপজেলার প্রায় এক লাখ দরিদ্র মানুষ এই স্বাস্থ্যবিমা কার্ড পাবে।

এস/০২:৩৫/২৫ মার্চ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে